Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়ক

ক্ষতিগ্রস্ত সেতু ও নির্মাণ কাজ চলায় সৃষ্টি হচ্ছে যানজট 

ক্ষতিগ্রস্ত সেতু ও নির্মাণ কাজ চলায় সৃষ্টি হচ্ছে যানজট 
মহাসড়কে সৃষ্টি হচ্ছে যানজট

উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার বঙ্গবন্ধু সেতু-হাটিকুমরুল মহাসড়কের ক্ষতিগ্রস্ত সিরাজগঞ্জের নলকা সেতুতে স্বাভাবিক গতিতে যানবাহন চলাচল করতে না পারায় মহাসড়কে প্রতিনিয়ত সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টিপাতে সেতুটির পিচ উঠে এক্সপানশন জয়েন্টগুলো ফাকা হয়ে যাওয়ায় ধীর গতিতে যানচলাচলের নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

এছাড়া মুলিবাড়িতে ডিভাইডার ও কড্ডায় ফ্লাইওভার নির্মাণকাজ চলমান থাকায় ওই দুটি স্থানেও যানবাহন চলছে ধীর গতিতে। ফলে এই মহাসড়কে প্রতিনিয়ত সৃষ্টি হচ্ছে যানজট, ভোগান্তিতে পড়ছেন মহাসড়ক ব্যবহারকারীরা। ঈদ-উল আযহা উপলক্ষে কোরবানির পশুবাহি ট্রাক ও ঈদে মানুষের ঘড়ে ফেরা শুরু হলে যানজট ও ভোগান্তি ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে বলে আশংকা করছেন হাইওয়ে পুলিশ।

সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগ, হাইওয়ে পুলিশ ও মহাসড়ক ব্যবহারকারীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ১৯৮৮ সালে সিরাজগঞ্জের ফুলঝোড় নদীর ওপর নলকায় দুই লেনের সেতুটি নির্মাণ করা হয়। বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণ হওয়ার পর এই সেতুটিতে যান চলাচলের চাপ বেড়ে যায় বহুগুণে। পুরনো এই সেতুটি ভারি যানচলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় পাশেই একটি সেতু নির্মাণ কাজ শুরু হয় যা এখনো চলছে। অন্যান্য বছরের ন্যায় চলতি বছরেও বর্ষা মৌসুমের শুরুতেই বৃষ্টিপাতে এই সেতুটির পিচঢালাই উঠে এক্সপানশন জয়েন্টগুলোর পাত বের হয়ে গেছে আর ফাকা হয়ে গেছে জয়েন্টগুলোও। এতে সেতুটিতে স্বাভাবিক গতিতে যানচলাচল করতে পারছে না। ফলে সৃষ্টি হচ্ছে যানজট।

এছাড়া সড়ক পথে ঢাকার সাথে উত্তরবঙ্গের যান-চলাচলের একমাত্র পথ বঙ্গবন্ধু সেতু থেকে হাটিকুমরুল গোলচত্বর পর্যন্ত ২২ কিলোমিটার মহাসড়কে শুরু হয়েছে চার লেনে উন্নয়ন কাজ। একই সঙ্গে মহাসড়কের সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার মুলিবাড়িতে ডিভাইডার ও কড্ডায় ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। এই দুটি স্পটেও ধীর গতিতে চলছে যানবাহন।

এই তিনটি স্পটে যানচলাচলের ধীর গতিতে সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। যা ছড়িয়ে পড়ছে মহাসড়ক জুড়ে। বিশেষ করে রাতে যানবাহনের চাপ বাড়লে তীব্র হচ্ছে যানজট যা দিনের বেলাতেও অব্যাহত থাকছে। নিত্য যানজটে নাকাল হচ্ছে মহাসড়ক ব্যবহারকারী চালক ও যাত্রীদের।

এই মহাসড়ক ব্যবহারকারী যাত্রী, চালক, হাইওয়ে পুলিশ ও ট্রাফিক পুলিশের আশংকা প্রতিবছরের ন্যায় এ বছর ঈদে ঘরমুখো যাত্রী ও কোরবানির পশুবাহি গাড়ির চাপ বাড়বে। তার আগেই নলকা সেতু সংস্কারসহ কড্ডা ও মুলিবাড়িতে বিকল্প পথ তৈরি করা না গেলে চাপ সামাল দেয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে। সৃষ্টি হবে দীর্ঘ যানজটের ফলে ভোগান্তি পোহাতে হবে।

শ্যামলী পরিবহনের চালক আজিজুল ইসলাম আরটিভি নিউজকে বলেন, নলকা সেতুতে সাবধানতার সাথে অত্যন্ত ধীর গতিতে গাড়ি চালাতে হচ্ছে। কারণ জয়েন্টগুলো ফাকা হয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। একটু অসাবধান থাকলে গাড়ির পাতি ভেঙ্গে যাওয়াসহ দুর্ঘটনার আশংকা আছে। ধীরগতিতে চলতে গিয়ে সেতুটির দুই পাড়ে গাড়ির দীর্ঘ সাড়ি তৈরি হচ্ছে।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল্লাহেল বাকি আরটিভি নিউজকে জানান, মহাসড়কের নলকা সেতুতে স্বাভাবিক গতিতে গাড়ি চলাচল করতে পারছে না। এক লেন বন্ধ রেখে এক লেনে যানচলাচল করছে। ফলে সেতুর দুই পাড়ে মহাসড়কে যানচলাচলে ধীর গতি সৃষ্টি হচ্ছে। ঈদের আগে সেতুটি সংস্কার করা না হলে যানবাহনের চাপ সামাল দেয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, মুলিবাড়িতে ডিভাইডার, কড্ডায় ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ চলমান থাকায় এই দুটি স্থানে মহাসড়ক সরু হয়ে পড়ায় ধীর গতিতে যান চলাচল করতে হচ্ছে। নলকা সেতুতেও একই অবস্থা। যার ফলে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কে নিয়মিতভাবে যান চলাচলে ধীর গতি বা মাঝে মাঝে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। যানজট নিরসনে মুলিবাড়ি ও কড্ডায় আলাদা ডাইভারশন তৈরি করা হচ্ছে। বিকল্প এই ডাইভারশন ব্যাবহার শুরু হলে আলাদা আলাদা লেনে যান চলাচল করবে।

সিরাজগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আশরাফুল ইসলাম পিকে আরটিভি নিউজকে জানান, অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে নলকা সেতুর পিচ ঢালাই উঠে গেছে। এছাড়া পুরনো ডিজাইনের এই সেতুটির এক্সপানশন জয়েন্টের দূরত্বও একটু বেশি। যার ফলে যান চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে। বৃষ্টিপাত একটু কমলেই সেতুটির সংস্কার কাজ করা হবে।

জিএম

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS