Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ০৯ মে ২০২১, ২৬ বৈশাখ ১৪২৮

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ০৫ মে ২০২১, ১৩:৫৪
আপডেট : ০৫ মে ২০২১, ১৩:৫৬

'মহিলা-পুরুষ কেউই রেহাই পাচ্ছেন না'

'মহিলা-পুরুষ কেউই রেহাই পাচ্ছেন না'
ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়

ভোটের আগে কতজন কত কথা বলে। এক দল আরেক দলকে চোখ বন্ধ করে কটাক্ষ করেন। প্রার্থীরা একে অন্যের দোষ ঢোল পিটিয়ে বলার চেষ্টা করে, সাথে নিজেদের আশ্বাসের কথা তো বটেই। কিন্তু নিজের দলের হেরে যাওয়া তারকা প্রার্থীদের নিয়ে বিজেপি নেতা তথাগত রায়ের কটূক্তির মাত্রাটা সীমা ছাড়িয়ে গেছে। বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির পরাজিত তারকা প্রার্থী শ্রাবন্তী, পার্নো ও পায়েলের মতো তারকাদের ‘নগরীর নটি’ বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

এর আগে শাসক দলের প্রার্থী সায়নী ঘোষ ছিলেন তথাগতের নিশানায়। সে সময় প্রবীণ এই নেতার কাছ থেকে নানান কটূক্তি শুনেছেন তিনি। তথাগতের এমন আচরণে মুখ খুলেছেন টেলি-অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, ''এভাবেই কী বারে বারে শিল্পীদের ‘রগড়ানো’ হবে?''

ভাস্বরের জানান, শ্রাবন্তী, পায়েল, তনুশ্রীর প্রথম পরিচয় তারা অভিনেত্রী। শিল্পীদের এভাবে ‘নগরীর নটি’ বলে অপমান করা যায়? ইদানিং নেটমাধ্যমে খুল্লামখুল্লা পরস্পরকে বিঁধছেন সবাই। সেটা করতে গিয়ে মহিলা-পুরুষ কেউই আর অপমানের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেন না।

ভাস্বরের যুক্তি, নির্বাচনের আগে রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে পারস্পরিক দ্বন্দ্ব লেগেই থাকে। কিন্তু বিজেপির প্রবীণ নেতা যে কাণ্ডজ্ঞান খুইয়ে নিজের দলের সদস্যদেরই অপমান করে বসলেন! যাঁরা পরাজয়ের পরেও বলেছেন- দল ছাড়বেন না।

এই অভিনেতার দাবি- নির্বাচনে পরাজয়ের পর ৩ অভিনেত্রীর প্রার্থীপদ নিয়ে সংশয় প্রকাশ করছেন দলেরই এক প্রবীণ নেতা। এই প্রশ্ন তো আরও আগে তোলা উচিত ছিল। বিরোধিতাটাও শুরুতে করলেই ভাল হত। সবাই সব কিছুই জানতেন। আসলে দলের মধ্যে কোনও সংহতি নেই। সেই দলীয় ঝামেলাই সামনে নিয়ে এসেছেন ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল।

সূত্র: আনন্দবাজার

এনএস

RTV Drama
RTVPLUS