• ঢাকা বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১
logo
কোটা আন্দোলনকারী ১১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা
বগুড়ায় প্রাণ গেল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর
বগুড়ায় যাত্রীবাহী বাসে ছিনতাই চেষ্টার সময় আতঙ্কে চলন্ত বাস থে‌কে লা‌ফি‌য়ে প‌ড়ে সান‌জিদা স্বর্ণা না‌মে এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় র‌নি মোল্লা নামের এক যুবককে আটক ক‌রে‌ছে পু‌লিশ।  বুধবার (১৭ জুলাই) দুপুর ১২টার দিকে শেরপু‌র উপ‌জেলার ধনকু‌ন্ডি এলাকায় এই ঘটনা ঘ‌টে। নিহত সান‌জিদা আমে‌রিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলা‌দে‌শের শিক্ষার্থী ছিলেন।  জানা গেছে, শাহ ফ‌তেহ আলী প‌রিবহ‌নের এক‌টি বাস ঢাকা থে‌কে ছে‌ড়ে আসা বগুড়াগামী উপ‌জেলার ধনকু‌ন্ডি এলাকার ফুড ভি‌লেজ রেস্টু‌রে‌ন্টে যাত্রাবিরতি দেয়। এ সময় অনেক যাত্রীরা বাস‌ থে‌কে নে‌মে গেলে ওই শিক্ষার্থীসহ আরও ৩ নারী যাত্রী ছি‌লেন বাসের মধ্যে। এর কিছুক্ষণ পরে এক যুবক গাড়ি ট্রায়াল দেওয়ার কথা ব‌লে গাড়ি নি‌য়ে বে‌র হয়ে মহাসড়‌কে নিয়ে গাড়ি‌টি বেপ‌রোয়া গ‌তি‌তে চালা‌তে থাকেন। এ সময় যাত্রীরা চি‌ৎকার কর‌তে থা‌কেন এবং তাকে গাড়ির গতি কমাতে বলে। কিন্তু ওই যুবক কোনকিছু না শুনে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালা‌তে থা‌কে। এরপর গাড়িটি মির্জাপুর পৌঁছা‌লে ছিনতাই আত‌ঙ্কে ওই ছাত্রী বাস থে‌কে লা‌ফি‌য়ে প‌ড়ে। পরে তাকে উদ্ধার ক‌রে শেরপুর উপ‌জেলা স্বাস্থ্য কম‌প্লে‌ক্সে নি‌য়ে গে‌লে সেখানে সান‌জিদার মৃত্যু হয়।  বগুড়া শাজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শ‌হিদুল ইসলাম ব‌লেন, ‘আটক র‌নি মোল্লা বাস‌টি শাজাহানপুর লিচুতলা বাইপাস এলাকায় রে‌খে পালি‌য়ে যায়। ওই গাড়ির স্টে‌য়ারিং‌য়ের নি‌চে একটা মা‌নিব্যাগ পাই। মা‌নিব্যাগে এনআইডি কার্ড ছি‌ল। সেখান থে‌কে তথ্য নি‌য়ে অভিযান চা‌লি‌য়ে জ‌ড়িত‌কে আটক করা হয়। ওই এলাকা‌তেই রনির বাসা।’  তিনি আরও বলেন, ‘বাস‌টি‌র ভেতর তিনজন নারী যাত্রী পাই, তারা আমা‌দের ঘটনার বিস্তারিত জানান। প্রাথ‌মিকভা‌বে জানা গেছে, যাত্রী‌বে‌শে আব্দুল্লাহপুর থে‌কে আটক রনি বগুড়ায় আস‌ছি‌ল। সে একজন ট্রাকচালক।’
বোনকে বাঁচাতে গিয়ে ভাইয়ের মৃত্যু
ডেপুটি স্পিকারের সুপারিশের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
চাঁপাইনবাবগঞ্জে কলেজ শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ
রাজশাহীর দামকুড়াতে রিকশাচালককে কুপিয়ে হত্যা
বগুড়া আজিজুল হক কলেজে ককটেল বিস্ফোরণ, আহত ৪
বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজে কোটা আন্দোলনের পক্ষে সড়ক অবরোধের সময় ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে চার শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।  মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে কলেজের মেইন গেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহত শিক্ষার্থীরা হলেন, সরকারি আজিজুল হক কলেজের ফিন্যান্স বিভাগের তৃতীয় বর্ষের তাফসির এবং পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের সুমন, অর্থনীতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের মামুন এবং মিলন। তারা চারজন বর্তমানে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আহত তাফসির বলেন, ‘কোটাবিরোধী আন্দোলনের অংশ হিসেবে আমরা কলেজের সামনে তিনমাথা থেকে সাতমাথা যে সড়ক আছে সেটি অবরোধ করি। প্রায় ২০ মিনিট আমাদের অবরোধ কর্মসূচি চলে। কর্মসূচি শেষ করে কলেজ থেকে ফিরছিলাম। সুমনও মেইন গেটের পাশে বসেছিল। এ সময় ককটেল বিস্ফোরণ করা হলে আমরা দুজনই আহত হই। এ ছাড়া আরও দুজন আহত হয়েছেন।’ বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শাহীনুজ্জামান বলেন, ‘আহত হয়েছে কি না, এ ব্যাপারে জানা নেই। এখন কলেজ ক্যাম্পাস শান্ত আছে।’
বিপৎসীমার নিচে সারিয়াকান্দিতে যমুনা নদীর পানি
বগুড়া সারিয়াকান্দিতে যমুনা নদীর পানি বিপৎসীমার ৮ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় পানি কমেছে ১২ সেন্টিমিটার। ফলে এ জেলায় বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে।  মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ড। গত কয়েক দিন ধরেই যমুনা নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে থাকায় ১ হাজার ২৫০ হেক্টর জমির পাটগাছসহ ১ হাজার ৪৫৭ হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।  এ দিকে কয়েক দিন ধরেই পানি বিপৎসীমার ওপরে থাকার কারণে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বেড়িবাঁধে আশ্রয় নেওয়া মানুষ এখন তাদের নিজবাড়িতে ফিরতে শুরু করেছেন।  তবে উপজেলার বিশালাকার গো চারণভূমি পানিতে নষ্ট হওয়াতে এ উপজেলার ৭০ হাজার গবাদিপশু খাবার সংকটে রয়েছে।
কোটা সংস্কারের দাবিতে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ  
রাজশাহীতে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে কমলাপুর এলাকা সংলগ্ন রাজশাহী-ঢাকা বাইপাস সড়ক অবরোধ করে অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রধান ফটকে সামনে এ অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন তারা।  শিক্ষার্থীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারাদেশে শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগ ও পুলিশি হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। তারা এ সময় ‘মেধা না কোটা, মেধা মেধা’, ‘দালালি না রাজপথ, রাজপথ রাজপথ’, ‘দিয়েছি তো রক্ত আরও দেব রক্ত’ ইত্যাদি বলে স্লোগান দেন।  এ সময় কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন তারা। পাশাপাশি এ দিন বিকেল ৩টায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কোটা সংস্কারপন্থী শিক্ষার্থীদের যোগ দেওয়ার ঘোষণা দেন তারা।
পোস্টার হাতে রাস্তায় একাই দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ শিক্ষার্থীর  
রাজশাহীতে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে রাস্তায় এককভাবে দাঁড়িয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে এক স্কুল শিক্ষার্থী। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকাল ৯টা থেকে প্রায় ১০টা পর্যন্ত নগরীর কাবিরগঞ্জ এলাকায় অবস্থিত শহীদ নাজমুল হক বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের সামনের রাস্তায় একটি পোস্টার হাতে নিয়ে অবস্থান নেন ওই ছাত্রী।  তার নাম কামারুন মনিরা। সে শহীদ নাজমুল হক বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। মূলত কোটা আন্দোলনকারীদের সমর্থন জানাতে রাস্তায় নামেন তিনি। মনিরা জানান, কোটা বাতির দাবিতে সারাদেশে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে। বিশেষ করে সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোটা সংস্কারপন্থী শিক্ষার্থীদের ওপর চড়াও হয়েছে ছাত্রলীগ। আমি এসব ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। মনিরা আরও জানান, ‘স্বাধীন বাংলাদেশে কোটা প্রথার কোনো জায়গা থাকতে পারে না। মেধাবীরা মুক্তি না পেলে ভবিষ্যতে দেশ অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়বে।’  এ সময় তার হাতে লেখা পোস্টারে দেখা যায়, ‘কোটা প্রথা, নিপাত যাক’, ‘মেধাবীরা মুক্তি পাক’।
কোটা সংস্কারের দাবিতে বগুড়া মেডিকেলে ক্লাস বর্জন
কোটা সংস্কারের দাবিতে মঙ্গলবার থেকে ক্লাস বর্জন কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছেন বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা।   সোমবার (১৫ জুলাই) রাতে কোটা সংস্কারের দাবিতে কলেজ ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ শেষে এ ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা।  রাত দশটার দিকে কলেজের বিভিন্ন ছাত্রাবাস ও ছাত্রীনিবাস থেকে কোটা সংস্কারের দাবিতে সাড়ে পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী জড়ো হন কলেজ ক্যাম্পাসে।  এ সময় তারা কলেজের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে কোটা সংস্কারের দাবিতে এবং সারাদেশে এই আন্দোলনে যুক্ত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। পরে তারা কলেজ ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন।   শিক্ষার্থীরা জানান, কোটার কারণে সরকারি বিভিন্ন চাকরিতে মেধাবীরা বছরের পর বছর ধরে বঞ্চিত হয়ে আসছেন। তাই কোটা সংস্কার এখন সময়ের দাবি। এই দাবিতে মঙ্গলবার সকাল থেকে মেডিকেল কলেজে ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ সমাবেশ করার ঘোষণাও দেন শিক্ষার্থীরা।
কোলের শিশুকে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলেন মা
জয়পুরহাটে শিশুসন্তান শোয়াইবকে (৪) নিয়ে চলন্ত ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন শাহানাজ বেগম (২৫) নামে এক গৃহবধূ। সোমবার (১৫ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টার দিকে পাঁচবিবি উপজেলার বাগজানা এলাকায় রেলগেটের পাশে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, সন্ধ্যা ৬টার দিকে বাগজানা রেলগেট থেকে দক্ষিণে প্রায় ৩শ গজ দূরে চার বছরের শিশুটিকে নিয়ে তার মা রেললাইনের ওপর অপেক্ষা করছিলেন। এরপর সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটের দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী একতা এক্সপ্রেস ট্রেন ঘটনাস্থলে পৌঁছালে শিশুটিকে নিয়ে তার মা ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন। এ সময় স্থানীয়রা ছুটে আসেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে থানা পুলিশ উপস্থিত হন। ধারণা করা হচ্ছে, পারিবারিক কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটতে পারে। পাঁচবিবি থানার ওসি ফয়সাল বিন আহসান  জানান, ‘স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। প্রয়োজনীয় তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সান্তাহার রেলওয়ে জিআরপি পুলিশকে বলা হয়েছে। বিষয়টি শান্তাহার জিআরপি পুলিশ দেখছে।’