logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

‘পাখির গ্রাম’ বেলগাছি (ভিডিও)

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ২৬ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৫৭ | আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:২৩

একদল স্বপ্নবাজ তরুণ, পাখির প্রতি যাদের ভালোবাসার গল্প ছড়িয়েছে সারাদেশে। যারা উন্মুক্ত প্রাকৃতিক পরিবেশে পাখিদের জন্য অভয়ারণ্য গড়ে তুলেছেন চুয়াডাঙ্গার বেলগাছি গ্রামে। ইতোমধ্যে গ্রামটি ‘পাখির গ্রাম’ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। জীববৈচিত্র ও প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় তাদের এ উদ্যোগ প্রশংসনীয় বলে মনে করেন পরিবেশবিদরা।

চুয়াডাঙ্গা শহর থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার পথ এগোলেই দেখা মিলবে পাখির কল-কাকলিতে মুখর বেলগাছি গ্রাম। এ গ্রামে প্রবেশ করতেই চোখে পড়বে ‘এসো পাখির বন্ধু হই’, ‘পাখি ও বণ্য প্রাণী শিকার নিষিদ্ধ’ সংবলিত সাইন বোর্ড। দোয়েল, কোয়েল, শ্যামা, টিয়া, ঘুঘু, ফিঙে, মাছরাঙা সহ রংবেরঙের সব পাখি ঘুরে বেড়াচ্ছে গ্রামজুড়ে।

২০০৮ সালের দিকে একদল যুবকের নজরে আসে গ্রামে কমছে পাখির সংখ্যা। তাই পশু-পাখির অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে তারা গঠন করেন ‘পাখির গ্রাম বেলগাছি’ নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। সড়কের দুই পাশে সব গাছে মাটির কলস আর বাড়ির কার্নিশে ঝুড়ি বেঁধে গড়ে তোলা হয় পাখিদের অভয়ারণ্য। তাদের এই উদ্যোগের ফলে এখন ঝাঁকে ঝাঁকে পাখিরা আসতে শুরু করে গ্রামটিতে।

পাখি ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে গ্রামের লোকজনও সহায়তা করেন। পাখির আনাগোনা বেশি থাকায় পোকামাকড় থেকেও রক্ষা পাচ্ছে মাঠের ফসল।
জীববৈচিত্র ও প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় যুবকদের এ উদ্যোগের প্রশংসা জানান বিশিষ্টজনরা।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. এ.এইচ.এম শামিমুজ্জামান, পরিবেশ রক্ষা আন্দোলন, চুয়াডাঙ্গা শাখার সভাপতি অধ্যাপক সিদ্দিকুর রহমান প্রশংসা করেন এই মহৎ উদ্যোগের। বেলগাছি গ্রামের যুবকদের এ ধরণের উদ্যোগ দেশের অন্যান্য যুবকদের অনুপ্রাণিত করবে বলে প্রত্যাশা গ্রামবাসীর।  

জিএ/এজে  

 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর সর্বশেষ
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর পাঠক প্রিয়