logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

দীপিকার নামে মামলা

বলিউড, অভিনেত্রী, দীপিকা পাড়ুকোন, মামলা, ছপাক
দীপিকা পাড়ুকোন
বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের নামে মামলা হয়েছে। চুরি করা স্ক্রিপ্টে নির্মিত হয়েছে তার নতুন ছবি। এজন্যই আটকে যাচ্ছে তার নতুন ছবি ‘ছপাক’র মুক্তি। ছবিটির প্রযোজক-অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন নিজেই এবং পরিচালক মেঘনা গুলজার।

মুক্তির দিন কয়েক আগে এক প্রযোজক ‘ছপাক’র চিত্রনাট্য চুরির দায়ে আদালতের দ্বারস্থ হন। মামলা করেন দীপিকা এবং মেঘনার বিরুদ্ধে। প্রযোজকের নাম রাকেশ ভারতী। তার অভিযোগ, ‘ছপাক’-এর স্ক্রিপ্ট তার লেখা। এমনকি অ্যাসিড আক্রান্ত যোদ্ধাদের নিয়ে ছবি তৈরির ভাবনাও তার নিজস্ব। চূড়ান্ত ভাবনার পর তিনি ছবির নামও রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন। আর তার ভাবনা চুরি করে নিয়েই কিনা ছবি বানালেন পরিচালক মেঘনা গুলজার এবং দীপিকা পাড়ুকোন! এভাবেই চিত্রনাট্য চুরির অভিযোগ তুলে সম্প্রতি মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে দীপিকা ও মেঘনার নামে রাকেশ স্বত্ত্বভঙ্গের অভিযোগ দায়ের করেছেন।

রাকেশের কথায়, ২০১৫ সালের মে মাসে 'ব্ল্যাক ডে' নামে একটি ছবি তারা রেজিস্ট্রেশনও করান। তার আরও দাবি, একাধিক অভিনেতার সঙ্গে এই ছবি নিয়ে কথা বলেছেন তিনি। তালিকায় রয়েছেন ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চন, কঙ্গনা রানাওয়াত এবং ফক্স স্টার স্টুডিয়োজের সঙ্গে কথা হয়েছে ছবি প্রযোজনার জন্য।

রাকেশ ভারতীয় জানিয়েছেন, ফক্স স্টার স্টুডিয়োজের অফিসে তার স্ক্রিপ্ট তিনি জমা করেছিলেন। এমনকি কা প্রোডাকশন এবং মৃগ ফিল্মসের সঙ্গেও কথা হয়েছিল। এরা অনেকেই ছবিটি তৈরির আগ্রহ দেখিয়েছিলেন। তার অভিযোগ, এখান থেকেই কেউ স্ক্রিপ্টে কিছু পরিবর্তন করে এটিকে 'ছাপাক' নামে বিক্রি করে দেয়। যদিও দীপিকা বা ছাপাকের টিমের কেউই এ নিয়ে এখনও কোনও মন্তব্য করেননি।

উল্লেখ্য, অ্যাসিড আক্রান্ত যোদ্ধা লক্ষ্মী আগারওয়ালের জীবনকাহিনী নিয়ে তৈরি হয়েছে ‘ছপাক’। মূল চরিত্রে মালতির ভূমিকায় অভিনয় করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। ছবিটির মুক্তির কথা ছিল ১০ জানুয়ারি।  

RTVPLUS