Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮

খালগুলো দখলমুক্ত করতে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়ন জরুরি (ভিডিও)

ঢাকার খালগুলোকে দখলমুক্ত করতে ‘জিরো টলারেন্স নীতি’ বাস্তবায়ন জরুরি। প্রয়োজনে আইনি কাঠামোতেও আনতে হবে সংশোধন। এমনটাই বলছেন নগর পরিকল্পনাবিদরা। তাদের মতে রাজনৈতিক দৃঢ়তা থাকলে দখল-বাজরা নিজ থেকেই সরে যেতে বাধ্য হবেন। এদিকে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে খাল দখলমুক্ত করার কথা বললেন উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের খাল দখল ও জলাবদ্ধতার সমস্যা দীর্ঘ দিনের। বছরের পর বছর পার হলেও কর্তাব্যক্তিদের দেয়া প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন হয় কমই। বিপুল অর্থ খরচে বছরভরই চলতে থাকে কর্মযজ্ঞ।

জলাবদ্ধতার সমস্যা নিয়ে বাংলাদেশ ইনিস্টিটিউট অফ প্ল্যানার্স বিআইপির সাধারণ সম্পাদক ড. আদিল মুহাম্মদ খান বলেন, খাল দখল ও জলাবদ্ধতায় বাজেট বরাদ্দ বাড়লেও পরিপূর্ণ সুবিধা পায়নি নগরবাসী। তাই নগর সরকার বাস্তবায়ন এখন সময়ের দাবি।

একই সমস্যার বিষয়ে নগর পরিকল্পনাবিদ ইকবাল হাবিব বলেন, সমস্যা সমাধানে স্থানীয় জনগণ ও কাউন্সিলরদের সম্পৃক্ত করে উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনকে এক সঙ্গে পরিকল্পনা করতে হবে।

জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাওয়ার বিষয়ে উত্তর সিটি করপোরশেনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, খাল দখল দূষণ ও জলাবদ্ধতা দূর করতে ১০৩টি স্পটকে চিহ্নিত করে কাজ করা হচ্ছে।

এই সমস্যার সমাধান নিয়ে দক্ষিণের মেয়র শেখ ফজলে নুর তাপস বলেন, জলাবদ্ধতা ও দখলদার উচ্ছেদে স্বল্প মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে ১০৩ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে। আর বাসাবাড়ি ও দোকানপাটের ময়লা কোনও অবস্থাতেই ড্রেনে ফেলা যাবে না।

জিএম/এসএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS