Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৭ জানুয়ারি ২০২২, ৩ মাঘ ১৪২৮
discover

নেই লাইসেন্স, ভুয়া ডাক্তার আর নার্সরাই চালাচ্ছে হাসপাতাল (ভিডিও)

খোদ রাজধানীতেই যখন স্বাস্থ্যসেবার বেহাল দশা, তখন নগরীর উপকণ্ঠের অবস্থা কতটা নাজুক হতে পারে, তা চিন্তারও অতীত। বুড়িগঙ্গার পশ্চিমের জনপদ কেরানীগঞ্জে এমন কয়েক ডজন হাসপাতাল বা ক্লিনিক চলছে স্বাস্থ্য বিভাগকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে। বেশির ভাগেরই নেই লাইসেন্স, ভুয়া ডাক্তার আর নার্স দিয়েই চলছে হাসপাতালের নামে ব্যবসা।

কেরানীগঞ্জের আঁটিবাজারে চোখে পড়বে সারি সারি হাসপাতাল। এদের বেশির ভাগেরই নেই কোনো চিকিৎসক! ভুয়া চিকিৎসকের খপ্পরে পড়ে বেশ কয়েকজনের অঙ্গহানির ঘটনা ঘটেছে।

১৫ বছর চিকিৎসাসেবা নেওয়ার পর কেরানীগঞ্জের মানুষ জানলো, তিনি আসলে চিকিৎসকই নন। এরই মধ্যে বদল হয়েছে প্রতিষ্ঠানটির মালিকানা। তবে নতুন মালিকও ক্যামেরার সামনে আসতে নারাজ।

হাসপাতালটি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ না করতে সাংবাদিককে ম্যানেজ করার চেষ্টাও করেন ম্যানেজার শামীম।

এক্সরে টেবিল তো নয় যেন ডাইনিং টেবিল। জিঞ্জিরায় নিউরো অর্থপেডিকস অ্যান্ড পেইন সেন্টারে চলছে এমন তেলেসমাতি কারবার। অনুমোদন ছাড়াই চলছে ১ বছর ধরে। ব্যবসা অটুট রাখা হয়েছে স্থান পরিবর্তন করে।

ভুয়া ডাক্তার আর আয়াদের দিয়ে সিজার অপারেশনের অভিযোগে, বন্ধ করা হয়েছিল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালটি। পরে নাম পাল্টে হয়েছে কদমতলী হাসপাতাল। সাইনবোর্ডেও কৌশলে আগের নাম ঠিকই জুড়ে দেওয়া হয়েছে। এর মালিকও ক্যামেরার সামনে আসতে নারাজ।

বরিশালে এসএসসি পাস করে ঢাকায় এসে হয়ে গেছেন নার্স। বলছিলেন এমন অনেকেই আছে এই পেশায়।

জরুরি বিভাগ দেখে চমকে ওঠার দশা। অভিযোগ আছে ‘শুভ হাসপাতাল’-এর ম্যানেজারই করেন অস্ত্রোপচার। তবে অভিযোগ শুনে তেলেবেগুনে জ্বলে উঠেন মালিক আবু আলম।

তিনি বলেন, ‘এই রাস্তার ওপর নাকে খত দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকব। আমার ডাক্তার এখনও ডিউটিতে।’

ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অনেক অভিযোগ কেরানীগঞ্জের আল-বারাকা হাসপাতালের বিরুদ্ধে। স্বজন হারিয়ে বিক্ষুব্ধ স্বজনরা ভাঙচুর করে হাসপাতালটি। পরে মামলা মাথায় নিয়ে এলাকাছাড়া ওই পরিবার।

হাসপাতালটির স্টোররুমে চলে চিকিৎসাসেবা। অপারেশন থিয়েটারে সূর্যের আলো আসে ভাঙা চালা দিয়ে। নেই পরিচ্ছন্নতার বালাই।

ডব্লিউএস/এসএস/টিআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS