• ঢাকা বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১
logo
অ্যামাজনে গত ছয় মাসে রেকর্ডসংখ্যক দাবানল
‘স্বর্গে জমি’ বিক্রি চলছে, প্রতি বর্গমিটার সাড়ে ১১ হাজার টাকা!
বিশ্বের বিভিন্ন ধর্মের মানুষ তাদের ধর্মীয় আচার মেনে স্বর্গ পাওয়ার চেষ্টা করছেন। তবে এবার সেই স্বর্গেই প্লট বিক্রির খবর পাওয়া গেল। যেখানে প্রতি বর্গমিটার জায়গা বিক্রি হচ্ছে ১০০ ডলারে (বাংলাদেশেই মুদ্রায় ১১ হাজার ৭৬৩ টাকা)। এমন অদ্ভুত ধরনের অফার দিয়েছে মেক্সিকোর একটি গির্জা। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টিকটকে মেক্সিকোর ওই গির্জার খবরটি ছড়িয়ে পড়ে। এই খবরটি মেক্সিকোর বিভিন্ন গণমাধ্যমেও প্রকাশিত হয়। জানা গেছে, মেক্সিকোর ইগ্লেসিয়া দেল ফাইনাল দে লস টিমপোস গির্জা স্বর্গে প্লট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে জমির চুক্তির মাধ্যমে কোটি কোটি ডলার সংগ্রহ করেছে। তবে শেষ পর্যন্ত জানা গেছে, প্রতারক ধর্মপ্রচারকদের বিরুদ্ধে তাদের এই প্রচার। এই গির্জার পেজগুলো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ জনপ্রিয়। ইগ্লেসিয়া দেল ফাইনাল দে লস টিমপোস গির্জার পক্ষ থেকে বলা হয়, স্বর্গে প্রতি বর্গমিটার জমি পাওয়া যাচ্ছে ১০০ ডলারে। একজন ক্রেতা আমেরিকান এক্সপ্রেস, অ্যাপল পেসহ বিভিন্নভাবে লেনদেন করতে পারবেন। মেক্সিকোর বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই গির্জার যাজক ২০১৭ সালে ঈশ্বরের সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি তাকে জমি বিক্রির নির্দেশ দিয়েছেন। এ খবরটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করে এক ব্যবহারকারী লেখেন, ‘আমি আশা করি একজন যাজক আমার কাছে স্বর্গে কিছু জমি বিক্রি করার চেষ্টা করবেন।’ আরেকজন লেখেন, ‘আমার জানা দরকার কে কিনছে। আমি তাদের জানাতে চাই যে, আমি স্বর্গে জমি কম দামে বিক্রি করছি।’
ভেনেজুয়েলায় ৬.২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প
বাজেট সংস্কার প্রস্তাব পাসে আর্জেন্টিনায় বিক্ষোভ-সংঘর্ষ
কৃষ্ণাঙ্গ যাত্রীদের শরীরে গন্ধ, এমন অভিযোগে প্লেন থেকে নামানো হলো ৮ কৃষ্ণাঙ্গ যাত্রীকে
ব্রাজিলে বন্যায় নিহত ১০০ ছাড়িয়েছে, নিখোঁজ ১২৬ 
ব্রাজিলে ভয়াবহ বন্যা: নিহত বেড়ে ৯০, নিখোঁজ শতাধিক
টানা কয়েকদিনের ভারী বর্ষণে সৃষ্ট বন্যায় তলিয়ে গেছে লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ রিও গ্র্যান্ডে ডো সুল। প্রদেশটিতে শহরের পর শহর তলিয়ে গেছে পানিতে। ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়ে এখন পর্যন্ত ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে সেখানে। এছাড়া আরও ১৩০ জনেরও বেশি মানুষ এখনো নিখোঁজ রয়েছেন।  বুধবার (৮ মে) পৃথক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স এবং সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা ও বিবিসি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্রাজিলের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ রিও গ্র্যান্ডে ডো সুলে ভয়াবহ বন্যার কারণে বিস্তীর্ণ এলাকা পানির নিচে তলিয়ে গেছে। বন্যায় এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ৯০ জন মারা গেছেন এবং প্রায় দেড় লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। বিবিসি বলছে, বন্যায় তলিয়ে যাওয়া কিছু শহর অন্যান্য অঞ্চল থেকে এখনও বিচ্ছিন্ন রয়ে গেছে এবং নিখোঁজ থাকা ১৩০ জনেরও বেশি লোককে খুঁজে পাওয়ার আশা ধীরে ধীরে হ্রাস পাচ্ছে। এদিকে চলতি সপ্তাহে আরও ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে এবং তেমনটি হলে এই অঞ্চলের বিপর্যয়কর পরিস্থিতি আরও খারাপ আকার ধারণ করবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। অনেক বাসিন্দাকে তাদের বাড়িঘর ছেড়ে যেতে হয়েছে। এছাড়া বন্যায় সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় থাকা বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ করেছে উদ্ধার কর্মীরা। আল জাজিরা বলছে, প্রদেশের রাজধানী পোর্টো আলেগ্রে বন্যায় কার্যত যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। সেখানকার বিমানবন্দর ও বাস স্টেশন বন্ধ হয়ে গেছে এবং প্রধান সড়কগুলোও এখন অবরুদ্ধ। এরই মধ্যে সেখানে বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দিয়েছে। বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে। বন্যা কবলিত প্রদেশটির সিভিল ডিফেন্স এজেন্সি বলেছে, বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯০ জনে পৌঁছেছে এবং আরও চারজনের মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা চলছে। সবশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আরও ১৩১ জন এখনও নিখোঁজ রয়েছেন এবং এক লাখ ৫৫ হাজার মানুষ গৃহহীন হয়ে খোলা আকাশের নিচে দিনযাপন করছেন।  
ব্রাজিলে প্রবল বর্ষণে নিহত ৩৯, নিখোঁজ ৭০
ভারী বৃষ্টিপাতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য রিও গ্রান্দে দো সুল। এতে রাজ্যটিতে অন্তত ৩৯ জন মারা গেছেন। নিখোঁজ রয়েছেন ৭০ জন। মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। খবর রয়টার্সের রাজ্যের গভর্নর এদোয়ার্দো লেইতে গতকাল (শুক্রবার) সাংবাদিকদের বলেন, ‘বৃষ্টিতে রিও গ্রান্দে দো সুলের বেশ কয়েকটি শহরের রাস্তাঘাট পানির নিচে তলিয়ে গেছে। আগামী কয়েক দিনে আমরা অনেক এলাকায় পৌঁছাতে পারব। তখন মৃত্যুর সংখ্যায় পরিবর্তন আসতে পারে। গত সোমবার থেকে রাজ্যটিতে ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে। স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার স্থানীয় সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ জানায়, ঝড়-বৃষ্টিতে রাজ্যের ৪৯৭টি শহর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মৃত্যু ও নিখোঁজের পাশাপাশি এসব শহরের অন্তত ২৪ হাজার মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে। তিনি আরও জানান, বৃষ্টিতে হতাহতের পাশাপশি ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ কয়েকটি সড়ক ও সেতু। এ ছাড়া ঝড়ের কারণে ভূমিধস দেখা দিয়েছে। স্থানীয় একটি জলবিদ্যুৎকেন্দ্রের জলাধারের আংশিক ধসে পড়েছে। আরেকটি জলাধারও ধসে পড়ার ঝুঁকিতে রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের সরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  রিও গ্রান্দে দো সুল রাজ্য আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ে সীমান্ত লাগোয়া। ভৌগোলিক অবস্থানের রিও গ্রান্দে দো সুল প্রায়ই চরম আবহাওয়ার মুখে পড়ে। কখনো কখনো সেখানে প্রবল বৃষ্টিপাত হয়। কখনো আবার দেখা দেয় খরা। স্থানীয় বিজ্ঞানীদের ধারণা, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সেখানকার আবহাওয়া আরও চরম রূপ নিচ্ছে। এদিকে দুর্যোগের মধ্যেই গত বৃহস্পতিবার রাজ্যটি পরিদর্শনে যান ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট লুলা দা সিলভা। সেখান গিয়ে তিনি রাজ্যের গভর্নরের সঙ্গে উদ্ধার অভিযানের বিষয়ে আলাপ করেন। 
ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্টের
ফিলিস্তিনের গাজায় হামলার কারণে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছেন দক্ষিণ আমেরিকার দেশ কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট গুস্তাভো পেত্রো। স্থানীয় সময় বুধবার আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস উপলক্ষে জড়ো হওয়া মানুষের সামনে তিনি এ ঘোষণা দেন। এ সময় গাজায় হামলার ঘটনায় ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর কঠোর সমালোচনা করে পেত্রো বলেন, তার দেশ আগামীকালই (বৃহস্পতিবার) ইসরায়েলের সঙ্গে সব ধরনের কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে যাচ্ছে। এছাড়া অন্যান্য দেশগুলোকে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) ইসরায়েলের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ আনা দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে যোগ দেওয়ার অনুরোধ জানান।  লোকভর্তি জনসমাগমস্থলে পেত্রো তার ঘোষণায় বলেন, ‘আপনাদের সামনে প্রজাতন্ত্রের প্রেসিডেন্ট ঘোষণা দিচ্ছেন যে, আগামীকাল আমরা ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কগুলো ছিন্ন করব’। পেত্রো তার বক্তব্যে ইসরায়েলের রাষ্ট্রপ্রধানকে গণহত্যাকারী বলে আখ্যা দেন।  পেত্রো আরও বলেন, গাজার এমন পরিস্থিতিতে বিশ্বের কোনো দেশ নিষ্ক্রিয় থাকতে পারে না। গত বছরের অক্টোবরে গাজায় হামলার পরপরই ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে দক্ষিণ আমেরিকার আরেক দেশ বলিভিয়া। সেসময় কলম্বিয়া, চিলি ও হন্ডুরাসসহ দক্ষিণ আমেরিকার আরও কয়েকটি দেশ ইসরায়েল থেকে তাদের রাষ্ট্রদূতদের প্রত্যাহার করে নিয়েছিল। এদিকে কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্টের এমন ঘোষণায় ক্ষোভ প্রকাশ করে ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজ অভিযোগ করে বলেন, পেত্রোর এই ঘোষণা ‘ইহুদিবিদ্বেষী ও ঘৃণায় পরিপূর্ণ’।     
কলম্বিয়ায় হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ৯ সেনার প্রাণহানি
দক্ষিণ আমেরিকার দেশ কলম্বিয়ায় একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে দেশটির ৯ সেনা সদস্য প্রাণ হারিয়েছেন। সোমবার (২৯ এপ্রিল) দেশটির উত্তরাঞ্চলে সেনা সদস্যদের বহনকারী এই হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়। মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কলম্বিয়ার নয়জন সেনা সোমবার উত্তর বলিভার বিভাগে তাদের হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে মারা গেছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। মূলত, এই অঞ্চলেই বৃহত্তম কোকেন কার্টেলের বিরুদ্ধে লড়াই করছে দেশটির সামরিক বাহিনী। কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট গুস্তাভো পেট্রো সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে বলেছেন, গালফ ক্ল্যান গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযানের জন্য নতুন সৈন্যদের সরবরাহ করার সময় হেলিকপ্টারটি দুর্ঘটনার মুখে পড়ে। বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারটি ছিল রাশিয়ার তৈরি এমআই-১৭ মডেলের। অবশ্য প্রেসিডেন্ট গুস্তাভো পেট্রো বা দেশটির সামরিক বাহিনীর কেউই রাশিয়ার তৈরি এই হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ সম্পর্কে কিছু বলেননি। এ ছাড়া হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হওয়ার সঙ্গে গালফ ক্ল্যান গোষ্ঠীর কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা সেটিও উল্লেখ করা হয়নি। কলম্বিয়ায় এই গোষ্ঠীটির ৪ হাজার সশস্ত্র যোদ্ধা রয়েছে।
পেরুতে ৬৫০ ফুট গভীর খাদে যাত্রীবাহী বাস, নিহত ২৫
দক্ষিণ আমেরিকার দেশ পেরুতে পাহাড়ি রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ে যাত্রীবাহী একটি বাস ৬৫০ ফুট গভীর খাদে পড়ে কমপক্ষে ২৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ২০ জন। বার্তাসংস্থা এএফপি মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পেরুর উত্তরাঞ্চলে পাহাড়ি রাস্তা থেকে একটি বাস খাদে পড়ে যাওয়ার পর কমপক্ষে ২৫ জন মারা গেছেন এবং আরও ২০ জনের মতো মানুষ আহত হয়েছেন বলে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ সোমবার জানিয়েছে। দুর্ঘটনার পর তাৎক্ষণিকভাবে ২৩ জনের নিহত হওয়ার কথা জানানো হলেও পরে এই তথ্য হালনাগাদ করে ২৫ জন বলে জানানো হয়। পৌরসভার কর্মকর্তা জেইম হেরেরা বলেন, ৫০ জনেরও বেশি যাত্রী নিয়ে বাসটি একটি নদীর ধারে পড়ে যায় এবং আরোহীদের কয়েকজন পানিতে ভেসে গেছে। উদ্ধারকর্মীরা দুর্ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এছাড়া এই দুর্ঘটনা ও প্রাণহানির পর সেলেনডিন পৌরসভা ৪৮ ঘণ্টার শোক ঘোষণা করেছে। কর্তৃপক্ষ বলছে, বাসটি রাস্তায় চলাচলের উপযোগী ছিল কিনা তা তারা খতিয়ে দেখবে। এএফপি বলছে, পেরুতে বাস দুর্ঘটনা খুবই সাধারণ বিষয়। বিশেষ করে রাতে এবং পাহাড়ের হাইওয়েতে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। এছাড়া দ্রুত গতি, রাস্তার খারাপ অবস্থা, রোড সাইনের অভাব এবং ট্রাফিক নিয়ম-কানুনের দুর্বল প্রয়োগের কারণে পেরুর রাস্তায় প্রায়ই এই ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। গত বছর, দক্ষিণ আমেরিকার এই দেশটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩১০০ জনেরও বেশি প্রাণহানির তথ্য নিবন্ধিত করা হয়েছে।  
মিস ইউনিভার্সের বিশ্বমঞ্চে ওঠার অপেক্ষায় ৬০ বছরের ‘তরুণী’!
আলেজান্দ্রা মারিসা রদ্রিগেজ। বয়স কেবলই যে একটি সংখ্যা, তার সবচেয়ে বড় দৃষ্টান্তই হয়তো স্থাপন করে ফেললেন ৬০ বছর বয়সী আর্জেন্টাইন এ ‘তরুণী’। হ্যাঁ, ঠিকই দেখছেন, তরুণীই বটে! নয়তো যে বয়সে পা দিয়ে বেশিরভাগ মানুষই জীবনীশক্তি হারাতে থাকেন, সোজা হয়ে চলাফেরার শক্তিটাও যে বয়সে হারিয়ে ফেলেন অনেকে, সে বয়সেই কিনা মারিসা মাথায় পড়লেন সুন্দরী প্রতিযোগিতায় সেরার মুকুট।  বুধবার (২৪ এপ্রিল) আর্জেটিনার বুয়েনস এইরেস প্রদেশের মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় সেরা সুন্দরীর মুকুট জিতেছেন তিনি। আলেজান্দ্রা মারিসা রদ্রিগেজই বিশ্বের প্রথম নারী, যিনি ৬০ বছর বয়সে কোনো সুন্দরী প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হলেন।  পেশায় সাংবাদিক ও আইনজীবী মারিসা এখন প্রহর গুনছেন মিস ইউনিভার্স আর্জেন্টিনার ফাইনালে জেতার। আর এমনটা হলেই মিস ইউনিভার্সের বিশ্বমঞ্চ সাক্ষী হবে রোমাঞ্চকর এক অভিজ্ঞতার। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সেরা সুন্দরীদের সঙ্গে এক মঞ্চে উঠতে দেখা যাবে ৬০ বছর বয়সী ব্যতিক্রমী এক তরুণীকে।    প্রাদেশিক সেরা সুন্দরীর মুকুট জয়ের পর উচ্ছ্বাস ঝরে পড়ছে মারিসার কণ্ঠেও। আন্তর্জাতিক সংবাদসংস্থা এপিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মারিসা বলেন, সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় নতুন এই দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পেরে আমি রোমাঞ্চিত। আমরা একটি নতুন অধ্যায় উন্মোচন করেছি, যেখানে কেবল নারীদের শারীরিক সৌন্দর্য নয়, মূল্যবোধ দিয়ে বিচার করা হয়।  আগামী মাসের শেষভাগে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া মিস ইউনিভার্স আর্জেন্টিনা জেতার ব্যাপারেও অনেকটা আত্মবিশ্বাসী বলে এ সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন তিনি। গত বছরের সেপ্টেম্বরে মিস ইউনিভার্স অর্গানাইজেশন ঘোষণা করেছিল, এখন থেকে প্রতিযোগীদের জন্য আর বয়সের সীমা থাকবে না। এবার থেকে ১৮ বছরের বেশি বয়সী যে কোনো নারী সুন্দরী প্রতিযোগিতার জন্য যোগ্য বলে বিবেচ্য হবেন। এর আগে শুধুমাত্র ১৮-২৮ বছর বয়সী নারীরাই অংশ নিতে পারতেন মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায়। মিস ইউনিভার্স ২০২৪ এর মূল প্রতিযোগিতা এবার অনুষ্ঠিত হবে মেক্সিকোতে। এর আগে ১৯৭৮, ১৯৮৯, ১৯৯৩ ও ২০০৭ সালে মোট চারবার এই প্রতিযোগিতার আয়োজক হওয়ার সম্মান অর্জন করেছে উত্তর আমেরিকার এ দেশটি।   
মোজাম্বিক উপকূলে নৌকাডুবি, ৯০ জনেরও বেশি নিহত
মোজাম্বিকের উত্তর উপকূলে একটি নৌকা ডুবে ৯০ জনেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। রোববার (৭ এপ্রিল) নামপুলা প্রদেশের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নৌকাটিতে ১৩০ জন ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর মধ্যে পাঁচজনকে উদ্ধার করা গেছে। মাছ ধরার নৌকায় করে তারা নামপুলা প্রদেশের একটি দ্বীপে পৌঁছানোর চেষ্টা করার সময় এ ঘটনা ঘটে। নামপুলার একজন মন্ত্রী জানিয়েছেন যে, অতিরিক্ত যাত্রী তোলার কারণে নৌকাটি ডুবে যায়। এতে ৯১ জনেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন। নিহতদের মধ্যে অনেক শিশু রয়েছে। উদ্ধারকারীরা পাঁচজনকে জীবিত উদ্ধার করেছে। আরও সন্ধান চলছে, কিন্তু সমুদ্রের অবস্থার কারণে উদ্ধার কাজ কঠিন হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, দেশটিতে দেখা দেওয়া কলেরার প্রাদুর্ভাব থেকে বাঁচতে মূল ভূখণ্ড থেকে নিহতরা অন্য কোথাও পালিয়ে যাচ্ছিলেন। একটি তদন্তকারী দল নৌকাডুবির কারণ খুঁজে বের করার জন্য কাজ করছে। ২০২৩ সালের অক্টোবর থেকে মোজাম্বিকে প্রায় ১৫ হাজার মানুষ কলেরায় আক্রান্ত হয়েছে। এরমধ্যে ৩২ জন মারা গেছেন। গত বছরের জানুয়ারি থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে কলেরার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। এরমধ্যে নামপুলা প্রদেশ সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।  সূত্র : এনডিটিভি