logo
  • ঢাকা রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

বিপ্লব-বিদ্রোহের শঙ্কায় ছাত্রদের টিউশন ফি বাড়ানো যাচ্ছে না: জিনাত হুদা

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৮ জুন ২০১৯, ০৪:৩৬ | আপডেট : ২৮ জুন ২০১৯, ০৪:৪০
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক ও সিনেট সদস্য অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা
 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে উপাচার্য বা কোষাধ্যক্ষ যদি ২০ বা ৫০ টাকা ফি বাড়ান। তাহলেই আন্দোলন শুরু হয়ে যাবে। বিপ্লব-বিদ্রোহের শঙ্কায় টিউশন ফি বাড়ানো যাচ্ছে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক ও সিনেট সদস্য অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে সিনেট অধিবেশনে এসব কথা বলেন তিনি।

অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা বলেন, কেউ কেউ বলেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের র‌্যাংকিংয়ের কথা। এখানে ছাত্র প্রতিনিধিরা আছেন। কত টাকা টিউশন ফি দেন? কত টাকা টিউশন ফি দেন আপনারা? উন্নয়ন চান। কিন্তু কোথা থেকে টাকা আসবে?

তিনি বলেন, অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা বলেন, ২০০০ সালে আমি লন্ডনে পড়তে গিয়েছিলাম। তখন আট হাজার পাউন্ড টিউশন ফি দিয়েছি। এখন ষোল হাজার পাউন্ডও দিতে হয় কোথাও কোথাও। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা পঞ্চাশ থেকে একশ টাকা টিউশন ফি দেন। এভাবে উন্নয়ন সম্ভব নয় বলে দাবি করেন এই সিনেট সদস্য।

রোকেয়া হলের এই প্রাধ্যক্ষ বলেন, ৭ই মার্চ ভবন চমৎকার একটি ভবন। এই ভবনটি উদ্বোধনের পর ইচ্ছা ছিল কিছু টাকা-পয়সা বাড়িয়ে ইনকাম বাড়াবো। পারলাম কই? বিপ্লব হবে, বিদ্রোহ হবে। এসব করলে কোথা থেকে টাকা আসবে? আপনারা যে বলেন, আয় বাড়াতে হবে, কোথা থেকে ইনকাম জেনারেশন করবো?

রোকেয়া হল ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ভোট জালিয়াতির অভিযোগ প্রসঙ্গে অধ্যাপক জিনাত বলেন, রাতের পর রাত জেগে ডাকসু নির্বাচন সুষ্ঠু করেছি। তবুও তা কলঙ্কিত করার চেষ্টা করা হয়েছে। কলঙ্কিত করেছে কারা? যারা ত্রিশ বছর ডাকসু নির্বাচন দিতে পারেনি, তারা কলঙ্কিত করার চেষ্টা করেছে। যারা ভেবেছিল ডাকসু নির্বাচনের নামে ক্যাম্পাসে মার্ডার করবে, তাদের সে স্বপ্ন পূরণ হয়নি। নির্বাচন অবাধ এবং সুষ্ঠু হয়েছে।

এসজে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়