logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

হাঁসের খাবার পুঁটি এখন রপ্তানির উৎস

মোস্তফা কামাল, নড়াইল
|  ২৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:৩২ | আপডেট : ২৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১৬:২৬
নড়াইলে বিলের নানা প্রকারের পুঁটি মাছ দিয়ে চ্যাপা শুঁটকি তৈরির ধুম পড়েছে। জেলার ছোট-বড় ৫৭টি বিল থেকে পুঁটি মাছ সংগ্রহ করে এসব শুঁটকি তৈরি করা হচ্ছে।

একসময় এই পুটি মাছ হাঁস-মুরগির খাবার হিসেবে ব্যবহার করা হতো। এখন তা দিয়ে চ্যাপা শুঁটকি তৈরি করে দেশের চাহিদা মিটিয়ে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেও রপ্তানি করা হচ্ছে। এতে করে স্থানীয় মৎসজীবীরা যেমন মাছের দাম পাচ্ছেন বাড়ছে কর্মসংস্থানও।

গেল পাঁচ বছর ধরে জেলার শলুয়া, শিংগা, মির্জাপুর, কালনাসহ প্রায় অর্ধশতাধিক বিল এলাকায় এই শুঁটকি মাছ তৈরি করা হচ্ছে।  

নড়াইলে প্রায় ৫৭টি ছোট-বড় বিল রয়েছে। এসব বিলে অক্টোবর থেকে জানুয়ারি এই চার মাস পুঁটিসহ অন্যান্য ছোট মাছ ধরা পড়ে। আগে এসব মাছ মৎসজীবীরা বিক্রি করতে না পেরে হাঁস ও মুরগির খাবার হিসেবে ব্যবহার করতো। শুঁটকি তৈরি করায় এখন তা সম্পদে পরিণত হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, প্রথমে মৎস্যজীবী ও বিভিন্ন আড়ত থেকে ছোট-বড় নানা প্রকারের পুটি মাছ সংগ্রহ করা হয়। এরপর তা কেটে-ধুয়ে চাতালে কয়েক দফা শুকিয়ে বস্তায় ভর্তি করা হয়।  এরপর এখান থেকে কিনে নিয়ে যান বিভিন্ন এলাকার ব্যবসায়ীরা। পরে এসব পুঁটি মাছে পানি ও তৈল মিশ্রণ করে তৈরি করা হয় সুস্বাদু শুঁটকি।

নড়াইলের এসব চাতালে প্রায় আড়াই হাজার মণ শুঁটকি উৎপাদিত হয়। প্রতি মণ শুঁটকির দাম নয় হাজার টাকা।

নড়াইলের এসব শুঁটকি চ্যাপা তৈরির জন্য ময়মনসিংহ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লার দাউদকান্দি হয়ে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে যায়। এই কাজে নড়াইলের কয়েক হাজার জেলেসহ ব্যবসায়ী যুক্ত রয়েছেন। নভেম্বর থেকে শুরু এই শুঁটকি তৈরির কাজ ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত চলবে।

শুঁটকি ব্যবসায়ী আবু তালেব জানান, এ বছর বিলে পানি না থাকায় স্থানীয় বাজারগুলোতে পুঁটি মাছের সরবরাহ কম। ফলে ব্যবসা ভালো যাচ্ছে না।

শুঁটকি কারবারি রায়হান আলী অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় আড়ত থেকে নগদ টাকায় মাছ কিনতে হলেও ভারতের ব্যবসায়ীরা এ বছর পরে টাকা দিচ্ছে। এতে করে পুঁজিতে মার খাচ্ছেন তারা। তিনি এ ব্যাপারে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

নড়াইল জেলা মৎস্য অফিসের সহকারী পরিচালক হোসনে আরা হ্যাপী আরটিভি অনলাইনকে বলেন, স্বাস্থ্যসম্মত প্রক্রিয়া অবলম্বল করে শুঁটকি মাছ তৈরি করা হচ্ছে কিনা এ বিষয়ে দৃষ্টি রাখা হচ্ছে।

জেবি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়