Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ১৯ মে ২০২১, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

লকডাউনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে সাধারণ মানুষ (ভিডিও)

লকডাউনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে সাধারণ মানুষ (ভিডিও)
লকডাউনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে সাধারণ মানুষ

করোনার সংক্রমণরোধে সর্বাত্মক লকডাউনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ঘরের বাইরে ঘুরে বেড়াচ্ছে সাধারণ মানুষ। মাস্ক ব্যবহার ও সামাজিক দূরত্বের ওপর জোর দেয়া হলেও বেশিরভাগই তা মানছেন না। রাজধানীর ধানমন্ডি লেকে প্রতিদিনই ইফতারের পর বাড়তে থাকে মানুষের আনাগোনা। কেউ কেউ লেকের প্রাকৃতিক পরিবেশে শরীরচর্চার জন্য এলেও বেশিরভাগই আসেন আড্ডা দিতে ও খেলতে।

সরেজমিনে গিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে দেখা যায়, রাজধানীর ধানমন্ডি লেকে ইফতারের পর প্রাকৃতিক পরিবেশে শরীরচর্চা করতে কেউ কেউ এসেছেন। আবার কেউ কেউ এসেছেন প্রাকৃতিক পরিবেশে কিছুটা সময় কাটাতে। কিন্তু করোনার সংক্রমণ না কমায় সবাইকে মাস্ক পরার কথা বলা হলেও তা যেন মানতেই চান না কেউ।

প্রতিবেশী দেশে যখন অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যুর মিছিল বড় হচ্ছে, সেখানে দেশের অনেক মানুষেরই মাস্কে অনীহা। এজন্য তাদের আছে নানা যুক্তি।

একজন বলছেন, কোক খেয়েছি। এ জন্য মাস্ক খুলেছি। অন্য একজন বলছেন, সারাদিন কাজ করার পর একটু খোলা বাতাস খাওয়ার জন্য এসেছি। আবার যারা স্বাস্থ্য সচেতন তারা করোনা থেকে বাঁচতে করছেন শরীরচর্চা। মাস্ক ব্যবহারেও তারা সচেতন।

শরীরচর্চা করতে আসা কালাম দাঁড়িয়া জানান, শরীরচর্চা করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য এখানে আসা। এক্ষেত্রে সচেতনতার সঙ্গে সবাই মাস্ক পরেই আসে।

অন্য আরেকজন বলছেন, একসঙ্গে যেহেতু অনেকগুলো মানুষ থাকে তাই সবার মাস্ক পড়া উচিত।

অপরদিকে দেখা যায়, লকডাউনে লেকপাড়ে মানুষের আসা-যাওয়া নিয়ন্ত্রণে সক্রিয় ভূমিকায় নেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর। তবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি জানান, মাস্ক নিশ্চিত করতে লেকে আসা মানুষজনকে মাঝে-মাঝেই সচেতন করা হয়।

ডিএসসিসির ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম বাবলা আরটিভি নিউজকে বলেন, মানুষ যেন সুন্দরভাবে চলাফেরা করতে পারে তার জন্য আমরা স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ দিয়েছি। আমরা ছোট ছোট মাইক দিয়ে করোনা সচেতনতামূলক প্রচারণা চালাচ্ছি। তবে কেবল প্রচার বা আইনের প্রয়োগ নয়, মানুষ নিজ থেকে সচেতন না হলে কোনোভাবেই মাস্ক পরা নিশ্চিত করা সম্ভব নয়।

এসআর/পি

RTV Drama
RTVPLUS