logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭

৭৫৩টি দোকান থেকে ৬ লাখ টাকা করে নিয়েছে শাহাবুদ্দিন ও রতন (ভিডিও)

নকশা বহির্ভূত জায়গায় ৭৫৩টি দোকান বরাদ্দ দিয়ে দোকান প্রতি ছয় লাখ টাকা করে উৎকোচ নিয়েছেন যুবলীগের সাবেক নেতা শাহাবুদ্দিন এবং কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন রতন। এমন অভিযোগ করেছেন রাজধানীর গুলিস্তানের সুন্দরবন স্কয়ার সুপার মার্কেটের ব্যবসায়ী নেতারা। সিটি করপোরেশনের মার্কেটে নকশার বাইরে যারা দোকান বানিয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে ডিএসসিসি। 

রাজধানীর গুলিস্তানের সুন্দরবন স্কয়ার সুপার মার্কেট ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের খাতায় চারতলা। অথচ পাঁচতলায় তিনশ চারটি অবৈধ দোকান তৈরির প্রমাণ পেয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। এগুলো বরাদ্দ দিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন রতন এবং ওয়ার্ড যুবলীগের সাবেক সভাপতি শাহাবুদ্দিন কোটি কোটি টাকা লুটে নিয়েছেন।

বিষয়টি তৎকালীন মেয়রসহ বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ করেও কোনও প্রতিকার পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ করেছেন মার্কেটের প্রথম দোকান মালিক সমিতির নেতারা। 

সমিতির নেতারা বলেন, ফরিদ উদ্দিন রতন আর শাহাবুদ্দিন যোগসাজশে আমাদের সুন্দরবন স্কয়ার অবৈধভাবে দখল করে নেয়। সুন্দরবন মার্কেটে ৭৫৩টি দোকান নির্মাণ করা হয়েছে। আর প্রতিটি দোকান থেকে তারা ৬ লাখ টাকা করে নেয়। সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি এর সমাধান করে নাই। 

আরেকজন বলেন, সাজু আর সাহাবুদ্দিন সিটি করপোরেশনের অনুমতিহীন দোকান বিক্রি করেছে ১০ থেকে ১৫ লাখ টাকা করে। মার্কেটের ৫ম তলা সম্পূর্ণ অবৈধভাবে তোলা হয়েছে। এ চক্রটি সাঈদ খোকনের সঙ্গে সমঝোতা করে নিয়েছে। 

সুন্দরবন স্কয়ার মার্কেটের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মোরসেদ আলম বলেন, তদন্ত হোক আর সুষ্ঠু বিচার হোক। আমরা চাই এ মার্কেটে যাতে কোনও রাজনীতি প্রভাব যাতে না চলে। 

এ বিষয়ে কথা বলতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনকে ফোন দিলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

সুন্দরবন স্কয়ার সুপার মার্কেটটি নিজের এলাকায় না হওয়ায় কথা বলতে নারাজ ঢাকা দক্ষিণের ২০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন রতন।

ডিএসসিসি এর প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. রাসেল সাবরিন বলেন, সুন্দরবন মার্কেটের ৫ তলার সব দোকান ভেঙে ফেলা হয়েছে। আর তাদের বিরুদ্ধে আইনের ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে এবং এই মার্কেটেই পুনর্বাসন পেতে মেয়র ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়েছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা।

জিএম/এমকে  

RTV Drama
RTVPLUS