• ঢাকা সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১
logo
ক্যানসার আক্রান্তের পর প্রথমবার জনসমক্ষে ব্রিটিশ রাজবধূ কেট 
ভেঙে দেওয়া হলো যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট, নির্বাচন ৪ জুলাই
যুক্তরাজ্যে আগামী ৪ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে সাধারণ নির্বাচন। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৩০ মে) ভেঙে দেওয়া হয়েছে দেশটির পার্লামেন্ট। ধারণা করা হচ্ছে, টানা ১৪ বছরের কনজারভেটিভদের শাসনের পর এবারের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে দেশটিতে লেবার পার্টি শাসনক্ষমতায় ফিরতে পারে। নির্বাচনী তফসিল অনুযায়ী, যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের ৬৫০টি আসন মধ্যরাত থেকে শূন্য হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে পাঁচ সপ্তাহের নির্বাচনী প্রচারণা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে। স্থানীয় সময় ২২ মে বিকেলে লন্ডনের ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের সামনে হাজির হয়ে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। তিনি জানান, পরবর্তী নির্বাচন হবে ৪ জুলাই। যুক্তরাজ্যের বর্তমান সরকারের মেয়াদ শেষ হওয়ার অন্তত ছয় মাস আগে আগাম জাতীয় নির্বাচনের ঘোষণা দেন ঋষি সুনাক। এ নিয়ে তুমুল আলোচনা শুরু হয়। প্রশ্ন উঠে, মেয়াদ শেষের আগেই কেন নির্বাচন চাইছেন সুনাক? বিশ্লেষকেরা বলছেন, জনপ্রিয়তা ক্রমেই কমতে থাকা, অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্চসহ নানা চাপে ছিলেন সুনাক। তাই, আগাম নির্বাচন করে পার পাইতে চাইছেন তিনি।  এবারের নির্বাচনে চরম চ্যালেঞ্জ পড়তে হতে পারে ক্ষমতাসীনদের।  সূত্র: এএফপি
লন্ডনে পুলিশের সঙ্গে ফিলিস্তিনপন্থীদের সংঘর্ষ, গ্রেপ্তার ৪০
যুক্তরাজ্যে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা সুনাকের
কোভিড টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কথা স্বীকার করলো অ্যাস্ট্রাজেনেকা
উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে ইসরায়েলকে যে পরামর্শ দিল যুক্তরাজ্য
অভিবাসন প্রত্যাশীদের যে দুঃসংবাদ দিল যুক্তরাজ্য
এবার পারিবারিক ভিসার শর্ত কঠোর করেছে যুক্তরাজ্য৷ন্যূনতম আয়ের সীমা বাড়ানো হয়েছে৷অভিবাসন নিয়ন্ত্রণে সরকারের নেওয়া পরিকল্পনার অংশ হিসাবে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি৷ শুক্রবার (১২ এপ্রিল) অভিবাসীদের নিয়ে কাজ করা অনলাইন সংবাদমাধ্যম ইনফোমাইগ্রেন্টসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। সংবাদমাধ্যমটির ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, যদি কোনো অভিবাসী যদি তার পরিবারের কোনো সদস্যকে যুক্তরাজ্যে নিয়ে আসতে চান তাহলে তার ন্যূনতম আয় হতে হবে ২৯ হাজার পাউন্ড৷ চলতি বছর ৫ এপ্রিল থেকে এ নিয়ম কর্যকর হবে। এই আয় সীমা আগে ছিল ১৮ হাজার ৬০০ পাউন্ড৷ আগামী বছর এটি বাড়িয়ে ৩৮ হাজার ৭০০ পাউন্ডে উন্নীত করা হতে পারে বলে জানা যায় প্রতিবেদন থেকে৷   প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে নিয়মিত এবং অনিয়মিত মিলিয়ে রেকর্ডসংখ্যক অভিবাসী এসেছেন যুক্তরাজ্যে৷ এমন সিদ্ধান্ত দেশটির প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের অভিবাসন নিয়ন্ত্রণ পরিকল্পনার অংশ৷ দেশটির করদাতার বোঝা কমাতেই অভিবাসনকে নিয়ন্ত্রণ করার কথা জানিয়েছেন তিনি৷   এদিকে চলতি বছর দেশটিতে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে৷ ভোটের মাঠে অভিবাসন অন্যতম প্রধান ইস্যুতে পরিণত হয়েছে৷ অভিবাসন নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার কারণে জনমত জরিপে পিছিয়ে আছে ক্ষমতাসীন রক্ষণশীলেরা৷   ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ বলছে, অভিবাসীদের পরিবার যেন যুক্তরাজ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ থাকে। কারও ওপর নির্ভর করতে না হয়, তা নিশ্চিত করতেই আয় সীমা বাড়ানো হয়েছে৷ কর্মক্ষেত্র থেকে অর্জিত আয় আর সঞ্চয় মিলিয়েও এই শর্ত পূরণের সুযোগ থাকবে অভিবাসীদের৷
ক্যানসারে আক্রান্ত কেট মিডলটন
ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছেন যুক্তরাজ্যের প্রিন্সেস অব ওয়েলস ও ব্রিটিশ রাজবধূ কেট মিডলটন । শুক্রবার (২২ মার্চ) দেওয়া এক ভিডিও বার্তায় কেট নিজেই তার ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানান। তবে, এখন সুস্থ আছেন এবং চিকিৎসা চলছে বলেও বার্তায় জানিয়েছেন তিনি।  শনিবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স। ৪২ বছর বয়সী এই ব্রিটিশ রাজবধূ  জানিয়েছেন, গত জানুয়ারি মাসে তার পেটে একটি সার্জারি হয়েছিলো। তবে তা ক্যানসার সংক্রান্ত ছিলো না। এরপর তার কিছু মেডিকেল টেস্ট হয়। সেসব টেস্টের রিপোর্টে জানা যায় যে তিনি ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছেন।  অবশ্য এর কিছুদিন আগেই ব্রিটেনের রাজা তৃতীয় চার্লসেরও ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছিল।  ভিডিওতে কেট বলছেন, ‘আমার মেডিকেল টিম পরামর্শ দিয়েছে, আমাকে প্রতিরোধমূলক কেমোথেরাপির একটি কোর্স সম্পন্ন করা উচিত এবং আমি এখন সেই চিকিৎসার প্রাথমিক পর্যায়ে আছি।’ ক্যানসারের খবরটি বেশ বড় ধাক্কা হয়ে এসেছে জানিয়ে তিনি বলছেন, ‘এটি অবশ্যই একটি বড় এক ধাক্কা হিসাবে এসেছে এবং উইলিয়াম যা যা করা দরকার, করছে।  পরিস্থিতিকে যেভাবে মোকাবিলা করা দরকার, আমাদের এই কমবয়সী পরিবারের জন্য তাই করছি’।   
ছবিতে ডিজিটাল কেরামতি দেখিয়ে আবার শিরোনামে ব্রিটিশ রাজপরিবার
কেট মিডলটনের ছবির পর এবার নাতি-নাতনি সমেত রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের ছবিকে ঘিরে বিতর্ক৷ এবারও অভিযোগ ডিজিটাল কারসাজিতে ছবির মানোন্নয়নের৷ বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানায়, যুক্তরাজ্যের যুবরাজ উইলিয়াম ও তার স্ত্রী কেট মিডলটনের কার্যালয় কেনসিংটন প্যালেস আরো একটি ছবি সংবাদমাধ্যমকে দেন৷ কিন্তু রয়টার্সের নিজস্ব ফটো এডিটরদের মতে, রাজপরিবারের এই ছবিটিও সম্প্রতি প্রকাশ হওয়া কেট মিডলটনের ছবির মতোই পরিবর্তিত ও সেকারণে বিশ্বাসযোগ্যও নয়৷ গত বছরের এপ্রিল মাসে তৎকালীন রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের ৯৭তম জন্মদিন উপলক্ষে এই ছবিটি প্রকাশ করা হয়৷ ছবিতে প্রয়াত রানীকে দেখা যাচ্ছিল তার নাতি-নাতনিসহ পরিবারের আরো শিশুদের সাথে৷ সেই সময় কেনসিংটন প্যালেস জানিয়েছিল, ছবিটি তুলেছেন কেট নিজে, স্কটল্যান্ডে রাজপরিবারের বাসস্থান বালমোরাল কাসলে৷ মঙ্গলবার ছবি বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংস্থা গেটি ইমেজেস তার গ্রাহকদের জানায়, বালমোরালের এই ছবিটিকে ডিজিটাল প্রযুক্তির সাহায্যে উন্নত করা হয়েছে৷ কিন্তু এই উন্নতি কেমন বা কতটুকু, সে বিষয়ে কোনো বাড়তি তথ্য দেননি তারা৷ গেটি ইমেজেসের এক মুখপাত্র বলেন, গেটি ইমেজেস তার সরবরাহ করা ছবি যাচাই করছে৷ এছাড়া, আমাদের সম্পাদকীয় নীতি অনুযায়ী যে যে ছবি এভাবে ডিজিটাল কায়দায় পরিবর্তিত, সেই পরিবর্তনের তথ্য ছবির সাথে সম্পাদকীয় টীকা হিসাবে লেখা থাকবে৷ যে সময় এই ছবিটি প্রকাশিত হয়, তখন রয়টার্স বা গেটি ইমেজেস কেউই ধরতে পারেনি যে ছবিটি পরিবর্তিত৷ পরে রয়টার্সের ফটো এডিটরদের দল জানায়, তারা ছবিটির এমন আটটি অংশকে চিহ্নিত করেছেন, যা তাদের মতে ডিজিটাল কেরামতির প্রমাণ৷ কিন্তু এমন পরিবর্তন কেন করা হয়েছে, তা জানেন না রয়টার্সের কর্মীরা৷ কেনসিংটন প্যালেসের তরফে এখনও এ বিষয়ে কোনো বিবৃতি আসেনি৷ রয়টার্সের এক মুখপাত্র বলেন, কেনসিংটন প্যালেসের তরফে দ্বিতীয় ছবিতেও পরিবর্তন দেখার পর আমরা ছবি যাচাইয়ের মানগুলির পুনর্বিবেচনা করছি৷ টমসন রয়টার্স ট্রাস্টের নীতিমালা অনুযায়ী, রয়টার্স প্রকাশিত সকল ছবিকে একটি নির্দিষ্ট মান, সত্যতা ও নির্ভরযোগ্যতার মাপকাঠিতে উত্তীর্ণ হতে হয়৷ পরিবর্তিত ছবি ও কেট মিডলটন চলতি মাসের শুরুতে ব্রিটিশ মাদার্স ডে উপলক্ষে কেনসিংটন প্যালেসের দেওয়া কেট মিডলটন ও তার পরিবারের একটি ছবি সরিয়ে নেওয়া হয় বেশ কিছু পত্রপত্রিকা ও সংবাদসংস্থা থেকে৷ তখনও ডিজিটাল পরিবর্তনের অভিযোগ উঠেছিল৷ পরের দিন কেট ক্ষমা চেয়ে একটি বিবৃতি দেয়া হয়৷ সেখানে বলা হয়, অন্যান্য অপেশাদার চিত্রগ্রাহকদের মতো আমিও মাঝে মাঝে এডিটিং নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাই৷ গতকাল আমাদের ছবি প্রকাশিত হবার পর যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে, তার জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী৷ জানুয়ারি মাসে একটি অস্ত্রোপচারের মধ্য দিয়ে গেছেন কেট মিডলটন৷ তারপর থেকেই সোশাল মিডিয়ায় তাকে নিয়ে চলছে নানা ধরনের জল্পনা-আলোচনা৷
ব্রিটেনে গির্জাকে ১০০ বিলিয়ন পাউন্ড ‘জরিমানা’
চার্চ অব ইংল্যান্ড অতীতে আফ্রিকা অঞ্চলে ক্রীতদাস কেনা-বেচায় সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করেছিল আগেই৷ ক্ষতিপূরণ দিতেও রাজি হয়েছিল৷ সেই ক্ষতিপূরণের অঙ্ক ১০ গুণ বৃদ্ধির নির্দেশ দিয়েছে উপদেষ্টামণ্ডলী৷ ব্রিটিশ সাম্রাজ্য ক্রীতদাস প্রথা বিলুপ্ত করে ১৮৩৩ সালে৷ কিন্তু ১৯০ বছর পরও তার রেশ চলছে ইংল্যান্ডে৷ দাসপ্রথা বিলুপ্ত করার পর ব্রিটিশ ওয়েস্ট ইন্ডিজে দাস-মালিকদের ২০ বিলিয়ন, অর্থাৎ দুই হাজার কোটি পাউন্ডের ক্ষতিপূরণও দেয়া হয়েছিল৷ সেখানেই সব চুকে যাওয়ার কথা৷ কিন্তু ১৯ দশক পরও সব চুকে যায়নি৷ এমনকি চার্চ অব ইংল্যান্ডকেও ক্রীতদাস কেনা-বেচায় পরোক্ষে জড়ানোর দায় থেকে মুক্ত হতে আরো অনেকদিন অপেক্ষায় থাকতে হবে৷ গত বছর গির্জার ধর্মযাজকদের নেতারা স্বীকার করেন যে, চার্চ অব ইংল্যান্ড সাউথ সি কোম্পানি নামের এমন একটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অর্থানুকূল্য পেয়ে আসছে যারা অষ্টাদশ শতকে ক্রীতদাস বেচাকেনা করতো৷ ২০২৩ সালের জানুয়ারি মাসে চার্চ অব ইংল্যান্ডকে দাসপ্রথার ভুক্তভোগীদের স্বার্থে ১০০ মিলিয়ন পাউন্ড বিনিময়ের পরামর্শ দেন চার্চ কমিশনাররা৷ তাদের পরামর্শ অনুযায়ী, নয় বছরে এই অর্থ বিনিয়োগ করার কথা৷ নয় বছরে ১০০ মিলিয়ন পাউন্ডের ক্ষতিপূরণের বড় একটা অংশ আসবে চার্চ অব ইংল্যান্ডের সদস্যদের কাছ থেকে৷ প্রসঙ্গত, সারা বিশ্বের অ্যাংলিকান খ্রিষ্টানদের প্রধান গির্জা চার্চ অব ইংল্যান্ড৷ তাদের সদস্য সংখ্যা সাড়ে আট কোটির মতো৷ সোমবার চার্চ অব ইংল্যান্ডকে ওভারসাইট গ্রুপ বলেছে, ক্ষতিপূরণ হিসেবে ১০০ মিলিয়ন পাউন্ড যথেষ্ট নয়৷ স্বাধীন এই উপদেষ্টামণ্ডলী আরো বলেছে, চার্চ অব ইংল্যান্ডকে তহবিল দশগুণ বাড়াতে হবে৷ চার্চ অব ইংল্যান্ড অবশ্য মনে করে, ক্ষতিপূরণ হিসেবে ১০০ মিলিয়নই যথেষ্ট৷ দশগুণ অন্তত বাড়াতে হলে এবং ওভারসাইট গ্রুপের পরামর্শ অনুযায়ী দ্রুত এই অর্থ ক্ষতিগ্রস্ত জনগোষ্ঠীর কল্যাণে ব্যয় করতে হলে অর্থ সংগ্রহের পরিকল্পনা নতুন করে ঢেলে সাজাতে হবে চার্চ অব ইংল্যান্ড কর্তৃপক্ষকে৷
লন্ডনের পুলিশ স্টেশনে আগুন
লন্ডনের পূর্বাঞ্চলে একটি পুলিশ স্টেশনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সময় বুধবার (৬ মার্চ) বিকেলে শহরের ফরেস্ট গেইট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান ১৭৫ জন ফায়ার সার্ভিস কর্মী। পরে ভবনের ছাদ ভেঙে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন তারা। খবর স্কাই নিউজের।  প্রতিবেদনে বলা হয়, ৩০টি ফায়ার ইঞ্জিনের সহায়তায় আগুন পাশের ভবনে ছড়ানো আগেই নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। ঘটনার সময় ওই ভবনে অন্তত ৬০ জন লোক ছিলেন। তাদের সবাইকে বের করে আনা হয়েছে। আগুনের সংবাদ পাওয়ার পর লন্ডনের মেয়র সাদিক খান স্থানীয়দের উদ্দেশে এক্সে (সাবেক টুইটার) একটি পোস্ট করেন। যেখানে তিনি বলেন, স্থানীয়দের ওই এলাকাটি আপাতত এড়িয়ে চলা উচিত। স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, রমফোর্ড রোডের ফরেস্ট গেটে পুলিশ স্টেশন থেকে প্রচুর ধোঁয়া বের হতে দেখে আশপাশের লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তারাই তখন দ্রুত জরুরি সেবা নম্বরে কল করেন। আগুনের সূত্রপাত কীভাবে, তা এখনও জানা যায়নি। তবে, নিউহ্যাম পুলিশের কমান্ডার কাইল গর্ডন বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে।
যুক্তরাজ্যে উপনির্বাচনে ঋষি সুনাকের ভরাডুবি
যুক্তরাজ্যে দুটি জেলায় উপনির্বাচনে বড় ‘ধাক্কা’ খেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। দুই আসনে উপনির্বাচনে জয়ী হয়েছেন লেবার পার্টি নেতা। শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বার্তা সংস্থা এপি। শুক্রবার উপনির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এতে দেখা যায়, দক্ষিণ-পশ্চিম ইংল্যান্ডের কিংসউডের হাউস অব কমন্সের আসনে জয়ী হয়েছেন লেবার পার্টির প্রার্থী ড্যামিয়েন ইগান। দেশটির কেন্দ্রের ওয়েলিংবরোক শহরের আসনটি জিতেছেন দলটির নেতা জেন কিচেন। এপির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০১৯ সালের জাতীয় নির্বাচনে এ দুই আসনে বড় ব্যবধানে জিতেছিলেন রক্ষণশীলরা। বৃহস্পতিবারের বিশেষ নির্বাচনে তাদের ভরাডুবি হয়েছে। নির্বাচনে লেবার পার্টির দু’জন নেতাকে বিজয়ী করেছেন ব্রিটিশ ভোটাররা। জানা গেছে, গত মাসে কিংসউডের আসন ছেড়েছেন কনজারভেটিভ দলের নেতা ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী ক্রিস স্কিডমোর। এদিকে যৌন অসদাচরণের অভিযোগে ওয়েলিংবরোকের সাবেক সংসদ সদস্য পিটার বোনকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়েছে।
ব্রিটেনের রাজা চার্লসের ক্যানসার
ব্রিটেনের রাজা চার্লসের ক্যানসার ধরা পড়েছে। তাই জনসমক্ষে সব ধরনের দায়িত্ব পালন থেকে বিরত থাকবেন তিনি। সোমবার (৫ ফেব্রয়ারি) এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে বাকিংহাম প্রাসাদ। তবে তার কী ক্যানসার হয়েছে, সে বিষয়ে কিছু জানায়নি তারা। বাকিংহাম প্রাসাদের বিবৃতিতে বলা হয়, চিকিৎসায় সেরে ওঠার ব্যাপারে সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে ৭৫ বছর বয়সী রাজা চার্লসের। যত দ্রুত সম্ভব তিনি আবার স্বাভাবিক দায়িত্ব পালনে ফিরবেন। গত মাসে তিন রাত হাসপাতালে কাটিয়েছেন চার্লস। সে সময় তার প্রোস্টেটের চিকিৎসা করা হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাকালে তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ দেখা দেয় বলেও জানিয়েছে বাকিংহাম প্রাসাদ। প্রসঙ্গত, মা রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর ২০২২ সালের সেপ্টেম্বরে ব্রিটেনের রাজা হিসেবে অভিষেক ঘটে চার্লসের।