Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

উইন্ডিজদের লজ্জায় ডুবিয়ে প্রতিশোধ ইংল্যান্ডের

ছবি- আইসিসি

২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ফাইনালের শেষ ওভারে কার্লোস ব্রেথওয়েটের ছক্কার ঝড় শুধু বেন স্টোকসের হৃদপিণ্ড থামিয়ে দেয়নি সেদিন, গোটা হতাশার সাগরে ভাসিয়েছিল ইংল্যান্ডকে। সেদিন ইংল্যান্ডকে হারিয়ে উইন্ডিজরা দ্বিতীয় বারের মতো শিরোপা জয় করে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের।

প্রায় চার বছর ধরে প্রতিশোধের আগুন জ্বলা ইংলিশরা চলতি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই পেয়ে যায় উইন্ডিজকে। পেয়েই যেন জ্বলে উঠে তেলে-বেগুনে।

দুবাইতে টস জিতে উইন্ডিজকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় ইংল্যান্ড। ব্যাট করতে নামার পরই ব্যাটারদের একের পর এক বিদায়ে দিশেহারা হয়ে পড়ে উইন্ডিজরা।

আদিল রশিদ আর তায়মাল মিলসের তোপে খেলতে পারেনি গোটা কুড়ি ওভারও। দলের পক্ষে ক্রিস গেইল খেলেন সর্বোচ্চ ১৩ রান। বাকিরা পার করতে পারেনি দশ রানের কোঠাও।

এতে দু’বারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ীরা অল-আউট হয়ে যায় ১৪.২ ওভারে মাত্র ৫৫ রানে। এদিন আদিল রশীদ একাই তুলে নেন ৪ উইকেট, ২.২ ওভারে ২ রান দিয়ে। এছাড়াও মঈন আলী ও তায়মাল মিলস নেন ২টি করে উইকেট।

উইন্ডিজদের টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বনিন্ম রান ৫৫। এর আগেও ইংল্যান্ডের কাছে ৪৫ রানে অল-আউট হয়ে যায়। যা টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে টেস্ট খেলা দেশগুলোর মধ্যে সর্বনিম্ন রান হয়ে আছে।

উইন্ডিজদের দ্বিতীয়বার সর্বনিম্ন রানে অল-আউটের লজ্জায় ডুবিয়ে জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড। এই অল্প রান তুলতেই যেন ইংলিশ ব্যাটারদের করুণ অবস্থা। ওপেনার জেসন রয় ১১ রান করে বিদায় নেন ৬ বছর পর দলে ফেরা রবি রামপালের বলে ক্যাচ দিয়ে।

এরপর জনি বেয়ারস্টো ৯, মঈন আলী ৩ ও লিয়াম লিভিংস্টন বিদায় নেন ১ রান করে। দলের এমন বিপর্যয়ে ওপেনার জস বাটলার একপাশ আগলে রেখে ২৪ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে জেতান দলকে।

ইংলিশরা ৫৫ রান টপকাতে ৮.২ ওভার খেললেও হারিয়ে ফেলে ৪টি উইকেট। আকিল হোসেন নেন ২টি, রামপাল নেন ১টি উইকেট।

এমআর/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS