Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ০৯ মে ২০২১, ২৬ বৈশাখ ১৪২৮

রাজধানীর শপিংমল-মার্কেটে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

শপিংমল-মার্কেটে কেনাকাটায় মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি
শপিংমল-মার্কেটে কেনাকাটায় মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর পর গত বছর লকডাউন শেষে রাজধানীর বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি অফিস ও মার্কেট-শপিংমলের প্রবেশপথে স্থাপন করা হয় জীবাণুনাশক টানেল। এর নিচ দিয়ে প্রবেশ করলেই জীবাণুনাশক তরল পদার্থ উপর থেকে ছিটে পড়ে, যা করোনা সংক্রমণরোধে ভূমিকা রাখে। কিন্তু বর্তমানে নিউ মার্কেট, নিউ সুপার ও চন্দ্রিমা সুপার মার্কেটের বেশিরভাগ ফটকের সামনে দেখা যায়নি কোনও জীবাণুনাশক টানেল। দুই-তিনটি পুরনো টানেল থাকলেও তা অকার্যকর ও অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে। সেদিকে কর্তৃপক্ষের নেই কোন নজর। এদিকে ঈদকে সামনে রেখে মার্কেটের ভেতরে মানুষের সমাগম অনেক বেড়েছে। স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই। এতে করোনা ঝুঁকি আরও বাড়ছে।

বুধবার (৫ মে) রাজধানীর নিউ মার্কেট, চাঁদনিচক, গাউছিয়াসহ এর আশপাশের কয়েকটি মার্কেট ঘুরে দেখা যায়, দুপুরের পর থেকেই মার্কেটগুলো লোকে লোকারণ্য। এক প্রান্ত থেকে আর এক প্রান্তে যেতেই দীর্ঘক্ষণ লেগে যাচ্ছে। অথচ যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি পালন হচ্ছে না কোথাও। জীবাণুনাশক টানেলগুলো পরে আছে অলস। দুই-একটি প্রবেশদ্বারে হ্যান্ডস্যানিটাইজারের ব্যবস্থা থাকলেও বেশিরভাগ মানুষ ব্যবহার না করেই চলে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে নিউ মার্কেটের হাসান গার্মেন্টসের মালিক তওহিদ বলেন, এটা মানতেই হবে যে, মার্কেটে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানা সম্ভব হচ্ছে না। আমরা নিজেরা যতটুকু পারি চেষ্টা করছি। হ্যান্ডস্যানিটাইজারের মতো সুরক্ষা সামগ্রী রেখেছি দোকানে। তবে এক্ষেত্রে ক্রেতাদেরও সচেতন হতে হবে। অনেক ক্রেতাই দেখি স্বাস্থ্যবিধির ব্যাপারে সচেতন না।

এদিকে মার্কেটগুলোতে স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে কর্তৃপক্ষের অনীহা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ক্রেতারা।

পরিবার নিয়ে কেনাকাটা করতে আসা আসলাম হোসেন বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কেট পরিচালনার কথা থাকলেও মার্কেট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে তেমন কোন পদক্ষেপ নেয়নি। মার্কেটের কোন গেটেই জীবাণুনাশক টানেল দেখিনি। অথচ এ বিষয়ে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়া উচিত ছিল।

আজিমপুর থেকে শপিং করতে আসা খালেদা বেগম বলেন, শিশুদের জোড়াজুড়িতে মার্কেটে এসেছি। আমরা তো নিউজে দেখেছি মার্কেটগুলোতে ঠিকভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরিচালনা করা হবে। কিন্তু এসে তো উল্টো চিত্র দেখছি। স্যানিটাইজারের ব্যবস্থার পাশাপাশি ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়কেই মাস্ক পরা উচিত।

বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন আরটিভি নিউজকে বলেন, প্রত্যেক মার্কেট ও মহল্লার দোকানগুলোর জন্য আমাদের আলাদা কমিটি করে দেয়া আছে। কমিটিগুলোর দায়িত্ব এসব বিষয় দেখা। নতুন করে আমাদের কমিটি করে তো মাঠ পর্যায়ে এসব দেখা সম্ভব নয়।

পি

RTV Drama
RTVPLUS