logo
  • ঢাকা রোববার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১০ মাঘ ১৪২৭

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১৮:৩২
আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১৮:৪৬

সংসার ভাঙা নিয়ে যা বললেন শবনম ফারিয়া

শবনম ফারিয়া
ছোটপর্দার অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া তার বিবাহ বিচ্ছেদ নিয়েই নিজেদের অবস্থান বিস্তারিত তুলে ধরেছেন। শুভাকাঙ্ক্ষীরা যেন ভুল না বোঝেন সেজন্য দীর্ঘ বক্তব্য তুলে ধরেছেন। নিজের ফেসবুক আইডিতে শনিবার (২৮ নভেম্বর) বিকেল ৫টা ৪৩ মিনিটে একটি স্ট্যাটাস দেন ফারিয়া। 

সেখানে তিনি নিজের, পরিবারের ও অপুর সিদ্ধান্তের কথা তুলে ধরেছেন। একই সঙ্গে আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তিনি।

স্ট্যাটাসে ফারিয়া লেখেন, মানুষের জীবন নদীর মতো। কখনও জোয়ার, কখনও ভাটা। কখনও বৃষ্টিতে পানি বেড়ে যায়, শীতকালে পানি শুকিয়ে যায়। আমাদের জীবনেও এমনটা হয়! আমাদের জীবনে কিছু মানুষ আসে; কেউ কেউ স্থায়ী হয়, কেউ কেউ কিছু কারণে স্থায়িত্ব ধরে রাখতে পারে না। আমার মা সব সময় একটা কথা বলে, ‘আল্লাহর হুকুম ছাড়া একটা গাছের পাতাও নড়ে না, আমরা শুধু চেষ্টা করতে পারি!’ ঠিক সেভাবেই আমি আর অপু অনেকদিন ধরেই চেষ্টা করেছি একসাথে থাকতে! কিন্তু বিষয়টা একটা পর্যায়ে খুব কঠিন হয়ে যায়! 

তিনি বলেন, ‘মানুষ কি বলবে’ ভেবে নিজেদের উপর একটু বেশিই টর্চার করে ফেলছিলাম আমরা! ‘জীবনটা অনেক ছোট, এতো কষ্ট নিয়ে বেঁচে থাকার কি দরকার’? এইটা ভেবে আমরা এ বছরের শুরু থেকেই সিদ্ধান্তে আসি আমরা আর একসাথে থেকে কষ্টে থাকতে চাই না!’’ 

বৈবাহিক সম্পর্কের ইতি টানার প্রসঙ্গে ফারিয়া বলেন, ‘তাও বছর খানেক সময় নিয়েছি পরস্পরকে বুঝতে! ফাইনালি ‘আল্লাহ্ যা করেন ভালোর জন্যেই করেন’ ভেবে আমরা আমাদের প্রায় আড়াই বছরের বৈবাহিক জীবনের অবসান ঘটিয়ে আবারও ৫ বছরের পুরোনো বন্ধুত্বে ফিরে গেছি।বিবাহে বিচ্ছেদ হয়, কিন্তু ভালোবাসার বিচ্ছেদ নেই! বন্ধুত্বের বিচ্ছেদ নেই! যতদিন বেঁচে আছি আমাদের ভালোবাসা ও বন্ধুত্ব থাকবে।’

অভিনেত্রী আরও লেখেন, ‘শুধুমাত্র বৈবাহিক বন্ধন থেকে আমাদের সম্পর্কের ইতি টেনে নিলাম! এ ঘটনা আমাদের জীবনের গতি হয়তো রোধ করবে, ছন্দপতন করবে কিন্তু জীবন তো থেমে থাকবে না! অপুর জন্যে আমার অনেক অনেক দোয়া, ভালোবাসা আর শুভ কামনা। আমরা যে সুখের জন্যে আলাদা হলাম আমরা যেন সে সুখ খুঁজে পাই। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

২০১৫ সালে ফেসবুকের মাধ্যমে হারুন অর রশিদ অপুর সঙ্গে বন্ধুত্ব হয় শবনম ফারিয়ার। এরপর ফেসবুকে কথা বলতে বলতে তাদের দুজনের মধ্যে বন্ধুত্বের বন্ধন মজবুত হয়। তিন বছর ধরে চলে তাদের বন্ধুত্ব। তারই এক পর্যায়ে দুজন পরস্পরের প্রতি ভালোবাসা অনুভব করেন। ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় তাদের।

জিএ/পি

RTV Drama
RTVPLUS