Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

নিজের প্রতি ভালোবাসা বেড়েছে দ্বিগুণ: বাঁধন

নিজের প্রতি ভালোবাসা বেড়েছে দ্বিগুণ: বাঁধন

কথায় আছে, কষ্ট করলে কেষ্ট মিলে, আর ধৈর্য ধরলে সফলতা আসবেই। শুধু টিকে থাকতে হবে সময়ের সঙ্গে। সেই সফলতা যদি হয় আন্তর্জাতিক মহলে সাড়া ফেলানোর মতো কোনও ঘটনা, তাহলে তো আর কোন কথাই নেই। বলছি অভিনেত্রী আজমেরি হক বাঁধনের কথা। যিনি সম্প্রতি কান চলচ্চিত্র উৎসবের একটি বিভাগে চলচ্চিত্র ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ নির্মিত এই চলচ্চিত্রটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন তিনি। ব্যাপক প্রশংসিত হয় কান উৎসবে ও সারা বাংলা ভাষাভাষি মানুষের কাছে। এছাড়াও সম্প্রতি কলকাতার ওয়েব সিরিজ করেও দর্শকদের নজর কেড়েছেন এই অভিনেত্রী। তার সমসাময়িক কাজ ও ব্যক্তি জীবন নিয়ে মুঠোফোনে কথা বলেছেন আরটিভি নিউজ এর সঙ্গে।

আরটিভি: কেমন যাচ্ছে দিনকাল?

বাঁধন: আলহামদুলিল্লাহ, ভালো যাচ্ছে। কারণ আমরা যে সিচুয়েশন এর মধ্য দিয়ে সময় পার করছি। গেল দেড় বছর ধরে খুব বাজে অবস্থা ছিল কোভিড এর কারণে। তাই পরিবার, পরিচিত জন সবার সুস্থতাই ছিল কাম্য। এখন এই অর্থে এখনও কোনও বড় ধরণের বিপদের মধ্যে পড়ি নাই। সেজন্য শুকরিয়া এবং এটা ভালো লাগার ব্যাপার আমার কাছে। সেই সঙ্গে অবশ্যই বলতে হচ্ছে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ চলচ্চিত্রটির এত বড় একটি সাফল্য আমাকে খুবই আনন্দিত করেছে।

আরটিভি: বলিউডের ‘খুফিয়া’ সিনেমার আসল ঘটনাটা কি?

বাঁধন: আসলে এই সিনেমাটি নিয়ে কিছু বলার মতো ঘটনা ঘটেনি। যদি আমার কোনও কাজের কথা বলার মতো কোনও জায়গাতে যায় তাহলে অবশ্যই আমি তা আপনাকে জানাবো। কিন্তু যা এখনও কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছায়নি, সেটা নিয়ে কিছু বলতে চাই না। সব চূড়ান্ত হলেই বলতে পারব।

আরটিভি: সাম্প্রতিক কাজ নিয়ে কিছু বলুন...

বাঁধন: সম্প্রতি রবির একটি বিজ্ঞাপনের শুটিং এ অংশ নিয়েছি। এর আগে নির্মাতা পিপলু ভাইয়ের বিজ্ঞাপনে অংশ নিয়েছিলাম। বিজ্ঞাপনটি ছিল ফেমিকনের। এছাড়া স্যামসাং এর একটি নতুন মোবাইলের বিজ্ঞাপনের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। তাছাড়া প্রমোশনাল আরও কিছু কাজের অফার আছে, কিন্তু তা করা হবে কিনা এখনও বলতে পারছি না।

আরটিভি: লন্ডনে ব্রিটিশ চলচ্চিত্র উৎসবে যাচ্ছেন?

বাঁধন: আমি যাচ্ছি কি-না তা এখনও বলতে পারছি না। তবে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ উৎসবের ডিবেট সেকশনে দেখানো হবে। আশা করি ভালো কিছুই ঘটবে।

আরটিভি: কান উৎসব থেকে বিশ্বের অন্যান্য আরও বেশ কয়েকটি দেশে মুক্তি পেয়েছে, পরবর্তীতে অন্য কোন দেশে মুক্তি পাবে চলচ্চিত্রটি?

বাঁধন: এটা আসলে চলচ্চিত্রটির টিম ম্যানেজমেন্ট কিংবা প্রডিউসার বলতে পারবেন। সম্ভাবনা তো আছেই।

আরটিভি: বাংলাদেশের সিনেমা হলে কবে মুক্তি পাবে ‘রেহানা মরিয়ম নূর?

বাঁধন: চলচ্চিত্রটির প্রডিউসার থেকে জানতে পারি যে, বাংলাদেশে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমা হলে অক্টোবরের শেষে কিংবা নভেম্বরের প্রথম দিকে মুক্তি পাওয়ার একটি সম্ভাবনা আছে। তবে তা নিশ্চিত নয়।

আরটিভি: বিজ্ঞাপনে তো বেশ সরব আপনি, নাটকে কি আর ফেরা হবে?

বাঁধন: টেলিভিশন নাটকে আসলে আগের মতো করে অভিনয় করা হবে কি-না তা এখনও বলতে পারছি না। আগ্রহ নেই নাটকে এমনটাও বলছি না। কিন্তু কাজের মানটা আসলে খুব জরুরি এখন আমার কাছে। যদি ভালো মানের নাটক হয় তাহলে করার সম্ভাবনা বেশি। তবে কাজের মানের জন্য যে কষ্ট অতীতে হয়েছিল কিংবা হবে, সেই কাজ গুলো থেকে বিরতি। আর যদি বলেন টাকার জন্য যদি কাজ করছি তাহলে সবচেয়ে ভালো অপশন হচ্ছে প্রমোশনাল কাজ অথবা বিজ্ঞাপন। তবে বিজ্ঞাপন, ওটিটির জন্য ওয়েব ফিল্ম কিংবা শর্ট ফ্লিম, ওয়েব সিরিজ এগুলো নিয়মিত করাতে আমিতো অবশ্যই আগ্রহী।

আরটিভি: নির্মাতা সৃজিতের নির্মাণে অভিনয় করেছেন। কেমন ছিল অভিজ্ঞতা?

বাঁধন: যদি অভিজ্ঞতার কথা বলেন তাহলে তো অবশ্যই ভালোই বলতে হচ্ছে। কারণ নির্মাতা হিসেবে উনি একজন গুনি নির্মাতা। সেই সুনাম তার রয়েছে। ওনার নির্মাণে যে ওয়েব সিরিজটিতে একটি মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে পেরেছি বা তিনি তার নির্মিত চরিত্রের জন্য আমাকে চিন্তা করেছেন, এটা আসলে আমার জন্য খুব ভালো একটি দিক। একজন নির্মাতা হিসেবে উনি খুবই আন্তরিক। আমি আমার অভিনয়ের জায়গা থেকে সততার সঙ্গে চেষ্টা করেছি। আর যদি বলেন পার্থক্যের কথা, তাহলে বলতে হচ্ছে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ এর মতো কাজ আর কখনও করতে পারবো কি না, তা আসলে আমার জানা নেই।

আরটিভি: নিজ দেশের ক্যামেরা আর অন্য দেশের ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছেন। কোন তফাত খুঁজে পান?

বাঁধন: তফাত বলতে খুব বেশি কিছু পাইনি। একই রকম মনে হয়েছে আমার কাছে। আসলে শিল্পমনা নির্মাতা কিংবা নির্মাণের জায়গা থেকে সবাই তার বেস্ট ট্রাই করে থাকেন। এমনটাই মনে হয়েছে দুই বাংলায় কাজ করে। তবে নির্মাতা সাদের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতাটা একটু ভিন্ন ছিল।

আরটিভি: ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কিছু বলুন...

বাঁধন: আমি আর আমার মেয়ে আছি ভালো। আর আপনি তো জানেন যে আমার বাবা-মায়ের বাসায় থাকি আমি। আমার বাবা-মা দুজনেই ভালো আছেন। এইতো এভাবেই চলছে। এখন আসলে নিজের উপরে ফোকাস করছি। নিজেকে ভালোবাসার চেষ্টা করছি। নিজের ব্যাপারে যত্ন নেওয়ারও চেষ্টা করছি। এটাই এখন বেশি কাজে দিচ্ছে। নিজেকে সময় দিতে চাচ্ছি। এইতো জীবন।

এসএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS