• ঢাকা শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
logo
নরসিংদীতে কাভার্ডভ্যানের চাপায় নিহত ১
নরসিংদীতে আ.লীগ নেতাকে হত্যা / ইউপি চেয়ারম্যানসহ ২২ জনের নামে মামলা
নরসিংদী সদর উপজেলার মেহেরপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল হাসান (৪০) হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলায় আসামি হিসেবে ইউপি চেয়ারম্যান আজাহার অমিত ও ইউপি সদস্য আতাউর ভূঁইয়াসহ ২২ জনের নামোল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়াও আরও ১০ থেকে ১২ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের ৪২ ঘণ্টা পর বৃহস্পতিবার (৩০ মে) সন্ধ্যায় নিহতের ছোট ভাই হাফিজ ইসলাম বাদী হয়ে মাধবদী থানায় মামলাটি করেন। এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুজ্জামান। তবে গ্রেপ্তারের স্বার্থে অন্য আসামিদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করতে রাজী হননি তিনি। এর আগে গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে ১২টার দিকে মেহেরপাড়া ইউনিয়নের ভগীরথপুর এলাকার একটি টেক্সটাইল মিলের সামনে মাহাবুবুল হাসানকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয়। এ সময় তাকে বাঁচাতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হন সঙ্গে থাকা সাঈদ হাসান (৩৮) ও ফরহাদ মিয়া (৩৭) নামের দুই কর্মী। নিহত মাহাবুবুল হাসান সদর উপজেলার মেহেরপাড়া ইউনিয়নের ভগীরথপুর এলাকার মো. ইমাম উদ্দীনের ছেলে।তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মেহেরপাড়া ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ছিলেন। এজাহার সূত্রে জানা গেছে, অন্যান্য দিনের মত গত মঙ্গলবারও বেশ রাত পর্যন্ত কর্মীদের নিয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ছিলেন মাহাবুবুল হাসান। পরে কার্যালয় থেকে বেরিয়ে মুঠোফোনে কথা বলতে বলতে কর্মীদের সঙ্গে হেঁটে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন তিনি। রাত পৌনে ১২টার দিকে ইউপি চেয়ারম্যান আজাহার অমিতের ব্যক্তিগত কার্যালয়সংলগ্ন ওবায়দুল্লাহ টেক্সটাইল মিলের সামনেই হামলার ঘটনা ঘটে। টেক্সটাইল মিলটির বিপরীত পাশের গলির মুখে দাঁড়ানো একটি বালুভর্তি ট্রাকের আড়ালে লুকিয়ে ছিলেন আসামিরা। ট্রাকটি অতিক্রম করার সময় তারা বেশ কয়েকটি ককটেল বিষ্ফোরণ ঘটায় ও গুলি ছুড়ে। হামলাকারীদের একজন ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাহাবুবুল হাসানের কান থেকে ঘাড় বরাবর কোপ দেয়। মাহাবুবুলকে বাঁচাতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হন সাঈদ ও ফরহাদ নামের তাঁর দুই কর্মী। পরে তাদের নরসিংদী সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে রাত সাড়ে ১২টার দিকে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক মাহাবুবুল হাসানকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, ধারালো অস্ত্রের কোপে মাহাবুবুলের বামপাশে কানের ওপর থেকে ঘাড় পর্যন্ত প্রায় ৮ ইঞ্চির মত গভীর ক্ষত হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পথে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণেই তিনি মারা যান। পরদিন ময়নাতদন্তের সময় চিকিৎসক তাঁর শরীরের বিভিন্ন জায়গায় পাঁচটি গুলির অস্তিত্ব পান। মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুজ্জামান জানান, নিহতের ছোটভাই হাফিজ ইসলাম ২২ জনের নামোল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ১০ থেকে ১২ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন। আগে আটক করা ৬ জনকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হবে। এজাহারভুক্ত সব আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।
নরসিংদীতে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে হত্যা, গুলিবিদ্ধ ১
ইটের স্তূপের নিচে চাপা পড়ে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু
নরসিংদীতে ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল, ভোগান্তিতে যাত্রীরা
নরসিংদীতে মালবাহী ট্রেনের চাকা লাইনচ্যুত
চমক দেখিয়ে ফের দেশসেরা নরসিংদীর নাছিমা কাদির মোল্লা হাইস্কুল 
এসএসসির ফলাফলে ধারাবাহিকভাবে সাফল্য ধরে রেখেছে নরসিংদীর নাছিমা কাদির মোল্লা হাইস্কুল অ্যান্ড হোমস। এ বছর প্রতিষ্ঠানটি থেকে ২৯৫ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ২৯৪ জন জিপিএ-৫ পেয়েছেন।  রোববার (১২ মে) বেলা ১১টায় অনলাইনে এসএসসির ফলাফল ঘোষণার পর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. ইমন হোসেন। প্রতিষ্ঠানটির ধারাবাহিক সাফল্যে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা আবদুল কাদির মোল্লা ও মিসেস নাছিমা মোল্লা।  এর আগে ২০২৩ সালে শতভাগ পাসসহ ৯৭ দশমিক ১২ শতাংশ জিপিএ-৫ ও ২০২২, ২০১৭ এবং ২০১৫ সালে শতভাগ পাসসহ শতভাগ জিপিএ-৫ পেয়ে দেশসেরা ফলাফল অর্জন করেছিল এই প্রতিষ্ঠানটি। বিদ্যালয়ের প্রশাসনিক বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নাছিমা কাদির মোল্লা হাইস্কুল অ্যান্ড হোমস ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে পিইসি, জেএসসি ও এসএসসিতে টানা শতভাগ পাসসহ ফলাফলের ভিত্তিতে প্রায় প্রতিবছরই বোর্ডে দেশসেরার স্থান দখল করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ২৯৫ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ২৯৪ শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছেন। বাকি একজন শিক্ষার্থী জিপিএ ৪ দশমিক ৯৪ পেয়েছেন। এর আগে ২০২৩ সালে ২৭৮ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ২৭০ জন জিপিএ-৫ পেয়েছিল। ২০২২ সালে ২৬৬ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ২৬৬ জনই জিপিএ-৫ পেয়েছিল। এ ছাড়া ২০২১ সালে ২৪৭ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ২৩৭ জন জিপিএ-৫ পেয়েছিল। ২০২০ সালে ২১৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ২০০ জন জিপিএ-৫ পেয়েছিল। ২০১৯ সালে ১৭১ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ১৬৮ জন জিপিএ-৫ পেয়েছিল। ২০১৮ সালে ১৩৯ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাসসহ ১৩৭ জন জিপিএ-৫ পেয়েছিল এবং ২০১৭ সালের এসএসসি পরীক্ষায় ১৬৪ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে সবাই জিপিএ-৫ পেয়েছিল। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পাওয়া কারিমা জামান রিনভী জানায়, ‘আমি স্কুলের হোস্টেলে থাকি নাই। কিন্তু কখনো মনে হয়নি আমি বাসায় রয়েছি। সর্বদা বিদ্যালয়ের শিক্ষক, গাইড শিক্ষকসহ সবাই তদারকির মধ্যে রেখেছে। আমার মা ও বাবা অনেক কষ্ট করেছে। জিপিএ-৫ পাওয়া সাদিয়া নওরীন প্রভা জানায়, এই ফলাফলের জন্য আমাদের বিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের নির্দেশনায় শিক্ষকদের অক্লান্ত পরিশ্রম, সঠিক দিক-নির্দেশনা, নিয়মিত ক্লাস, বিশেষ ক্লাস, গাইড টিচারের মাধ্যমে নিয়মিত হোম ভিজিট, টিউটেরিয়াল ও মাসিক পরীক্ষার কারণেই এই ভাল ফলাফল সম্ভব হয়েছে।’ জিপিএ-৫ পাওয়া আবিদ নূর জানায়, ‘স্যারদের কঠোর নজরদারিতে কোনো কোনো ক্ষেত্রে মনে হয়েছে আমার নয় শিক্ষকদের পরীক্ষা। প্রতিটা বিষয়ে যেখানে সমস্যা সেখানেই হাতেকলমে ধরে দিয়েছেন তারা। কৃতজ্ঞতা স্যারদের জন্য।’ নাছিমা কাদির মোল্লা হাইস্কুল অ্যান্ড হোমসের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও থার্মেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল কাদির মোল্লা বলেন, ‘আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি বরাবরই দেশসেরা ফলাফল করছে। এবারও প্রায় শতভাগ পাসসহ দেশসেরা ফলাফলের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছে। সারাদেশের সার্বিক ফলাফল বিশ্লেষণ করলে আশা করছি আমরা দেশসেরা অবস্থানে আছি। মূলত নরসিংদীর মতো মফস্বল শহরে মানসম্মত শিক্ষা প্রদানের অঙ্গীকার নিয়েই আমি ও আমার সহধর্মীণী নাসিমা বেগম স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করেছিলাম। আমি সবসময় চেয়েছি সুশিক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা মানব সম্পদে পরিণত হোক। যাতে আমাদের সমাজে সার্টিফিকেটধারী শিক্ষিত বেকার তৈরি না হয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘আজকের এই সাফল্য শুধু এই প্রতিষ্ঠানের একার না। এই সাফল্য পুরো নরসিংদীবাসীর। এরই লক্ষ্যে আমার পরিচালনাধীন মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশন শুধু আমাদের পরিচালনাধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নয়, জেলার প্রায় ৩১৫ টি স্কুল ও কলেজে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করনে সাধ্যমত কাজ করে যাচ্ছি।’ স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. ইমন হোসেন বলেন, ‘একটি বিদ্যালয়ের ভাল ফলাফলের মূলমন্ত্র হচ্ছে বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবদের মধ্যে সমন্বয়। আর আমাদের মূলমন্ত্র হচ্ছে আবদুল কাদির মোল্লা। স্যারের ইনোভেটিভ চিন্তা-চেতনা, সময়োপযোগী সঠিক দিক নির্দেশনায় আমরা এক ঝাঁক তরুণ শিক্ষকের অক্লান্ত পরিশ্রমে আমাদের এই ফলাফল অব্যাহত আছে।’ উল্লেখ্য, নরসিংদীতে মানসম্মত শিক্ষা দানের অঙ্গীকার নিয়ে ২০০৮ সালে শহরের ভেলানগর এলাকায় থার্মেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল কাদির মোল্লা নরসিংদীতে তার এবং তার স্ত্রী মিসেস নাছিমা বেগমের নামে যৌথভাবে নাছিমা কাদির মোল্লা হাইস্কুল অ্যান্ড হোমস প্রতিষ্ঠা করেন। বর্তমানে ১৭৩ জন তরুণ ও মেধাবী শিক্ষক-শিক্ষিকার সার্বিক তত্ত্বাবধানে স্কুলটি কঠোর শৃঙ্খলার মধ্যে দিয়ে পরিচালিত হয়ে আসছে। বর্তমানে স্কুলটির শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৫ হাজার ৬০০ জন।
নরসিংদীতে ভোটকেন্দ্র দখল নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৫
নরসিংদীর সদরের একটি ভোটকেন্দ্র দখল করা নিয়ে দুগ্রুপের সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়েছেন।  বুধবার (৮ মে) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার কাকশিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নাম জানা যায়নি। স্থানীয়রা জানান, আনারস প্রতীকের সমর্থক স্থানীয় যুবলীগ নেতা মনির মোল্লার সমর্থকরা কেন্দ্র দখল করতে গেলে বাধা দেয় কাপ পিরিচের সমর্থকরা। এতে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। এতে উভয়পক্ষের পাঁচজন আহত হয়।  প্রিজাইডিং অফিসার কাউছার আহমেদ জানান, দুপক্ষের সংঘর্ষের উত্তেজনার ফলে ৪০ মিনিট বন্ধ থাকে ভোটগ্রহণ। পরবর্তীতে পুনরায় চালু হয় কেন্দ্রটি। নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শামসুল আরেফিন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
নরসিংদীতে ইসতিসকার নামাজ আদায়
নরসিংদীতে বৃষ্টি কামনায় ইসতিসকার নামাজ আদায় করা হয়েছে। শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) জুমার পর শহরের নবাব বাড়ি ঈদগাহ মাঠে এ নামাজ আদায় করা হয়। নামাজে অংশগ্রহণকারীরা জানান, কয়েক দিন যাবৎ নরসিংদীসহ সারাদেশে তীব্র দাবদাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বৃষ্টি না হওয়ায় তীব্র গরমে কষ্ট ভোগ করছেন সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ। তীব্র গরম থেকে মুক্তি পেতে আল্লাহর সাহায্য চেয়ে এই নামাজ আদায় করেন স্থানীয় মুসল্লিরা। নামাজে ইমামতি করেন নরসিংদী বড় বাজার মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি রবিউল আলম। নামাজ শেষে খুতবা প্রদানের পর দুই হাত তুলে আল্লাহর কাছে দোয়া করা হয়।  এ সময় দোয়াতে মুসল্লিরা নিজেদের পাপের জন্য ক্ষমা চেয়ে রহমতের বৃষ্টি কামনা করেন।
মাধবদীতে হিটস্ট্রোকে এক যুবকের মৃত্যু
নরসিংদীর মাধবদীতে হিটস্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।  রোববার (২১ এপ্রিল) দুপুরে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।  নিহত সাফকাত জামিল ইবান (৩২) সদর উপজেলার মাধবদী থানার ভগীরথপুর এলাকার মৃত জাকারিয়া জামিলের ছেলে এবং শেখেরচর বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী ছিলেন। নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, স্ত্রী এবং তিন বছর বয়সী কন্যা সন্তানকে নিয়ে নারায়ণগঞ্জে তার নানা বাড়ি থেকে ঈদ পরবর্তীতে বেড়ানো শেষ করে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন ইবান। এ সময় তীব্র তাপদাহের ফলে হিটস্ট্রোকে আক্রান্ত হন তিনি। পরবর্তীতে বাড়ি ফিরেও অজ্ঞান এবং অতিরিক্ত ঘামে স্বস্তিবোধ করলে সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। নরসিংদী সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকলে অফিসার (আরএমও) ডা. মাহমুদুল কবির বাশার বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয় প্রচণ্ড রোদের মাঝে চলাফেরা এবং প্রচুর ঘামের ফলেই অজ্ঞান হয়ে যায় ইবান। তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়। পরিবারের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে প্রাথমিকভাবে হিটস্ট্রোক মনে হলেও তার মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয় করা যায়নি।
নরসিংদীতে প্রকাশ্যে ইউপি সদস্যকে গুলি ও গলা কেটে হত্যা 
নরসিংদীতে প্রকাশ্য দিবালোকে জনসম্মুখে এক ইউপি সদস্যকে গুলি ও গলা কেটে  হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।  সোমবার (১৫ এপ্রিল) দুপুর পৌনে ২টার দিকে নরসিংদী সদর উপজেলার আমদিয়া ইউনিয়নের পাকুড়িয়া বাজারে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।  নিহত মো. রুবেল আহম্মেদ ওরফে বডি রুবেল আমদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য। তিনি বৈয়ূম গ্রামের শাজাহান মিয়ার ছেলে।  স্থানীয়দের বরাতে পুলিশ জানায়, নরসিংদীর আমদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য নিহত রুবেল আহাম্মেদ ওরফে বডি রুবেল দুপুরে পাকুরিয়া বাজারে আসেন। কাজ শেষে পৌনে ২টার দিকে মোটরসাইকেলে করে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। ওই সময় প্রাইভেটকারে করে একদল দুর্বৃত্ত তাকে লক্ষ্য করে পরপর ৬ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর রুবেল মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে দুর্বৃত্তরা তার শরীরের ওপরে বসে গলাকেটে মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায়।   এ দিকে প্রকাশ্য দিবালোকে ইউপি সদস্যের হত্যাকাণ্ডের খবর ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাস্থলে শত শত মানুষ ভিড় করেন। হত্যাকাণ্ডের পর এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।  এলাকাবাসীর একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, গতবার আমদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নিহত রুবেল আহাম্মেদের সঙ্গে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ইমরুল। ওই সময় দু’প্রার্থীর মধ্যে একাধিকবার হামলা, মামলা ও বাড়িঘর ভাঙচুরের মতো ঘটনা ঘটে। ওই নির্বাচনে প্রভাব খাটিয়ে নিহত রুবেল বিজয়ী হন। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ইমরুলের সঙ্গে দ্বন্দ্ব আরও চরমে পৌঁছে।  এর জের ধরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে থাকতে পারে বলে মনে করেন স্থানীয় অনেক বাসিন্দা।   হত্যাকাণ্ডের ঘটনার সতত্যা নিশ্চিত করেছেন মাধবদী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ফজলে রাব্বি। তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডের খবর পেয়ে ইউপি সদস্যের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে তদন্ত করছে পুলিশ।
পিকআপচালকের ঘুষিতে প্রাণ গেলো ট্রাকচালকের
ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এক পিকআপভ্যান চালকের ঘুষিতে এক ট্রাকচালকের মৃত্যু হয়েছে।  সোমবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে নরসিংদীর সাহেপ্রতাব এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।  নিহত ট্রাকচালকের নাম মুনতাহার হোসেন (৪০)। তিনি কিশোরগঞ্জের সদর উপজেলার নিউটাউন এলাকার মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে।   স্থানীয়দের বরাতে পুলিশ জানায়, কিশোরগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা একটি বিস্কুটের কার্টনবাহী ট্রাক ঢাকা-সিলেট সিলেট মহাসড়কের সাহেপ্রতাব এলাকায় আসলে পেছন থেকে একটি পিকআপভ্যান ট্রাকটিকে ধাক্কা দেয়। এটি নিয়ে চালকের মধ্যে কথা-কাটাকাটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে পিকআপচালক গাড়ি থেকে নেমে ট্রাকচালক মুনতাহারের গলায় একটি ঘুষি দিলে সঙ্গে সঙ্গেই তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।  পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকা মেডিকেল কলেজ কলেজে পাঠান। কিন্তু হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তিনি মারা যান।  এ বিষয়ে নরসিংদী মডেল থানার ওসি তানভির আহমেদ জানান, ট্রাকচালকের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।