• ঢাকা শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
logo
সুখবর দিলেন মেহজাবীন
আরটিভিতে আজ যা দেখবেন
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১। একনজরে জেনে নিন আরটিভির আজকের আয়োজন— দুপুর ২টা ১০মিনিটে বাংলা ছায়াছবি ‘শত্রু শত্রু খেলা’। অভিনয় করেছেন- মান্না, মৌসুমী প্রমুখ। রাত ৮টায় ‘শনিবারের বিশেষ নাটক’। রাত ৯টা ২০মিনিটে শুক্র, শনি ও রবিবারের ধারাবাহিক নাটক- ‘ট্রাফিক সিগন্যাল’। পরিচালক: ইকবাল মাহমুদ বাবুল। অভিনয় করেছেন- আখম হাসান, সাইদ বাবু, হোমায়রা হিমু, নাফিজা, শিরিন আলম, প্রাণরায়, আমিরুল হক চৌধুরী, চিত্রলেখা গুহ প্রমুখ। রাত ১০টায় প্রতি শুক্র, শনি, রবি, সোমবারের ধারাবাহিক নাটক- ‘চিটার এন্ড জেন্টেলম্যান’। রচনা ও পরিচালনায়: সঞ্জিত সরকার। অভিনয় করেছেন- মীর সাব্বির, নাদিয়া আহমেদ, আখম হাসান, উর্মিলা শ্রাবন্তি কর, সাজু খাদেম, নাবিলা বিনতে ইসলাম, আরফান আহমেদ, প্রাণ রায়, আইরিন তানি, ডাঃ এজাজ, তাহমিনা সুলতানা মৌ, ফারুক আহম্মেদ, ওলিউল হক রুমি, রিমি করিম, শ্যামল জাকারিয়া, তারেক স্বপন, আল মনসুর, আব্দুল্লা রানা, মিলন ভট্ট, হোসনে আরা পুতুল, শফিক খান দিলু, বিনয় ভদ্র, মিলি বাসার, আমিন আজাদ, পারভেজ আক্তার, মতিউর রহমান, সিরাজুল ইসলাম, শেখ মাহবুবুর রহমান, অনামিকা, সিলভি, হায়দার কবির মিথুন, রিমো রোজা খন্দকার ও তন্ময় সোহেল প্রমুখ। রাত ১০টা ৪৫মিনিটে ‘রাতের সংবাদ’। রাত ১১টা ২৫মিনিটে ‘এই মুহূর্তে বাংলাদেশ’। রাত ১২টা ১৫মিনিটে টকশো ‘মনের কথা’। রাত ১টায় ‘মধ্যরাতের সংবাদ’।
শিল্পী সমিতির নির্বাচনে বিজয়ের হাসি হাসলেন যারা 
ধর্ম-কর্মে সময় কাটছে চিত্রনায়ক মেহেদির
শিল্পী সমিতির নির্বাচন / বিজয় নিয়ে আশাবাদী নিপুণ, ফল যা হোক মেনে নেবেন কলি
শাবনূরের বিকল্প নেই : ডিপজল
শিল্পী সমিতির নির্বাচন / সহকর্মী ও গণমাধ্যমকে এড়িয়ে গেলেন ইলিয়াস কাঞ্চন
বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বিদায়ী কমিটির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন। শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরের দিকে এসেছিলেন ২০২৪-২৬ মেয়াদের নির্বাচনে ভোট দিতে। তবে কারও সঙ্গে কথা না বলে তিনি চলে গেছেন অনেকটা চুপিসারেই। জানা গেছে, ভোট দেওয়ার পর শিল্পীরা গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন, জানিয়েছেন নতুন কমিটির কাছে তাদের প্রত্যাশার কথা। কিন্তু ইলিয়াস কাঞ্চন এফডিসিতে প্রবেশ করে গাড়ি থেকে নেমে সোজা প্রবেশ করেন ভোটকেন্দ্রে। এরপর ভোট প্রদান করে ৫ মিনিটের মধ্যে তিনি বাইরে আসেন। এ সময় দীর্ঘদিনের সহকর্মীরা তার সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তিনি সাড়া না দিয়ে এফডিসি থেকে বেরিয়ে যান। এমনকি কোনো গণমাধ্যমেও কথা বলেননি। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টায় অভিনেতা ডা. এজাজের ভোট প্রদানের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। যা চলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত।  প্রসঙ্গত, এবারের নির্বাচনে ৬ জন স্বতন্ত্রসহ ২টি প্যানেল থেকে ৪৮ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। প্যানেল দুটি হলো মিশা-ডিপজল ও মাহমুদ কলি-নিপুণ।
শিল্পী সমিতির নির্বাচন / ভোটগ্রহণ শেষ, কিছুক্ষণের মধ্যেই গণনা শুরু
বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক (২০২৪-২৬) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে।কিছুক্ষণের মধ্যেই শুরু হবে গণনার কাজ। এর আগে শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টায় শুরু হয়ে এক ঘণ্টা বিরতি দিয়ে ভোটগ্রহণ চলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত।  বিকেল সাড়ে ৫টায় ভোট শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ভোটাররা লাইনে থাকায় ভোটগ্রহণে আরও প্রায় এক ঘণ্টা সময় লাগে।  ২০২৪-২৬ মেয়াদের এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে দুটি প্যানেল। একটিতে আছেন মিশা সওদাগর ও মনোয়ার হোসেন ডিপজল। অন্যটিতে সোনালি দিনের নায়ক মাহমুদ কলি ও চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার। মিশা-ডিপজল পরিষদে সহসভাপতির পদে লড়বেন মাসুম পারভেজ রুবেল ও ডিএ তায়েব, সহ-সাধারণ সম্পাদক আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক জয় চৌধুরী, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক আলেকজান্ডার বো, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক জ্যাকি আলমগীর, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক ডন এবং কোষাধ্যক্ষ পদপ্রার্থী কমল। এ ছাড়াও কার্যকরী পরিষদের সদস্য পদে নির্বাচন করছেন অভিনেত্রী সুচরিতা, রোজিনা, আলীরাজ, সুব্রত, দিলারা ইয়াসমিন, শাহনূর, নানা শাহ, রত্না কবির, চুন্নু, সাঞ্জু জন, ফিরোজ মিয়া। অন্যদিকে, মাহমুদ কলি-নিপুণ প্যানেলে সহসভাপতি পদে লড়বেন ড্যানি সিডাক ও অমিত হাসান, সহ-সাধারণ সম্পাদক বাপ্পি সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক অঞ্জনা রহমান, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক মারুফ আকিব, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক কাবিলা, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক মামনুন হাসান ইমন ও কোষাধ্যক্ষ পদে অভিনেতা আজাদ খান। এ ছাড়া কার্যকরী পরিষদের সদস্য পদে সুজাতা আজিম, নাদের চৌধুরী, পীরজাদা হারুন, পলি, জেসমিন আক্তার, তানভীর তনু, মো. সাইফুল, সাদিয়া মির্জা, সনি রহমান, হেলেনা জাহাঙ্গীর ও সাইফ খান নির্বাচন করছেন। দুই প্যানেলের বাইরে এ নির্বাচনে আরও ৬ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। অর্থাৎ মোট ৪৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।  
এফডিসিতে শাবনূর, ভোট চাইতে হুমড়ি খেয়ে পড়লেন প্রার্থীরা
সকাল থেকে বিএফডিসিতে চলছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন। বিকেলের দিকে ভোট দিতে আসেন এক সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা শাবনূর।  এ সময় তাকে পেয়ে ঘিরে ধরেন দীর্ঘদিনের সহকর্মীরা। আর প্রার্থীরা হুমড়ি খেয়ে পড়েন ভোট চাইতে। পরে পুলিশের সহায়তায় ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করেন তিনি। প্রসঙ্গত, ২০২৪-২৬ মেয়াদের এই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে দুটি প্যানেল। একটিতে আছেন মিশা সওদাগর ও মনোয়ার হোসেন ডিপজল। অন্যটিতে সোনালি দিনের নায়ক মাহমুদ কলি ও চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার। ২১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটিতে স্থান পেতে এবারের নির্বাচনে ৬ জন স্বতন্ত্রসহ ২টি প্যানেল থেকে মোট ৪৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মোট ভোটার সংখ্যা ৫৭০ জন। তারাই বেছে নেবেন আগামী দুই বছরের চলচ্চিত্র শিল্পীদের নেতা-অভিভাবকদের।
শিল্পী সমিতির নির্বাচন / ভোট দিয়ে যা বললেন অনন্ত জলিল
সকাল থেকে বিএফডিসিতে চলছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন। দুপুরের পর ভোট দিতে আসেন ব্যবসায়ী, প্রযোজক ও চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল। ভোটদান শেষে তিনি বলেন, নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবে। এটা মেনে নিয়েই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। যারা জয়ী হবেন, তাদের সবার সঙ্গে বসে আলোচনা করব। যারা পরাজিত হবেন তাদের সঙ্গেও বসব।  সামনে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন করবেন কি না জানতে চাইলে অনন্ত জলিল বলেন, আমি এত বড় মানুষ না, নেতাও না। তবে আমি চাই চলচ্চিত্রের উন্নয়ন। সবাইকে সঙ্গে নিয়েই কাজ করতে চাই। এ সময় অনন্ত জলিলের সঙ্গে ছিলেন অভিনেত্রী বর্ষা ও নির্মাতা মো.ইকবাল। ২০২৪-২৬ মেয়াদের এই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে দুটি প্যানেল। একটিতে আছেন মিশা সওদাগর ও মনোয়ার হোসেন ডিপজল। অন্যটিতে সোনালি দিনের নায়ক মাহমুদ কলি ও চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার। ২১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটিতে স্থান পেতে এবারের নির্বাচনে ৬ জন স্বতন্ত্রসহ ২টি প্যানেল থেকে মোট ৪৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
শিল্পী সমিতির নির্বাচন / টাকা দেওয়ার অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন ডিপজল
সকাল থেকে বিএফডিসিতে চলছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন। শেষ হওয়ার কথা বিকেল ৫টা পর্যন্ত উল্লেখ থাকলেও আধাঘণ্টা বাড়ানো হয়েছে। এদিকে বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) ভোটারদের টাকা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী মনোয়ার হোসেন ডিপজলের বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেন মাহমুদ কলি-নিপুণ আক্তার পরিষদের সদস্য পদপ্রার্থী সাদিয়া মির্জা।  তিনি নির্বাচন পরিচালনাকারী প্রধান নির্বাচন কমিশনার খোরশেদ আলম খসরুর কাছে প্রমাণ হিসেবে পেনড্রাইভে করে একটি ভিডিও সরবরাহ করেন। পরে নোটিশ দিয়ে বিষয়টির ব্যাখ্যা চায় নির্বাচন কমিশন। এবার সেই অভিযোগের বিষয়ে মুখ খুললেন ডিপজল। তিনি বলেন, ‘টাকা আমরা দিছি না উনারা দিছে, ফুটেজও অনেকের কাছে আছে। এসব অভিযোগ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, বানানো।’ তিনি আরও বলেন, জয়ের জন্যই সবাই প্রত্যাশা করেন। আমিও শতভাগ আশাবাদী। প্রসঙ্গত, শিল্পী সমিতির নির্বাচনী নীতিমালার দুই ও তিন নম্বরে বলা আছে, কোনো ভোটারকে ভোট দেওয়া বা প্রচারণা করার জন্য অবৈধভাবে টাকা লেনদেন করা যাবে না বা টাকা-পয়সা দিয়ে ভোটের প্রতিশ্রুতি নেওয়া যাবে না।
শিল্পী সমিতির নির্বাচন / ডিএ তায়েবের জন্য যেভাবে ভোট চাইছেন মেয়ে টুনটুনি
বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক (২০২৪-২৬) নির্বাচন চলছে বিএফডিসি প্রাঙ্গণে। সকাল ৯টায় শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। এ নির্বাচনে মিশা-ডিপজল পরিষদে সহসভাপতি পদে লড়ছেন ডিএ তায়েব। তার জন্য ভোট চাইছেন মেয়ে টুনটুনি। সরেজমিনে দেখা গেছে, শিল্পী সমিতির সামনের রাস্তায় শিল্পীদের কাছে ফুল দিয়ে বাবার জন্য ভোট চাইছেন ডিএ তায়েবের মেয়ে টুনটুুনি। এ সময় বাবার জয়ের ব্যাপারে কতটা আশাবাদী জানতে চাইলে তিনি বলেন, শতভাগ আশাবাদী। আশাকরি, আমার বাবা বিপুল ভোটে জয়ী হবে। ২০২৪-২৬ মেয়াদের এই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে দুটি প্যানেল। একটিতে আছেন মিশা সওদাগর ও মনোয়ার হোসেন ডিপজল। অন্যটিতে সোনালি দিনের নায়ক মাহমুদ কলি ও চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার। ২১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটিতে স্থান পেতে এবারের নির্বাচনে ৬ জন স্বতন্ত্রসহ ২টি প্যানেল থেকে মোট ৪৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
ভোট দিতে একসঙ্গে ঢালিউডের ‘তিন কন্যা’, জানালেন প্রত্যাশা
ঢালিউডের ‘তিন কন্যা’ বলা হয় চলচ্চিত্রের বরেণ্য অভিনয়শিল্পী সুচন্দা, ববিতা ও চম্পা। ষাট-সত্তর-আশি ও নব্বই—এই চার দশক চলচ্চিত্রপ্রেমীদের মাতিয়ে রেখেছিলেন তারা তিন বোন। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে উপহার দিয়েছেন অসংখ্য জনপ্রিয় ও কালজয়ী সিনেমা। বিএফডিসিতে শিল্প সমিতির নির্বাচনে একসঙ্গে ভোট দিতে এসেছেন এই তিন বোন।  দুপুরের বিরতির পর ২টা ৪৫ মিনিট বিএফডিসিতে আসেন তারা। শিল্পীরা তাদের দেখে আনন্দিত হয়ে সোগ্লান দিতে থাকে।   ববিতা বলেন, এফডিসিতে আসা বন্ধই করে দিয়েছিলাম। অনেক দিন পর আসলাম। আজকে সবার সঙ্গে দেখা হচ্ছে সে কারণেই আমার আসা। যারা সত্যিকারের অর্থে কাজ করবে তাদেরকেই ভোট দেবো।  সুচন্দা বলেন, আজকে অনেক আশা নিয়ে ভোট দিতে আসছি। প্রত্যেকবারই আসি। এখন নতুন-পুরাতন সবাই মিলে নির্বাচনে নেমেছে এজন্যই আমার আসা। চলচ্চিত্রের মধ্যে আমাদের সমিতি গুরুত্বপূর্ণ সমিতি। শিল্পীদের ছাড়া আমাদের চলচ্চিত্র হয় না তাই শিল্পীদের বিকল্প নেই। বক্তব্যে নয়, যারা সততার সঙ্গে দক্ষতার সঙ্গে কাজ করবে তাদেরকেই আমরা ভোট দেবো। যাতে আমাদের সংগঠন আরও সুন্দর হয়।  চম্পা বলেন, নতুন পুরাতন যারাই নির্বাচন করছে প্রত্যেকে আমার প্রিয়। শিল্পী শব্দটা ভীষণভাবে আমাদের পরিবারের মনে হয়। তাই আমি মনে করি আমরা সবাই মিলে এক। সবাই মিলে যদি এগিয়ে যেতে পারতাম তাহলে আমাদের শিল্পটাকে অনেক এগিয়ে নিতে পারতাম। দ্বি-বার্ষিক মেয়াদের এবারের নির্বাচনের মেয়াদ ২০২৪ থেকে ২০২৬। ২১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটির এ নির্বাচনে ৬ জন স্বতন্ত্রসহ ২টি প্যানেল থেকে ৪৮ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। একটি মিশা-ডিপজল পরিষদ, অন্যটি কলি-নিপুণ পরিষদ।  এর মধ্যে সভাপতি পদে লড়ছেন একসময়ের জনপ্রিয় নায়ক মাহমুদ কলি ও দাপুটে খল-অভিনেতা মিশা সওদাগর। আর সাধারণ সম্পাদক পদে গেলো আসরের মতো এবারও প্রার্থী হয়েছেন চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার। তার বিপরীতে দাঁড়িয়েছেন অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল।