logo
  • ঢাকা রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬

চটেছেন স্বস্তিকা

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি
|  ১৯ জুন ২০১৯, ১৮:৩৩ | আপডেট : ১৯ জুন ২০১৯, ১৯:৪২
স্বস্তিকা মুখার্জি - rtvonline
টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জি। একটা সময় বাণিজ্যিক ঘরানার ছবিতে নিয়মিত অভিনয় করেছেন। গেল কয়েক বছর ধরে ভিন্নধারার ছবিতে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন এই অভিনেত্রী।

সম্প্রতি ওয়েব সিরিজ ‘স্টোনম্যানস ডাইরি’তে কাজ করছিলেন স্বস্তিকা মুখার্জি। কলকাতায় শেষ হয়েছে ওয়েব সিরিজটির শুটিং। ১৮ জুন ১৯ জুন উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বারে ‘স্টোনম্যানস ডাইরি’র বাকি অংশের শুটিং হওয়ার কথা ছিল। আর সিরিজটি এসভিএফ-এর ডিজিট্যাল প্লার্টফর্ম ‘হইচই’-এ প্রচার হবে বলে জানা যায়।

হঠাৎ ওয়েব সিরিজটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘গ্রিন অ্যাপেল প্রোডাশন’র বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন তিনি। এমনকি প্রযোজনা সংস্থার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও অসহযোগিতার অভিযোগ এনেছেন স্বস্তিকা। শুধু তার একার সঙ্গেই নয়,  তার দুই সহকারী মেকআপ আর্টিস্ট ও হেয়ার আর্টিস্টকেও মিথ্যা আশ্বাস দেওয়ার অভিযোগ এনেছেন এই অভিনেত্রী।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, সমস্যাটা তৈরি হয়েছিল স্বস্তিকার ব্যক্তিগত মেকআপ ও হেয়ার আর্টিস্টকে নিয়ে। তাদের গিল্ডের কার্ড না থাকায় কলকাতার বাইরে কাজ করার ক্ষেত্রে সমস্যা তৈরি হয়েছিল। তবে অভিনেত্রীর অভিযোগ, সমস্যার সমাধানে গিল্ডের কাছে মিথ্যা কথা বলতে বলেছিলেন ওয়েব সিরিজিটির জন্য নিযুক্ত নির্বাহী প্রযোজক সৌরভ বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু তাই নয় রাজনৈতিক দলের নেতাদের সঙ্গে তার ভালো সম্পর্ক রয়েছে, এই আশ্বাস দিয়ে প্রথম থেকেই সমস্যা সমাধানের আশ্বাসও দিয়েছিলেন সৌরভ। এক্ষেত্রে  গিল্ডের চেয়ারম্যানের অনুমতি তিনি যোগাড় করবেন বলেও আশ্বাস দেন ওই নির্বাহী প্রযোজক। তবে এক্ষেত্রে তার কাছ থেকে লিখিত অনুমতিপত্র থাকলে তা দিতে অসমর্থ হন সৌরভ। সৌরভ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে হোয়াটস অ্যাপে কথোপকথনের স্ক্রিন শটও শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী।

স্বস্তিকার আরও অভিযোগ, শেষ মুহূর্তে তার ম্যানেজার প্রযোজনা সংস্থার কর্ণধার জা়রিন মিস্ত্রির কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে, তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন গিল্ডের কার্ড রয়েছে এমন হেয়ার ও মেকআপ আর্টিস্টকেই নিয়ে যাওয়া যাবে। তবে তার টিমের সদস্যদের ছাড়া কাজ করতে অস্বীকার করেন অভিনেত্রী।

অন্যদিকে স্বস্তিকা জানতে পারেন, তাকে না জানিয়ে তার বডি ডাবল নিয়ে কাজ মিটিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে প্রযোজনা সংস্থা। যদিও চুক্তিপত্র অনুযায়ী অভিনেত্রীর অনুমতি ছাড়া প্রযোজনা সংস্থা তার বডি ডাবল ব্যবহার করতে পারে না। যেখানে স্বস্তিকার আর অভিনেতা রজতাভ দত্তের সঙ্গে টানা ২৫ মিনিটের কথোপকথন রয়েছে, সেক্ষেত্রে বডি ডাবল ব্যবহার করা কীভাবে সম্ভব?

এদিকে শেষ মুহূর্তে এসভিএফ-এর পক্ষ থেকে জানানো হয় শুটিং-এর সময় কোনও টেকনিশিয়ানসকেই নিয়ে যাওয়া হচ্ছে না। এছাড়া ওই নির্বাহী প্রযোজককেও দায়িত্ব থেকে সরানো হয়েছে।

পুরো বিষয়টি নিয়ে আর্টিস্ট ফোরামের হস্তক্ষেপও প্রার্থনা করেছেন স্বস্তিকা।

জিএ/এম

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়