logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, ৭ মাঘ ১৪২৭

আরটিভিতে খবর প্রকাশ

হতদরিদ্র শিশু রুবিনার পাশে দাঁড়িয়েছে ‘সর্বজয়া কিশোরী’ (ভিডিও)

Sarvajaya Kishori is standing next to the poor child Rubina
হতদরিদ্র শিশু রুবিনা মায়ের সেবা করছে
পটুয়াখালীর হতদরিদ্র শিশু রুবিনার পাশে দাঁড়িয়েছে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করা সংগঠন সর্বজয়া কিশোরী। বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভিতে সংবাদ প্রকাশের পর অসহায় শিশুটির জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে অনেক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান। আর প্রশাসন জানিয়েছে, ১০ বছরের ওই শিশুকে বৃদ্ধ নানী ও মানসিক প্রতিবন্ধী মার দায়িত্ব আর একা পালন করতে হবে না। 

পটুয়াখালীর জেলা সদর থেকে ৬১ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে জেলার কলাপাড়া উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের হোসেনপুর গ্রামে অন্যের জমিতে আশ্রিতা হিসেবে থাকে রুবিনার পরিবার। বাবা সমুদ্রে ইলিশ শিকারে গিয়ে নিখোঁজ হবার পর থেকেই মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন মা। সঙ্গে আছে বৃদ্ধ নানী আর হতদরিদ্র খালা। তারপর থেকেই সংসারের ভার কাঁধে তুলে নেয় ছোট্ট রুবিনা। কখনো পাতা কুড়িয়ে কখনো প্রতিবেশীদের বাড়ি থেকে খাবার এনে কঠিন বাস্তবতার লড়ায়ে নামে টুঙ্গিবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর এই ছাত্রী।

গেল ২০ নভেম্বর বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল বেসরকারি টেলিভিশন আরটিভিতে তার জীবন সংগ্রামের গল্প শুনে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় অনেক মানুষ। একইসঙ্গে শিশুটিকে পুনর্বাসনের উদ্যোগ নেয় সমাজে সুবিধা বঞ্চিত মানুষদের নিয়ে কাজ করা সংগঠন সর্বজয়া কিশোরী। শিশুটির বাড়ি গিয়ে নগদ অর্থ, শিক্ষা সামগ্রী আর শীতবস্ত্র তুলে দেন সর্বজয়া কিশোরীর পরিচালক সৈয়দা মুনিরা ইসলাম। তিনি বলেন, সমাজে আর কোনো শিশুর পরিণতি যেন রুবিনার মতো না হয়।

এ সময় কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক, সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শিলা রানী দাস, কলাপাড়া উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, কলাপাড়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবুল বাশার উপস্থিত ছিলেন। তারা জানান, সর্বজয়া কিশোরীর এ উদ্যোগ যেন সফল হয় সেজন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন তারা।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক বলেন, এরইমধ্যে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে রুবিনার জন্য বরাদ্দকৃত দুই শতাংশ জমিতে আবাসন কার্যক্রম শুরু করেছে উপজেলা প্রশাসন।
পি
 

RTV Drama
RTVPLUS