Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮

গৃহবধূর আত্মহত্যার ভিডিও করে অনলাইনে পোস্ট করলো শ্বশুরবাড়ির লোকজন!

In-laws allegedly shoot video of Muzaffarnagar woman's suicide post it online
সংগৃহীত

গৃহবধূ ওড়নায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেও তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেনি শ্বশুরবাড়ির লোকজন। উল্টো নিজেদের নিরপরাধ প্রমাণে বন্ধ দরজার পাশের জানলা দিয়ে সেই ঘটনার ভিডিও ধারণ করে তারা। এমনই ঘটনা ঘটেছে ভারত উত্তরপ্রদেশে।

২৫ বছর বয়সী এক গৃহবধূর শ্বশুর-শাশুড়ি এবং তার দেবরের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠেছে। ওই যুবতীর আত্মহত্যার পর তার বাবা-মায়ের অভিযোগ, যৌতুকের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরেই তাদের মেয়ের উপর অত্যাচার করছিল শ্বশুড়বাড়ির মানুষজন। এ ঘটনায় শ্বশুর-শাশুড়িকে গ্রেপ্তার করলেও যুবতীর স্বামী ও দেবর পলাতক।

পুলিশ জানিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরের বাসিন্দা কোমল তার স্বামী আশিস, আশিসের ভাই সচিন এবং শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে থাকতেন। এই আত্মহত্যার পর কোমলের বাবা অনিল কুমারের অভিযোগের ভিত্তিতে আশিস এবং সচিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, কোমলের আত্মহত্যার ঘটনা পুরোটাই ভিডিও করেছে তার শ্বশুরবাড়ির মানুষজন। এমনকি নিজেদের বাঁচাতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ভিডিও আপলোড করেন তারা। ভিডিওতে দেখা যায়, একটি নীল রঙের ওড়নায় গিঁট বাঁধছেন কোমল। এরপর শক্তপোক্ত হয়েছে কিনা, তা পরীক্ষা করে দেখছেন তিনি। তার পর ওই ফাঁসে ঝুলে পড়েন কোমল।

এসময় ভিডিওতে এক পুরুষকণ্ঠকে বলতে শোনা যায়, নিজে নিজেই ঝুলে পড়ছে। অনিলের অভিযোগ, ২০১৯ সালে কোমলের সঙ্গে আশিসের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য কোমলের উপর অত্যাচার করতো তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

তিনি বলেন, বিয়ের সময় ৫ লাখ রুপি এবং আশিসকে একটা মোটরবাইক দিয়েছিলাম। তবে খুশি হয়নি শ্বশুরবাড়ির লোকজন। পরে আরও টাকা দাবি করে তারা। এমনকি টাকা না দিলে আশিসকে অন্যত্র বিয়ে দেয়া হবে বলেও হুমকি দিয়েছিল কোমলের শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

RTV Drama
RTVPLUS