• ঢাকা বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১
logo
রণবীর-দীপিকার ঘরে আসছে নতুন অতিথি
অস্ত্রোপচার করে চেহারা পাল্টে ট্রলের শিকার রাজকুমার রাও
বলিউডের এ সময়ের স্বনামধন্য ও দর্শকপ্রিয় অভিনেতা রাজকুমার রাও। ব্যতিক্রমধর্মী চরিত্রে অভিনয় করে এই বলিউড তারকা সিনেপ্রেমীদের আকুণ্ঠ প্রশংসা কুঁড়িয়েছেন। বরাবরই চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে নিজের অভিনয় প্রতিভা মেলে ধরতে ভালোবাসেন এই অভিনেতা। এবার তেমনি এক চরিত্রে কাজ করতে গিয়ে নিজের চেহারায় আমূল পরিবর্তন এনেছেন বলিউড অভিনেতা রাজকুমার। আর সেই চেহারার কারণে নেটিজেনদের ট্রলের শিকার হলেন জনপ্রিয় এ অভিনেতা। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, নতুন সিনেমা 'শ্রীকান্ত'র কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করার জন্য নতুন এ লুক তৈরি করেছেন অভিনেতা। জানা গেছে, নতুন ওই সিনেমায় শিল্পপতি শ্রীকান্ত বোল্লার চরিত্রে অভিনয় করবেন রাজকুমার। রুপালি পর্দার সে চরিত্রকে সুন্দর করে ফুটিয়ে তুলতেই চেহারায় এমন বদল এনেছেন অভিনেতা। আর এ কারসাজি হঠাৎই প্রকাশ্যে আসে দিলজিৎ দোসাঞ্জের কনসার্টে।   সম্প্রতি দিলজিৎ দোসাঞ্জের কনসার্টে রাজকুমার রাও উপস্থিত হন। আর তারপরই এ অভিনেতার নতুন লুক দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে নেটপাড়ায়। তার নতুন লুক দেখে এরইমধ্যে নেটিজেনদের একাংশ দাবি করেছেন, সৌন্দর্য বাড়াতে কৃত্রিম উপায় অর্থাৎ অস্ত্রোপচারের সাহায্য নিয়েছেন রাজকুমার। তারা বলছেন, পুরানো ছবি আর নতুন এ ছবি একসঙ্গে রাখলেই স্পষ্ট হয়ে উঠছে পার্থক্য। সহজেই চোখে পড়ছে রাজকুমারের নাক, ঠোঁট, চোয়াল ও থুতনির অমিল।   এ প্রসঙ্গে রাজকুমার রাও জানান,  অস্ত্রোপচার করেননি তিনি। বরং তা ছিল মেকআপের কারসাজি। তবে রাজকুমারের এমন ব্যাখ্যা মানতে নারাজ তার ভক্ত ও নেটিজেনরা। প্রসঙ্গত, তুষার হিরানান্দানি পরিচালিত 'শ্রীকান্ত' ছবিটিতে রাজকুমার রাও ছাড়াও থাকবেন জ্যোতিকা, আলায়া এফ, শরদ কেলকার প্রমুখ।রাজকুমার রাওয়ের এই সিনেমাটি আগামী ১০ মে মুক্তি পাবে।
একসাথে তিনজনের সঙ্গে প্রেম, মুখ খুললেন বিদ্যা
আমির খানের ভিডিও ভাইরাল!
সালমান খানের বাড়ির সামনে গুলি, যা জানালেন তার ভাই
বিবাহবার্ষিকীতে বরকে শুভেচ্ছা জানিয়ে যা লিখলেন আলিয়া
সালমান খানের বাড়িতে গুলি, যা জানা গেল 
বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের বাড়ির বাইরে চার রাউন্ড গুলি ছুড়ে পালিয়ে যান অজ্ঞাতনামা দুই দুর্বৃত্ত। রোববার (১৪ এপ্রিল) ভোর ৫টার দিকে মুম্বাইয়ের বান্দ্রা এলাকায় গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এরপরই নড়েচড়ে বসে মুম্বাই পুলিশ। কারা এর পেছনে জড়িত, জানতে শুরু করে তদন্ত। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী একনাথ শিন্ডেও নির্দেশনা দেন প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের। এর মধ্যেই হুমকির চিঠি দিয়ে ঘটনার দায় স্বীকার করে বিষ্ণোই গ্যাং। শুধু তাই নয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রীতিমত হুমকিও দিয়েছে বলিউড ভাইজানকে। জেলবন্দি গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই-এর ভাই আনমোল বিষ্ণোই, তার ভাইয়ের হয়ে এই হুমকি দেন। তিনি লেখেন, ‘আজ যা হয়েছে, তা শুধুই একটা ঝলক ছিল সালমান খান। যাতে তুমি বুঝতে পারো, আমরা কত দূর যেতে পারি। এটাই ছিল তোমাকে দেওয়া শেষ সুযোগ। এরপর গুলিটা তোমার বাড়ির বাইরে চলবে না।’ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ওই পোস্টে  আনমোল বিষ্ণোই আরও লেখেন, ‘দাউদ ও ছোটা শাকিল নামের যে দুজনকে তুমি ভগবান মানো, সেই নামের দুটি কুকুর পুষেছি বাড়িতে। বাকি বেশি কথা বলার লোক আমি নই। জয় শ্রী রাম।’ প্রসঙ্গত, গত বছর থেকেই ক্রমাগত প্রাণনাশের হুমকি পাচ্ছেন সালমান খান। আর তা দিয়ে আসছিল কুখ্যাত গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই। তার সূত্র ধরেই এই গুলির ঘটনা।
‘ইন্ডাস্ট্রি কারো বাবার নয়’
বলিউড এবং নেপোটিজম বিতর্ক একে অন্যের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এই বিতর্ক যেন কখনো থামবেই না! একাধিক তারকা নেপোটিজম প্রসঙ্গে প্রায়ই নিজের মুখ খুলেছেন, জানিয়েছেন অভিযোগ। অভিনেত্রী বিদ্যা বালানও রয়েছেন সেই দলে। এর আগেও একাধিকবার নেপোটিজম প্রসঙ্গে কথা বলেছিলেন অভিনেত্রী। নিজের আসন্ন সিনেমার প্রচারে এক সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথোপকথনে যোগ দিয়েছিলেন বিদ্যা বালান। সেখানেই স্বজনপোষণ নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে অভিনেত্রী বলেন, ‘নেপোটিজম থাক বা না থাক, আমি তো আছি এখানে। ইন্ডাস্ট্রি কারো বাবার নয়, তেমন হলে তো সব বাবার ছেলে আর সব বাবার মেয়েই সফল হয়ে যেত। সাক্ষাৎকারে বলিউডের নায়কদের নিয়ে চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করেন বিদ্যা। অভিনেত্রী বলেন, আমার তো মনে হয় না তারা (নায়করা) বিদ্যা বালানের সিনেমা বা কোনও নারীপ্রধান সিনেমায় অভিনয় করতে চাইবেন। সত্যি কথা বলতে কি এটা তাঁদের ক্ষতি কারণ ওদের থেকে আমাদের সিনেমা বেশি ভালো হয়। ওরা তো সব ফর্মুলা নির্ভর সিনেমা করছে।নারীদের সিনেমা তার থেকে অনেক বেশি এক্সাইটিং হয়। অবশ্য, মানুষজন প্রশংসা করেন। কিন্তু পুরুষ অভিনেতারা নারীকেন্দ্রিক সিনেমা নিয়ে অস্বস্তিতে থাকেন। আমার মনে হয় না তারা চাইবেন যে কেউ তাদের জায়গাটা নিয়ে নিক। কিন্তু এতে আমার খারাপ লাগে না। যদি ওরা এমন মনে করে আমি কীইবা করতে পারি? সামনে প্রতীক গান্ধীর সঙ্গে ‘দো অউর দো পেয়ার’ সিনেমায় দেখা যাবে বিদ্যাকে। সহ-অভিনেতার সঙ্গেই এই কথোপকথনে এসেছিলেন বিদ্যা। এদিন প্রতীকও নিজের স্ট্রাগল নিয়ে কথা বলেন। জানান, টেলিভিশনের অডিশনে তাকে বারবার রিজেক্ট করা হয়েছিল। কারণ হিসেবে জানানো হয়েছিল, টিভি তারকাদের একটা নির্দিষ্ট লুক থাকা প্রয়োজন যা প্রতীকের নেই। তবে সিনেমায় এখন প্রতীক বেশ চর্চিত নাম। আগামী ১৯ এপ্রিল মুক্তি পাবে বিদ্যা-প্রতীকের ‘দো অউর দো পেয়ার’।   
টাকার বিনিময়ে অক্ষয়ের নায়িকা হওয়ার সুযোগ!
প্রেক্ষাগৃহে খুব একটা ভালো চলছে না ‘বড় মিঞা ছোট মিঞা’। সিনেবিশেষজ্ঞদের কথায়, এবারেও হয়তো ব্লকবাস্টার অধরা থেকে যাবে অক্ষয় কুমারের। বক্স অফিসে ভাঁটার মাঝেই এবার বিপাকে খিলাড়ি! তার নাম ভাঙিয়ে কাস্টিংয়ের ফাঁদ! অক্ষয় কুমারের প্রযোজনা সংস্থার নামে প্রতারণা চালাচ্ছিল জনৈক। টাকা দিলেই নাকি খিলাড়ির নায়িকা হওয়া যাবে কিংবা তার সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করা যাবে, এমনই প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভুয়া কাস্টিং এজেন্সি খুলে বসেছিল ওই ব্যক্তি। এবার হাতেনাতে ধরা পড়ল মুম্বাই পুলিশের হাতে। সংবাদ সংস্থার পক্ষ থেকে জানা গেছে, সন্দেহভাজন ওই ব্যক্তির নাম প্রিন্স কুমার সিনহা। ২৯ বছর বয়সি ওই যুবক পূজা আনন্দানী নামে এক সোশ্যাল মিডিয়া ইন্সফ্লুয়েন্সারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন এবং নিজেকে অক্ষয়ের প্রযোজনা সংস্থা ‘কেপ অব গুড ফিল্মস’-এর কর্মী হিসাবে পরিচয় দিয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, ওই নারীকে এও বলেছিলেন যে নির্ভয়া মামলার উপর একটি সিনেমা তৈরি করা হচ্ছে। যেখানে পূজাকে কাজ দেওয়া হবে। সেই সিনেমার প্রলোভন দেখিয়ে সে মেয়েটিকে জুহুতে ডেকে তার সঙ্গে দেখা করে। দু’জনেরই প্রথম দেখা হয়েছিল একটি কফি শপে। শুধু তাই নয়, তিনি মেয়েটিকে বিগ বি অর্থাৎ অমিতাভ বচ্চনের ফটোগ্রাফারের সঙ্গেও দেখা করিয়েছিলেন বলে অভিযোগ। ওই ব্যক্তিও যদিও ভুয়া। যদিও সেই প্রতারণায় ফাঁদ পা দেননি পূজা আনন্দানী। তিনি সরাসরি মুম্বাইয়ের জুহু থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। তারপরই অক্ষয়ের নাম করে ভুয়া কাস্টিং এজেন্সি চালানো ওই যুবককে গ্রেপ্তার করে মুম্বাই পুলিশ। যদিও এই প্রতারণা জাল চলাকালীন এইসব বিষয়ে ঘুণাক্ষরেও জানতে পারেননি খিলাড়ি কুমার নিজে।
সালমান খানের বাড়ির সামনে গুলি
বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের বাড়ির বাইরে অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্ত কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়ে পালিয়ে গেছে। রোববার (১৪ এপ্রিল) ভোর ৫টার দিকে মুম্বাইয়ের বান্দ্রা এলাকায় গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের সামনে এ ঘটনা ঘটে।  হিন্দুস্থান টাইমসের খবরে জানা যায়, গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের বাইরে একটি মোটরসাইকেলে এসে দুর্বৃত্তরা এই গুলি ছোড়ে। এ সময় ওই বাড়িতেই ছিলেন সালমান খান।  ঘটনার পর পরই মুম্বাই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিরাপত্তা জোরদার করেছে। একইসঙ্গে গুলি চালানো ব্যক্তিকে খুঁজে বের করার পাশাপাশি খতিয়ে দেখছে এলাকার  সিসিটিভি ফুটেজও। অনেকের ধারণা, আজকের এই গুলি চালানোর পেছনে কুখ্যাত গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোইয়ের গ্যাংয়ের হাত রয়েছে। তবে তা সত্য কিনা, তা জানা যাবে পুলিশের তদন্ত শেষে।  
‘ময়দান’-এ মুগ্ধ হয়ে যা বললেন সৌরভ গাঙ্গুলী
ভারতে মুক্তি পেয়েছে অজয় দেবগন অভিনীত সিনেমা ‘ময়দান’। বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) মুক্তি পাওয়া এ সিনেমায় কিংবদন্তি  রহিম সাহেবের ভূমিকায় অজয়ের অভিনয় দেখে মুগ্ধ হয়েছেন বাইশ গজের মহারাজ সৌরভ গাঙ্গুলী।  বনি কাপুর প্রযোজিত সিনেমাটি নিয়ে নিজের এক্স হ্যান্ডেলে একটি ছবি পোস্ট করেছেন সৌরভ। ক্যাপশনে লিখেছেন, কেউ ‘ময়দান’-এর দুর্দান্ত সিনেম্যাটিক অভিজ্ঞতা মিস করবেন না। ভারতের কিংবদন্তি ফুটবল কোচ সৈয়দ আবদুল রহিম এবং ভারতীয় ফুটবলের স্বর্ণযুগকে যে দক্ষতার সঙ্গে তুলে ধরা হয়েছে, তা দেখে আমি মুগ্ধ। আইকনিক ভারতীয় ফুটবল তারকাদের বড়পর্দায় জীবন্ত হয়ে ওঠার সাক্ষী রইলাম। এই স্পোর্টস ড্রামা মাস্ট ওয়াচ!  Don't miss out on the cinematic experience of #Maidaan, a captivating portrayal of India's legendary football coach, Syed Abdul Rahim, and the golden era of Indian football. Witness the iconic Indian football stars brought back to life on the big screen in this must-watch Indian… pic.twitter.com/Y0nSaGDlVf— Sourav Ganguly (@SGanguly99) April 13, 2024 অমিত শর্মা পরিচালিত এই সিনেমায় ভারতীয় ফুটবলের স্বর্ণযুগ অর্থাৎ ১৯৫২ থেকে ১৯৬২ সময়কালে আবদুল রহিম কীভাবে ভারতীয় ফুটবলকে বিশ্ব মানচিত্রে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছিল, তা প্রকাশ পেয়েছে।
শুটিং শেষে ফেরার পথে খল অভিনেতার মৃত্যু
কয়েক দিন আগেই সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে মালয়ালাম ইন্ডাস্ট্রির পরিচিত মুখ অভিনেতা সুজিত রাজেন্দ্রনের মৃত্যু হয়। ভারতের বিনোদন ইন্ডাস্ট্রিতে ফের দুঃসংবাদ। এবার সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেলেন অভিনেতা সুরজ মেহের। বুধবার (১০ এপ্রিল) মৃত্যু হয়েছে তার। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৪০ বছর। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, বুধবার বিকেলে ভারতের ছত্তিশগড়ের রায়পুরে পিপেদুলার কাছে সরাসিওয়া এলাকায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। শুটিং শেষ করে ফেরার সময় একটি পিকআপের সঙ্গে সংঘর্ঘ হয় অভিনেতার গাড়ির। এতে দুমরে-মুচড়ে যায় তার গাড়িটি। দুর্ঘটনায় অভিনেতা সুরজ গুরুতর আহত হলে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে একটি হাসপাতালে নেয়। পরে হাসপাতালের চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন অভিনেতাকে। জানান, ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে তার। এছাড়া বুধবার বিকেল পাঁচটার দিকে দুর্ঘটনার খবর জানতে পারেন অভিনেতার পরিবারের সদস্যরা। পরে তারা দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যান। এদিকে ওই দিনই উড়িষ্যার বাথলিতে বাগদান হওয়ার কথা ছিল অভিনেতা সুরজের। বিলাসপুরের সারিয়া গ্রামের বাসিন্দা তিনি। এ কারণে দিনটি বিশেষ ছিল অভিনেতার কাছে। আর বিশেষ দিনটিতেই অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলো তার। এদিন ‘আখেরি ফয়সালা’র শুটিং করছিলেন সুরজ। তিনি ছত্তিশগড় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে খলঅভিনেতার চরিত্রে বেশি অভিনয় করতেন। এ কারণে খল-তারকা হিসেবেই পরিচিত ছিল তার।  
‘নারীবাদ’ সমাজ ও পারিবারিক বন্ধন নষ্ট করছে : নোরা ফাতেহি
মাত্র পাঁচ হাজার রুপি নিয়ে ভারত এসেছিলেন নোরা। বলিউডে জায়গা পেতে কঠিন সংগ্রাম করতে হয়েছে তাকে। এক ফ্ল্যাটে নয়জনের সঙ্গে বাস করতে হয়েছে। অর্থের অভাবে করতে হয়েছে ক্ষুধার কষ্ট। বলছি বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নোরা ফাতেহির কথা। খুব অল্প সময়েই নিজের শক্ত অবস্থান গড়ে তুলেছেন এই তিনি। তবে অভিনয়ের চেয়ে নাচেই বেশ পারদর্শী নোরা। শুধু তাই নয়, বলিউডে তিনি ‘বেলি ডান্স কুইন’ হিসেবে পরিচিত।  এদিকে প্রতিষ্ঠিত নারীদের অনেকেই নারীবাদের আদর্শে বিশ্বাসী। সবসময় ভাবেন পুরুষরা নারীদের পদে পদে প্রতিবন্ধকতকা তৈরি করে। তবে সাবলম্বী নারী হয়েও এই ধারণা পোষণ করেন না নোরা। তিনি মনে করেন নারীবাদ সমাজকে ধ্বংস করে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, এই ধারণায় আমার দরকার নেই। নারীবাদ শব্দটা আসলে একটা সি…। এটা একটা ঢেউয়ের মতো প্রবাহিত হচ্ছে। এতে আমি বিশ্বাস করি না। আসলে আমি মনে করি, নারীবাদ আসলে আমাদের সমাজকে ধ্বংস করে দিচ্ছে।  এরপর বলেন, পাশ্চাত্য-প্রাচ্যের সামাজিক ধ্যান-ধারণার মধ্যে অনেক পার্থক্য রয়েছে। এখানে নারীবাদের নামে বলা হচ্ছে, পুরুষরা আসলে মেয়েদের স্বাধীনতায় বাধা, পুরুষরা খারাপ, বিয়ে কোরো না, সন্তানের জন্ম দিও না, এগুলো সব পুরনো ধ্যান-ধারণা, এইসব…। এগুলো আখেরে সমাজের ক্ষতিই করছে, পারিবারিক বন্ধন নষ্ট করছে। এই অভিনেত্রী  আরও বলেন, পুরুষরা খাবার সরবরাহকারী, উপার্জনকারী এবং মহিলা লালনপালনকারী, এতে খারাপ কী আছে! আমার তো খারাপ মনে হয় না! নারীবাদকে যেভাবে তুলে ধরা হচ্ছে, সেটা ঠিক নয়। আমি মনে করি, নারীরা লালন-পালনকারী, হ্যাঁ তবে তাদেরও কাজ করা উচিত এবং তাদেরও নিজস্ব জীবন থাকা উচিত এবং স্বাধীন হওয়া উচিত। তবে সেটাকে নারীবাদের নামে যেভাবে তুলে ধরা হচ্ছে, সেটা ঠিক নয়। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে নোরা অভিনীত ‘মাদগাঁও এক্সপ্রেস’। এটি পরিচালনা করেছেন কুণাল খেমু। ছবিটিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন দিব্যেন্দু, প্রতীক গান্ধী এবং অবিনাশ তিওয়ারি।