Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

টিকটকে নাসির-তামিমার খুনসুটি (ভিডিও)

nasir hossain, tamima tammi tiktok, rtv online
টিকটক মাতাচ্ছেন নাসির-তামিমা

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে টিকটকে জাতীয় দলের ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী তামিমা তাম্মির ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিও গুলো লাখ লাখ ব্যবহারকারী দেখেছেন।

কোনও ভিডিওতে সংলাপ আবার কোনও ভিডিওতে গানের সঙ্গে ঠোট মিটিয়েছেন এই দম্পতি। ভিডিওগুলোতে দেখা যাচ্ছে বাংলা, হিন্দি ও আরবি গানেও টিকটক করেছেন তারা।

১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে বিয়ে করে আলোচনায় এসেছিলেন নাসির হোসেন। স্ত্রীর নাম তামিমা তাম্মি। ১৭ তারিখ দুইজনের হলুদের ছবি-ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। ২০ ফেব্রুয়ারি তাদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। ওই দিনই অভিযোগ উঠে স্বামীকে রাকিব হাসানকে তালাক না দিয়েই জাতীয় দলের ক্রিকেটার নাসিরের সঙ্গে বিয়ে পিড়িতে বসেন তামিমা।

প্রাথমিকভাবে সাধারণ ডায়েরি ও পরবর্তীতে নাসির-তামিমার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন রাকিব।

মামলটিতে উল্লেখ করা হয়, ২০১১ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি তামিমা ও রাকিবের বিয়ে হয়। তাদের ৮ বছরের একটি মেয়েও রয়েছে। তামিমা পেশায় সৌদিয়া এয়ার লাইন্সের কেবিন ক্রু। চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি তামিমা ও ক্রিকেটার নাসির হোসেনের বিয়ের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা রাকিবের নজরে আসে। পরে পত্র-পত্রিকায় তিনি ঘটনার বিষয়ে জানেন। মামলায় আরও বলা হয়, তামিমা ও নাসিরের এমন অনৈতিক ও অবৈধ সম্পর্কের কারণে রাকিব ও তার শিশু কন্যা মানসিক বিপর্যস্ত। আসামিদের এমন কার্যকলাপে রাকিবের চরমভাবে মানহানি হয়েছে।

এ বিষয়ে রাকিবের আইনজীবী ইশারত হাসান বলেন, তামিমা সুলতানা আমার মক্কেল রাকিবের স্ত্রী হয়েও তাকে তালাক না দিয়ে ক্রিকেটার নাসিরকে বিয়ে করেছেন। যা আইনসিদ্ধ নয়। এখানে রাকিব হাসান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তার সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে এবং তার মানহানি হয়েছে।

একই দিন সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন নাসির-তামিমা।

তামিমা দাবি করেন, কারও প্ররোচনা নয়, আইন ও শরিয়া সম্মতভাবে আমাদের বিয়ে হয়েছে। কিন্তু এই বিয়ে নিয়ে কারও প্ররোচনায় সমালোচনা করবেন না।

অন্যদিকে নাসির হোসেন বলেন, আমি জাতীয় দলের হয়ে খেলেছি, ভাল খেললে মানুষ প্রশংসা করতো, খারাপ খেললে গালি দিতো। কিন্তু আমার স্ত্রী তামিমা সেই সংস্কৃতিতে বেড়ে ওঠেনি। তাকে নিয়ে মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে ধরনের সমালোচনা চলতে তাতে যেকোন সময় তামিমা ভুল সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। সেজন্য এক সেকেন্ডও তামিমার কাছ থেকে আলাদা থাকেননি নাসির।

এদিকে মামলাটির দায়িত্ব বর্তমানে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কাছে রয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

ওয়াই

RTV Drama
RTVPLUS