logo
  • ঢাকা বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬

আমাদের চিন্তায় ও কর্মে শৃঙ্খলার অভাব: সালাউদ্দিন লাভলু

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০১ অক্টোবর ২০১৯, ২২:৫০ | আপডেট : ০৩ অক্টোবর ২০১৯, ১১:০৮
সালাউদ্দিন লাভলু চলচ্চিত্র ‘সাপলুডু’
সালাউদ্দিন লাভলু। ফাইল ছবি
বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত চলতি বছরের সবচেয়ে আলোচিত সিনেমা ‘সাপলুডু’ মুক্তি পেয়েছে গেল ২৭ সেপ্টেম্বর।  ঢাকা ও ঢাকার বাইরের হলগুলো প্রায় প্রতিদিন হাউজফুল হচ্ছে।

এই ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন নন্দিত অভিনেতা ও নির্মাতা সালাউদ্দিন লাভলু। গোয়েন্দা অফিসারের ভূমিকায় অভিনয় করে প্রশংসায় ভাসছেন তিনি। সাপলুডুসহ বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা হয়েছে আরটিভি অনলাইনের সঙ্গে।

আরটিভি অনলাইন:  কেমন আছেন? 

সালাউদ্দিন লাভলু: ভালো আছি।

আরটিভি অনলাইন:  আপনার বাহ্যিকভাবে কোনও পরিবর্তন দেখা যায় না, সবসময় চির তরুণ মনে হয় রহস্য কী?

সালাউদ্দিন লাভলু: বাহ্যিকভাবে ও মানসিকভাবে আমি এক। মানুষের যত বেশি বয়স বাড়ে ততবেশি সে ছোট হয়ে যায়। মানসিকভাবে মানুষ সবসময় ছোটবেলার মন নিয়ে থাকে।

আরটিভি অনলাইন: আপনার ‘সাপলুডু’ ছবিটা মুক্তি পেয়েছে। দর্শক আপনার অভিনয়ের প্রশংসা করছে, আপনি হলে গিয়ে ছবিটি দেখেছেন, কেমন মনে হয়েছে?

সালাউদ্দিন লাভলু: দর্শকদের দারুণ সাড়া ছিল। হলে পিনপতন নিস্তব্ধতা ছিল। টিকিট কেটে দেখার মতো সিনেমা। এক নিশ্বাসে দেখার মতো ছবি এটা। একটি পরিপূর্ণ ছবি। যারা বলছেন বাংলাদেশের ছবি কেন ভালো হয় না তারা হলে এসে ছবিটি দেখবেন।

আরটিভি অনলাইন:  আপনাকে অনেক মানুষ ভালোবাসে, আপনার ভক্তদের সংখ্যাও অনেক, কেমন লাগে?

সালাউদ্দিন লাভলু: একটা মানুষের জীবনের চাওয়াটা হচ্ছে মানুষের ভালোবাসা পাওয়া। যে যেখানেই থাকুক, আমরা যেখানে কাজ করি না কেন আমাদের সর্বোচ্চ আকাঙ্ক্ষা হচ্ছে মানুষের ভালোবাসা পাওয়া। সে কাজটি যদি কর্মের ফল হয় তাহলে তো ভালো লাগবে। কোনও মানুষের যদি বোধ হয় আমি আমার জীবনকে এমন কিছুতে উৎসর্গ করবো যার বিনিময় কিছুই চাই না, শুধু মানুষের ভালোবাসা পাওয়া। আমার কাছে মনে হয় মানুষের ভালোবাসা হচ্ছে দোয়া। আর এই দোয়া আল্লাহ কবুল না করে পারেন না। আমি চাই এমন কিছু কাজ করে যেতে চাই যার জন্য যেন মানুষের হৃদয়ে আজীবন থাকতে চাই।

আরটিভি অনলাইন:  নাটক নিয়ে কিছু বলুন

সালাউদ্দিন লাভলু: অনেকদিন ধরে ভাবছি আমাদের নাটক নিয়ে। দর্শকরাও বলেন বাংলাদেশের নাটকের গৌরবময় ঐতিহ্যের কথা। কিন্তু দর্শকদেরও হাহাকার আছে আমাদেরও আছে। আমরা গৌরবময় ঐতিহ্য হারিয়ে ফেলছি। এমন নয় যে আমাদের বাংলাদেশের শিল্প-সাহিত্যে, নাটকে যারা আছেন তারা মেধাবী নয়। কিন্তু পর্দায় গিয়ে আমরা আমাদের মেধার প্রতিফলন ঘটাতে পারছি না নানান কারণে। এক কথায় একটা শৃঙ্খলার অভাব। সৃষ্টিশীল কাজের ক্ষেত্রে আমাদের চিন্তায় ও কর্মে যে শৃঙ্খলার অভাব। এটা দিন দিন র প্রকট আকার ধারণ করছে।

আরটিভি অনলাইন: আপনি তো ডিরেক্টরস গিল্টের সভাপতি, এজন্য আপনারা কী ধরণের উদ্যোগ নিয়েছেন? 

সালাউদ্দিন লাভলু: আমরা এজন্য চিন্তা করেছি প্রথমত শৃঙ্খলা ফেরাতে হবে। এজন্য আমরা সবাই একত্রিত হয়ে সংগঠনটাকে ৪-৫ বছর ধরে মজবুত করেছি। আমি ডিরেক্টরস গিল্টের প্রেসিডেন্ট হিসেবে অনেক গুরু দায়িত্ব পালন করছি।  আমরা যারা সরাসরি অভিনয়ের মতো সৃষ্টিশীল কাজের সঙ্গে যুক্ত আছি তাদের জন্য এরকম দায়িত্ব পালন করা অনেক কষ্টের। পর্দার সামনের কাজের সঙ্গে সঙ্গে  পেছনেও কিছু কাজ করে যেতে চাই যেন পর্দাটা সুন্দর হয়।

জিএ/এম    

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়