Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

যেখানে-সেখানে পড়ে থাকে কঙ্কাল, ফেলে রাখা হয়েছে হাড়গোড়

যেখানে-সেখানে পড়ে থাকে নরকঙ্কাল। একপাশে ফেলে রাখা হয়েছে হাড়গোড়। নিয়মিত ঘটছে কঙ্কাল চুরির ঘটনা। এমন নানান অনিয়ম চলছে রাজধানীর মিরপুর কালশী কবরস্থানে। কঙ্কাল চুরির সময় সম্প্রতি একজন ধরাও পড়েছে। তারপরও ব্যক্তি মালিকানায় থাকা এই কবরস্থানের শৃঙ্খলা ফেরানোর তেমন উদ্যোগ নেই।

মৃত ব্যক্তিকে যথাযথ প্রক্রিয়ায় সমাহিত ও রক্ষণাবেক্ষণের জায়গা কবরস্থান। অথচ, মৃত মানুষের হাড়গোড় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ে থাকে মিরপুর কালশী কবরস্থানে। কবরস্থানের একপ্রান্তে স্তূপ করে রাখা হয়েছে হাড়, পড়ে আছে কাফনের কাপড়।

গোরখোদকরা জানান, পুরাতন কবরের হাড্ডি তুলে পাশেই গর্ত করে সেখানে রাখা হয়। যদিও পরবর্তীতে এসব দেখার মতো কেউ থাকে না।

এই কবরস্থান থেকে কঙ্কাল চুরির ঘটনাও নতুন নয়। গত ৩০ সেপ্টেম্বর হাড়গোড় সরানোর সময় হান্নান মিয়া নামে এক ব্যক্তিকে হাতেনাতে ধরে ফেলে এলাকাবাসী। পরে তাকে হেফাজতে নেয় পুলিশ। সেই ঘটনার বিবরণ দেন প্রত্যক্ষদর্শী মোহাম্মদ জিসান।

জিসান জানান, অপরিচিত ব্যক্তিকে কবরস্থান থেকে ব্যাগ হতে বাহির হতে দেখে সন্দেহ করেই মূলত তাকে জেরা করা হয়। কঙ্কাল চোর বুঝতে পেরে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

তবে পরিচয় গোপন রেখে স্থানীয় কয়েকজন জানান, এই জিসানই কবরস্থানকেন্দ্রিক অপরাধ চক্রের সদস্য। কঙ্কাল চুরি ছাড়াও কবর জিয়ারত করতে আসা ব্যক্তিদের ভয় দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়।

কবরস্থানে এত অব্যবস্থাপনা থাকলেও দায় এড়াতে চায় মালিকপক্ষ। তবে একজন অন্যের ঘাড়ে দোষ চাপান।

কালশী কবরস্থানের সহসভাপতি মো. তাজউদ্দীন মাদবর অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, আসলেই চোর কোনদিক থেকে কঙ্কাল নেয়, তা তিনি জানেন না। তবে এ বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হবে।

পুলিশ জানায়, কঙ্কাল বিক্রি চক্রের সঙ্গে জড়িত অন্যদের ধরতে কাজ করছেন তারা।

পল্লবী থানার ওসি মো. পারভেজ ইসলাম জানায়, মূলত তান্ত্রিকদের জন্য এগুলো চুরি করা হয়। তবে এর বড় একটি অংশ সরবরাহ করা হয় বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোর কাছে।

নগর কর্তৃপক্ষের নিয়ম অনুযায়ী অন্তত দুই বছর পর একই কবরে দাফনের কথা থাকলেও, কালশী কবরস্থানে সেই নিয়মও মানা হয় না। ব্যক্তি মালিকানায় থাকায় নগর কর্তৃপক্ষেরও নজরদারি নেই। ফলে কালশী কবরস্থানের অনিয়ম-অব্যবস্থাপনার কাছে একরকম জিম্মি এলাকাবাসী।

ইজে/এসএস/টিআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS