Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

১৮ বছর আগের স্মৃতি ফিরিয়ে সাজঘরে শান্ত

ছবি- এসএলসি

নিজের নামের সার্থকতা প্রমান করেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। তার সাবলীল ব্যাটিং প্রায় দুই দিন আনন্দ দিয়েছে বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকদের।

শুরু যখন আছে, তখন শেষও আছে। শান্তরও তাই হলো। বাংলাদেশকে চূড়ায় পৌঁছে দিয়ে শান্ত থামলেন ১৬৩ রান করে।

পাল্লেকেলেতে প্রথম টেস্টে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ে নেমেই হারাতে হয় ওপেনার সাইফ হাসানকে। ব্যক্তিগত শূন্য রানেই সাজঘরে ফেরেন তামিম ইকবালের ওপেনিং সঙ্গী।

তবে শুরুর ধাক্কাটা তামিম-শান্ত মিলে সামলান ঠাণ্ডা মাথায়। তামিম পৌঁছে গিয়েছিলেন সেঞ্চুরির অনেক কাছে। কিন্তু হতে দেননি সাইফকে ফেরানো সেই বিশ্ব ফার্নান্দো। ৯০ রান করা তামিম স্লিপে ক্যাচ দিয়ে আক্ষেপ নিয়ে ফেরেন সাজঘরে।

প্রথম দিনের বাকিটা সময়ে মুমিনুল হককে নিয়ে অনায়াসে কাটিয়ে দেন শান্ত। দিন শেষ হয় শান্তর ১২৬ রানে অপরাজিত থেকে। মুমিনুলও ছিলেন ৬৪ রানে।

দ্বিতীয় দিনে প্রথম সেশনে দশ ওভার খেলে মুমিনুল-শান্ত মনে করিয়ে দেন ১৮ বছর আগে ২০০৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে পেশওয়ার টেস্টের কথা।

পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই টেস্টের শুরুতেই হান্নান সরকারের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় উইকেটে জাভেদ ও হাবিবুল বাশার খেলেন ৬০ ওভারের বেশি খেলে ১৬৭ রানের জুটি গড়েন। এই জুটি ভাঙে ৯৭ রান করে বাশারের বিদায়ে।

এরপর জাভেদ ও মোহাম্মদ আশরাফুলের জুটি ভাঙে ১২২ ওভার খেলে জাবেদ ওমরের ১১৯ রানে বিদায়ে। এবার শান্ত-মুমিনুলও পার করে দিয়েছে ২ উইকেটে একশ ওভার। দুজনে খেলেছেন প্রায় ৮৭ ওভার (৫১৪ বল)। এই জুটি থেকে এসেছে ২৪২ রান।

এমআর/

RTV Drama
RTVPLUS