logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭

করোনা আপডেট

  •     গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু ৫০ জন, আক্রান্ত ১৯১৮ জন, সুস্থ হয়েছেন ১৯৫৫ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

কোনো নিয়মনীতি ছাড়াই চলছে ডিজিটাল ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট (ভিডিও)

আরটিণি নিউজ
|  ২৯ জুলাই ২০২০, ১৭:২২ | আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২০, ১৭:৩০
কোনো নিয়মনীতি ছাড়াই চলছে নেটফ্লিক্স, হইচই, বায়োস্কোপ, বিঞ্জের মতো দেশি-বিদেশি ডিজিটাল ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট। এদের নিয়ম কাঠামোর মধ্যে আনতে কাজ শুরু করেছে সরকার। এজন্য কমিটি গঠন করেছে তথ্য মন্ত্রণালয়। আরটিভি’র সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে তথ্যমন্ত্রী জানান, কমিটির প্রতিবেদন পেলেই নীতিমালা তৈরির কাজ শুরু হবে।

নেটফ্লিক্স, হইচই, অ্যামাজন প্রাইম, হটস্টার, জি-ফাইভ, আইফ্লিক্স, বায়েস্কোপ, বিঞ্জ, বাংলাফ্লিক্স, বঙ্গ’র মতো দেশি-বিদেশি ভিডিও স্ট্রিমিং সাইটগুলো অবাধে চলছে।এসব সাইট টাকা দিয়ে অথবা টাকা ছাড়া দেখা যায়। তবে ফ্রি সাইটগুলো বিজ্ঞাপনে ঠাসা আর খরচ করে দেখা সাইটগুলো রয়েছে বিজ্ঞাপন মুক্ত। সব বয়সীরা দেখতে পারলেও এসব সাইটে আপত্তিকর কনটেন্টও দেখানো হয়।

অন্যান্য দেশে নিয়মনীতির মধ্যে অনলাইনভিত্তিক ওটিটি সাইট চললেও বাংলাদেশে তার বালাই নেই। এতে যেমন রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার, তেমনি নিয়ন্ত্রণ না থাকায় আপত্তিকর দৃশ্যও দেখানো হচ্ছে। তবে দুয়ার বন্ধ না করে ওটিটি প্লাটফর্মগুলোকে নিয়মের মধ্যে আনতে চাচ্ছে সরকার।

তথ্যমন্ত্রী ডক্টর হাসান মাহমুদ জানান, যে প্লাটফর্ম ব্যবহার করে যে কন্টেনগুলো যাচ্ছে সেগুলো নিয়ম নীতি মানছে কিনা, সেগুলো আমাদের সংস্কৃতির সাথে সাংঘর্ষিক হচ্ছে কিনা, সেগুলো আমাদের নতুন প্রজন্ম বা সমাজের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলছে কিনা এটি একটি দিক। আরেকটি দিক হচ্ছে এই প্ল্যাটফর্ম করে যে ব্যবসা করা হচ্ছে সেটার জন্য সরকার কোনো ট্যাক্স পাচ্ছে না। সুতরাং পুরো বিষয়টিকে ক্ষতিয়ে একটি রিপোর্ট দেয়ার জন্য আমরা একটা কমিটি করে দিয়েছি।

গত ঈদে ওয়েব সিরিজ অগাস্ট ১৪, বুমেরাং ও সদরঘাটের টাইগার মুক্তি পায়। অশ্লীলতায় ঠাসা সিরিজগুলো নিয়ে সবমহলে সমালোচনার ঝড় ওঠে। তথ্য অধিদপ্তর গ্রামীণফোন ও রবিকে চিঠি দিয়ে এর ব্যাখ্যা চায়। চিঠির জবারে সন্তুষ্ট হতে না পেরে তাদের আবারও চিঠি দেয়া হয়েছে।  হাইকোর্টও বিতর্কিত ওয়েব সিরিজ বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী তানভীর আহমেদ বলেন, যে কনটেন্টগুলো অবৈধ অথবা যে কনটেন্টগুলো অশ্লীল সেগুলো বিটিআরসিকে এক সপ্তাহর মধ্যে সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সাথে সাথে বিটিআরসির বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম ও টিটি প্ল্যাটফর্ম থেকে কিভাবে তারা রেভিনিউ আর্ন করে এ সংক্রান্ত বিষয়ে তাদেরকে একটি রিপোর্ট পেশ করতে বলা হয়েছে আগামী এক মাসের মধ্যে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এগুলো যখন আমাদের নোটিশে আসে তখন   যে সমস্ত সার্ভিস প্রোভাইডার এগুলো প্রচার করছে তাদের কাছে আমরা ব্যাখ্যা চেয়েছিলাম, তবে তারা যে ব্যাখ্যা দিয়েছে তা অসম্পূর্ণ।

তথ্যমন্ত্রী আরও জানান, দেশীয় সংস্কৃতির সাথে সাংঘর্ষিক কোনও কনটেন্ট কেউ যেন প্রচার করতে না পারে সে বিষয়টি কঠোরভাবে নজরদারি করবে তথ্য মন্ত্রণালয়।  

এনএম/ এমকে

RTVPLUS
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ২৪৪০২০ ১৩৯২৫৩ ৩২৩৪
বিশ্ব ১৮২৫২২৭৫ ১১৪৫৫৭৮০ ৬৯৩১১৪
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর সর্বশেষ
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর পাঠক প্রিয়