• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

স্টার জলসা, স্টার প্লাসসহ বাংলাদেশে সব বিদেশি চ্যানেল বন্ধ হতে পারে

শাহীনুর রহমান
|  ০২ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:৪১ | আপডেট : ০২ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:৫১
বাংলাদেশে ভারতীয় জি টেলিভিশন নেটওয়ার্কের সব চ্যানেল সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এখন স্টার জলসাসহ বাকি বিদেশি চ্যানেলগুলোও বন্ধ হতে পারে। বিজ্ঞাপন সংশ্লিষ্ট জটিলতার কারণে এ ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।

whirpool
ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন, ২০০৬’এর উপধারা-১৯(১৩) এর বিধান অনুযায়ী,বাংলাদেশের দর্শকদের জন্য বিদেশি কোনও চ্যানেলের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেখানো দণ্ডনীয় অপরাধ।

কিন্তু তারপরও একটি স্বার্থান্বেষী মহল অবৈধভাবে টাকা হাতিয়ে নিতে বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন চালিয়ে যাচ্ছে। এ অবস্থায় সরকার আইনের বিষয়ে আবার কঠোর হয়েছে।

সোমবার তথ্য মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে দুই পরিবেশক (ডিস্ট্রিবিউটর) সংস্থা ন্যাশনওয়াইড মিডিয়া লিমিটেড এবং জাদু ভিশন লিমিটেডকে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠায়। এ নোটিশ পাওয়ার পরই জাদু ভিশন সারাদেশে ভারতীয় জি নেটওয়ার্কের সব চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করে।

বাংলাদেশ ক্যাবল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব) এর সদস্য ডিজি ২১ সিস্টেমস লিমিটেডের কর্ণধার এ বি এম সাইফুল হোসাইন আরটিভি অনলাইনকে বলেন, বিজ্ঞাপন সংশ্লিষ্ট জটিলতার কারণে সরকার থেকে আমাদের বিদেশি চ্যানেল (যেগুলোতে বিজ্ঞাপন দেখানো হয়) প্রচার না করার জন্য বলা হয়েছে। আমরা সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিচ্ছি।

‘আপাতত বাংলাদেশে জি নেটওয়ার্কের চ্যানেলগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। শিগগিরই স্টার জলসা, স্টার প্লাস, স্টার মুভি, স্টারগোল্ডসহ সব বিদেশি চ্যানেলের সম্প্রচার (যেগুলোতে বিজ্ঞাপন দেখানো হয়) বন্ধ করে দেয়া হবে।’

তবে সরকারের হঠাৎ এ উদ্যোগে ক্যাবল ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত হবে জানিয়ে তিনি বলেন, সরকারের উচিত আইন নতুন করে সংস্কার করা। সেখানে কিভাবে চলবে সেটার নির্দেশনা দেয়া। কারণ এভাবে চ্যানেল বন্ধ করে সমস্যার সমাধান হবে না।

কোনও নির্দিষ্ট সময়ের জন্য এসব চ্যানেল বন্ধ রাখা হবে কিনা—জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন তো উপায় দেখছি না। হ্যাঁ, হয়ে যাবে বন্ধ।

ক্যাবল অপারেটর প্রতিষ্ঠান ‘জাদু ডিজিটালের' কাস্টমার সার্ভিস কর্মকর্তা ফয়সাল আহমেদ জানান, তথ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশক্রমে বাংলাদেশে চ্যানেলগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে।

গত শনিবার রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে এক গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তথ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। ‘সংকটে বেসরকারি টেলিভিশন’ শীর্ষক এই গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে সম্প্রচার সাংবাদিক কেন্দ্র।

সেখানে তথ্যমন্ত্রী কেবল অপারেটরদের উদ্দেশে বলেন, ডাউন লিংক করে বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন দেখানো দণ্ডনীয় অপরাধ। শুধু এ–সংক্রান্ত আইন যথাযথভাবে মানা হলে বছরে দেশে ৫০০ কোটি টাকা বাড়বে।

এস/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়