logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮

ফিফার ফান্ড স্থগিত হয়নি, প্রতি মাসেই পেমেন্ট: সালাম মুর্শেদী

fifa, bff, rtv online
মঙ্গলবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন বাফুফের সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী ও সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ

আন্তর্জাতিক ফুটবল সংস্থা (ফিফা) থেকে কোনো ধরনের ফান্ড স্থগিত করা হয়নি উল্লেখ করে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) ফাইন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী বলেছেন জানিয়েছেন, প্রতি মাসে বাফুফেকে পেমেন্ট দেয়ার পরামর্শ দিয়েছে ফিফা কর্তারা।’

মঙ্গলবার দুপুরে ফিফার সঙ্গে বাফুফের ফাইন্যান্সিয়াল গর্ভনেন্স সম্পর্কিত এক ভার্চুয়াল সভা হয়।

সভায় ফিফার পক্ষ থেকে ফিফা মেম্বারস অ্যাসোসিয়েশন ডিপার্টমেন্ট, ফাইন্যান্স ডিপার্টমেন্ট এবং কমপ্লেয়ান্স ডিপার্টমেন্টের কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বাফুফের পক্ষে সিনিয়র সহ সভাপতি ও ফাইন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী ও সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ ও ফাইন্যান্স ডিপার্টমেন্টের কর্মকর্তারা যোগ দেন।

আব্দুস সালাম মুর্শেদী সাংবাদিকদের কাছে বলেন, ফিফা থেকে কোনো ধরনের ফান্ড স্থগিত করার কথা বলেনি। ওরা যখন এটা নিয়ে আলোচনা করেছে তখন শুধু বলার জন্য বলেছে। ট্রান্সপারেন্সির জন্য ফিফার কাছে সাময়িক একজন প্রতিনিধি চেয়েছে বাফুফে।’

ফাইন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘আজকের মিটিংয়ে আমি ব্যক্তিগতভাবে সন্তুষ্ট। তাদের ডিলিভারেশন, আমাদের কর্মকাণ্ড ও ফাইন্যানশিয়াল বিষয়গুলো দেখে ফিফার অডিট কমিটিও সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। আমাদের পেমেন্টগুলো প্রতি মাসেই দেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।’

স্বচ্ছতার অভাবে বাফুফেকে অনুদান দেয়া বন্ধ করেছে ফিফা। গণমাধ্যমে এমন সংবাদ প্রচার হয়।

বিষয়টি ব্যাখ্যা দিয়ে সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘কোভিডের কারণে বাফুফে ফরোয়ার্ড প্রোগ্রাম গুলো করতে পারেনি যে কারণে ফিফা থেকে ফান্ড ছাড় হয়নি। আমাদের মতো অনেক দেশই কোভিড ফান্ড পায়নি। কাজ শুরু বা শেষ না করলে তো আর ফান্ড ছাড় হবে না সেকারণেই আমরা সেটা নিতে পারেনি।

ফিফার সঙ্গে এই সভার বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়ে বাফুফের এই কর্তা বলেন, ‘আজকে আমরা সুযোগ পেয়েছি, সব সময় তো ফিফার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বসার সুযোগ হয় না এই কোভিড-নাইন্টিন। তাই আমি সুযোগটা নিয়েছি। বলেছি যে, আপনারা তো অনেক দেশকেই কোভিড ফান্ড দিয়েছেন আমরা এখনো পাইনি। তাই এটা নিয়ে তাড়া দিয়েছি।’

ফিনান্স সম্পর্কে আরও স্বচ্ছতা, নিরপেক্ষতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে ফিফার পক্ষ থেকে বাফুফেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে বলে জানান ফেডারেশনের সিনিয়র সহ সভাপতি।

‘গেল চার বছরের লেনদের প্রশংসা করা হয় ফিফা থেকে। অর্থাৎ আমাদের মোট পেমেন্টের ৯০% আমরা চেকের মধ্যে করেছি। যেমন, আমাদের স্যালারি, ইউটিলিটি, রেফারি পেমেন্ট সব চেকে হয়। স্পোর্টস সামগ্রীসহ, টিম ট্রাভেল সব টিকিট চেকে কাটা হয়। তবে এগুলো আরও নিশ্চিতকরণের জন্য আমাদের বলা হয়েছে।’

বিগত দিনে বাফুফের স্বচ্ছত্বা দেখে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনও (এএফসি) বাফুফের ওপর সন্তুষ্ট বলে জানান তিনি।

সাবেক এই তারকা ফুটবলার বলেন, ‘এএফসি আগে তিন মাস পর পর ফান্ড রিলিজ করতো। তারা আমাদের কর্মকাণ্ডে সন্তুষ্ট হয়ে বছরে দুইবার ফান্ড দিবে। বছরের শুরুতে ৭৫ শতাংশ দিবে। এই খরচের রিপোর্ট দেয়ার পর আরও ২৫ শতাংশ দিবে।’

ওয়াই

RTV Drama
RTVPLUS