logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬

মাসাকাদজার বিদায়ী ম্যাচে বিসিবির সম্মাননা

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৭:২৬
মাসাকাদজার বিদায়ী ম্যাচে বিসিবির সম্মাননা
হ্যামিল্টন মাসাকাদজা
বাংলাদেশের ক্রিকেটে ঘরোয়া লিগগুলো চষে বেড়িয়েছেন এই মাসাকদজা। বছরের বেশিরভাগ সময়ই একটা সময় এদেশে কাটতো তার। ‘বাংলাদেশ আমার দ্বিতীয় বাড়ী’ কথাটা জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজার। 

সে হিসেবে বাংলাদেশটা তার আপন হয়ে উঠা। খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে ২০০৬ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি অভিষেক হলেও ক্রিকেটের ইতিটা টানছেন চট্টগ্রামে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে।

দেশের ক্রিকেটের টালমাটাল অবস্থা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আইসিসিরি নিষেধাজ্ঞা। বৈশ্বিক আসর গুলোয় নিষেধাজ্ঞা থাকলেও দ্বিপাক্ষিক বা ত্রিদেশীয় সিরিজগুলো খেলতে বাধা নেই জিম্বাবুয়ের। কিন্তু দলের যে অবস্থা তাতে কখন আবার আমন্ত্রণ পাওয়া হয় খেলার সেটা অনিশ্চিত।

তাই অনিচ্ছাকৃত অবসরটা নিতেই হচ্ছে জিম্বাবুইয়ান এই ক্রিকেটারের। যদিও ইচ্ছা ছিল আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটা খেলেই ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর।

ত্রিদেশীয় সিরিজে গত তিন ম্যাচে তার দল একটি ম্যাচেও জয় পায়নি। ফাইনালে উঠতে না পারায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে আজকের ম্যাচটা তাই শুধুই নিয়ম রক্ষার ম্যাচ। এই ম্যাচ দিয়ে শেষ হচ্ছে মাসাকাদজার দীর্ঘ ১৯ বছরের ক্যারিয়ারের।

এ উপলক্ষে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড থেকেও তাকে সম্মান জানানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। জানা গেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড থেকে স্মারক উপহার তুলে দেওয়া হবে তার হাতে।

২০০১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিজের অভিষেক টেস্টে ১১৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে বাঁচিয়েছিলেন ম্যাচ। ওই ইনিংস দিয়ে সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান হিসেবেও নাম লেখান মাসাকাদজা। যদিও পরে বাংলাদেশের মোহাম্মদ আশরাফুল সেই রেকর্ড নিজের করে নেন।

জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বোচ্চ ৬৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। 

১৯ বছরের ক্যারিয়ারে ৩৮ টেস্টে তার রান ২ হাজার ২২৩ ও ২০৯ ওয়ানডেতে করেছেন ৫ হাজার ৬৫৮ রান। টি-টোয়েন্টিতে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৫৯১ রানের সঙ্গে আছে সর্বাধিক ১০টি অর্ধশতক। তিন ফরম্যাট মিলে ৫৭টি উইকেটও নিয়েছেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা।

এমআর/

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়