logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬

আমাকে সাহায্য করুন, ইমরানকে দানেশ

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৪:৩৭ | আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৪:৪৪
Danish Kaneria
ছবি- সংগৃহীত
সম্প্রতি পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়েব আখতার জানান, কেবল হিন্দু হওয়ার জন্য দেশটির ক্রিকেটার দানেশ কানেরিয়ার সঙ্গে খাবার খেতেন না দলের অন্য সদস্যরা। এমনকী জাতীয় দলের জন্য ভালো ক্রিকেট খেললেও যোগ্য সম্মান মেলেনি দানেশের। এমন বিস্ফোরক তথ্যের পর উত্তেজনা ছড়িয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেটে। এই ঘটনায় দোষী ক্রিকেটারদের অবশ্যই প্রকাশ্যে আনা উচিৎ। এমনটাই জানানো হয়েছে, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) পক্ষ থেকে। অন্যদিকে এই ইস্যু থেকে মুক্তি পেতে প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক ইমরান খানের সাহায্য চেয়েছেন খোদ দানেশ।
 
পিসিবির এক শীর্ষ কর্তা দেশটির সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, শোয়েব আখতার ও দানেশ কানেরিয়া দুইজনই অবসরপ্রাপ্ত ক্রিকেটার। পিসিবির সঙ্গে তাদের কোনও চুক্তি নেই। তারা যা ইচ্ছা বলতেই পারেন। তারা পাকিস্তান ক্রিকেটের সিস্টেম নয়, কয়েকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন।

ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাবেক অধিনায়কদের এই বিষয়ে মুখ খোলার বার্তা দিয়েছেন সেই দেশটির ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থার ওই মুখপাত্র।

২০০০ সালে প্রথমবারে মতো জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেন এই লেগ স্পিনার। সবশেষ পাকিস্তানের হয়ে খেলেছেন ২০১০ সালে।

পিসিবির ওই কর্তা বলেন, ‘কানেরিয়া যখন জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন তখন ইনজামাম উল হক, রশিদ লতিফ, ইউনিস খান, মোহম্মদ ইউসুফ পাকিস্তানের অধিনায়ক ছিলেন। আখতার বা কানেরিয়া যা বলছেন, তাতে এই সময়ের অধিনায়কদের মুখ খোলা উচিত। বোর্ড কেনো এর মধ্যে জড়াবে?’

বিষয়টি নিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে খোলা চিঠি লিখেছেন দানেশ। ৩৯ বছর বয়সী এই স্পিনার জানিয়েছেন, তার জীবন ভালো ভাবে কাটছে না। পাকিস্তান দলের অন্যান্য ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ মেটাতে যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে, সেক্ষেত্রে পুরোপুরি স্তব্ধ বলে জানিয়েছে তিনি।  

চিঠিতে তিনি বলেছেন, ‘পাকিস্তানের জাতীয় দলের হয়ে ক্রিকেট খেলতে পারাটা  আমার কাছে সম্মানজনক।’ 

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও দেশ-বিদেশের সাবেক ক্রিকেটার ও প্রশাসকদের কাছে সাহায্য চেয়েছেন তিনি। 

‘আমি এমন পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণ চাচ্ছি। পাকিস্তানের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানসহ দেশ ও বিদেশের সব কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও সংগঠকদের কাছে। এগিয়ে এসে আমাকে সাহায্য করুন।’ 

পাকিস্তানের হয়ে ৬১ টেস্টে ২৬১ উইকেট তুলেছেন তিনি। অন্যদিকে ১৮ ওয়ানডে খেলে ১৫ উইকেট সক্ষম হন তিনি। ২০১০ সালে ইংলিশ ঘরোয়া ক্রিকেটে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে পিসিবি দানেশকে আজীবন নিষিদ্ধ করে।

ওয়াই

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • খেলা এর সর্বশেষ
  • খেলা এর পাঠক প্রিয়