logo
  • ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭

পাকিস্তানি গ্রুপ থেকে হ্যাক করা শিখেছে বাংলাদেশি কিশোর (ভিডিও)

The student has learned to hack from a Pakistani group
পাকিস্তানি গ্রুপ থেকে হ্যাক করা শিখেছে শিক্ষার্থী

বয়স ১৮ বছরের নিচে। পড়ালেখা করেন উচ্চমাধ্যমিকে। এই বয়সেই হ্যাক করতে পারে যে কারো ফেসবুক প্রোফাইল। বিশিষ্টজনদের আইডি হ্যাক করার পর ব্লাকমেইল করে হাতিয়ে নেয় লাখ লাখ টাকা। সংগীতশিল্পী ফাহিম ফয়সালের আইডি দেড় বছর হ্যাক করে রাখার পর অবশেষে ধরা পড়ে গোয়েন্দাদের জালে। পুলিশ বলেছে, পাকিস্তানি একটি গ্রুপ থেকে হ্যাক করা শিখেছে কিশোরটি।

দেশের একজন তরুণ সংগীতশিল্পী ফাহিম ফয়সাল। ফেসবুকে তার ফলোয়ার লাখের ওপরে। ২০১৯ সালে হঠাৎ তার ভেরিফাইড ফেসবুক আইডিটি হ্যাক হয়ে যায়। অনেক চেষ্টার পর ম্যাসেঞ্জারে যোগাযোগ করতে সক্ষম হন হ্যাকারের সঙ্গে। দাবি করে বড় অংকের টাকা। টাকা না দেয়ায় তার ফেসবুক পেইজে একের পর পোস্ট করা হয় আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও।

ফেসবুক আইডি হ্যাক হওয়ার বিষয়ে ফাহিম ফয়সাল বলেন, হ্যাকারকে বলেছি আমার আইডিটি ফেরত দিন। আমি তো আপনার কোনও ক্ষতি করিনি। কেন আমার আইডি হ্যাক করেছেন? কিন্তু একটি পর্যায়ে আমার কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করা হয়।

এরপর বাধ্য হয়ে ফাহিম সাহায্য চান গোয়েন্দা পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগে। আইডি হ্যাক হওয়ার দেড় বছর পর সেই হ্যাকারকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ। হ্যাকার কিশোর মোহাম্মদপুরের বিহারি ক্যাম্পের বাসিন্দা। ২০১৯ সালের মার্চ মাসে পাকিস্তানি একটি গ্রুপে জয়েন করে ফেসবুক হ্যাক করা শিখে। এরপর একে একে হ্যাক করেছে বহু মানুষের আইডি।

এ বিষয়ে ডিবির সাইবার এন্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের সহকারী কমিশনার (এসি) হাসান মোহাম্মদ মোহতারিম বলেন, পাকিস্তানি গ্রুপ থেকে হ্যাক করা শিখেছে হ্যাকার কিশোর। তারপর থেকে সে নিয়মিতভাবে আইডি হ্যাক করা শুরু করে। মূলত টাকার জন্যই এমন কাজ করে এই কিশোর। হ্যাকার কিশোরকে আটকের পর ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে শিল্পী ফাহিম ফয়সালের আইডিটি।

জিএম/পি

RTV Drama
RTVPLUS