• ঢাকা বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৮ ফাল্গুন ১৪২৫

সালার লাশ সনাক্ত করলো ডোরসেট পুলিশ

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:২০ | আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:২৭
অবশেষে এমিলিয়ানো সালাকে পাওয়া গেল।বৃহস্পতিবার ডোরসেট পুলিশ বিমানের ধ্বংসাবশেষ থেকে উদ্ধার হওয়া লাশটি হতভাগ্য আর্জেন্টাইন ফুটবলারেরই বলে নিশ্চিত করেছে।

গত বুধবার ইংলিশ চ্যানেলের তলদেশে বিমানের ধ্বংসাবশেষের সন্ধান মেলে।সেখানে দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া উড়োজাহাজে একটা লাশও দেখতে পায় উদ্ধারকারী দল। সেটি তুলে আনা হয় জিও ওশান-৩ নামের একটি বোটে। এরপর লাশটি অ্যাম্বুল্যান্সে করে স্থানীয় ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের কাছে পাঠায় ডোরসেট পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার পুলিশের একজন মুখপাত্র জানান, শবদেহ বৃহস্পতিবার পোর্টল্যান্ড পোর্টে আনা হয়েছে।ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর নিশ্চিত হয়েছেন যে লাশটি নিখোঁজ আর্জেন্টাইন ফুটবলার সালার। সালা এবং পাইলট ডেভিড ইবটসনের পরিবারকে ইতোমধ্যেই এ বিষয়ে অবিহিত করা হয়েছে। ডোরসেট পুলিশের সহায়তায় সালার মৃত্যুর আনুসঙ্গিক কারণগুলো জানার চেষ্টা করবেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা।

এর আগে গত ৩ ফেব্রুয়ারি সালাকে বহনকারী দুই সিটের ওই প্লেনটির ধ্বংসাবশেষের খোঁজ পাওয়া যায়। এরপর সেই মুহূর্তের একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করা হয়। ওই ভিডিও দেখে অস্পষ্ট হলেও বোঝা যায়, প্লেনের ভেতরে একটি মরদেহের উপস্থিতি। প্রথমে নিশ্চিত না হলেও পরবর্তীতে সেটি সালার বলেই জানায় পুলিশ।

সালা নিখোঁজ হওয়ার পর থেকেই ফুটবল দুনিয়া শোকে মুহ্যমান। লাশ পাওয়ার খবরে সবাই যেন আরও বেশি শোকার্ত হয়ে ওঠেছে। সামাজিক যোগাযোগ আবেগঘন কথায় শোক প্রকাশ করেছেন বর্তমান ও সাবেক খেলোয়াড়রা। আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন ও কার্ডিফ সিটি নিজ নিজ বিবৃতির মাধ্যমে গভীর শোক প্রকাশ করেছে এবং দুঃসময়ে সালার পরিবারের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। 

গত ১৯ জানুয়ারি ক্লাবের ইতিহাসে রেকর্ড পরিমাণ অর্থ (১৫ মিলিয়ন পাউন্ড) খরচ করে ফরাসি ক্লাব নঁতে থেকে ২৮ বছর বয়সী সালাকে দলে নেয় ইংলিশ ক্লাব কার্ডিফ সিটি। 

২১ জানুয়ারি পিপার পিএ-৪৬ মালিবু নামের প্রাইভেট জেটে করে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭.১৫ মিনিটে কার্ডিফের উদ্দেশে উড়াল দেন সালা ও পাইলট ডেভিড ইবটসন। ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দেয়ার সময় প্রায় ৫ হাজার ফুট উচ্চতায় অবস্থানকালে রাত ৮.৫০ মিনিটে বিমানটি রাডার থেকে অদৃশ্য হয়ে যায়।  

টানা তিনদিন খোঁজাখুজির পরও সালা কিংবা বিমানের সন্ধান না পেয়ে ২৪ জানুয়ারি উদ্ধার কাজ বন্ধ ঘোষণা করে গুয়ের্নসি হারবর মাস্টার ক্যাপ্টেন ডেভিড বেকার। 

চারদিন পর অর্থাৎ ২৮ জানুয়ারি তহবিল গঠন করে বেসরকারিভাবে পুনরায় উদ্ধারকাজ চালু করে সালার পরিবার। এরপর ৩ ফেব্রুয়ারি চ্যানেলের তলদেশে বিমানের ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পায় উদ্ধারকারী দল।  

এএ/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়