logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬

গোয়েন্দা জেরার মুখে ঋতুপর্ণা

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৯ জুলাই ২০১৯, ১৩:৪১ | আপডেট : ১৯ জুলাই ২০১৯, ১৩:৪৩
ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত
ভারতীয় বাংলা ছবির তুমুল জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত আলোচিত অর্থ কেলেঙ্কারির ঘটনা সারদা-রোজভ্যালি কাণ্ডে গোয়েন্দাদের জেরার মুখে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় সল্টলেকে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার দপ্তরে পৌঁছান তিনি।

bestelectronics
এর আগে ভারতের অর্থনৈতিক দুর্নীতি বিষয়ক তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সম্যান্ট ডিরেক্টোরিট (ইডি) তাকে জেরার জন্য চিঠি পাঠায়।

ইডি ভবনের প্রবেশের সময় অভিনেত্রী অপেক্ষমান সাংবাদিকদের জানান, গোয়েন্দারা তাকে ডেকেছেন। তিনি এও দাবি করেন, তাকে ব্যক্তিগতভাবে নয় প্রতিষ্ঠানকে ডাকা হয়েছে। সে কারণেই এসেছেন তিনি।

‘শ্বেতপাথরের থালা’র মাধ্যমে রূপালি পর্দায় ঋতুপর্ণার অভিষেক হয়। সেটি ১৯৯৫ সালে কথা। ছবিতে সহ-অভিনেত্রীর চরিত্রে কাজ করেন তিনি। প্রভাত রায়ের ছবিটি ওই বছর শ্রেষ্ঠ বাংলা ছবি হিসাবে জাতীয় পুরস্কার লাভ করে।

এরপর ‘সুজন সখী’, ‘নাগপঞ্চমী’, ‘মনের মানুষ’ ও ‘সংসার সংগ্রাম’ ছবির মাধ্যমে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন ঋতুপর্ণা।

ঋতুপর্ণ ঘোষের ‘দহন’ (১৯৯৭), ‘উৎসব’ (২০০০), অপর্ণা সেনের ‘পারমিতার একদিন’ (২০০০) ও বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের ‘মন্দ মেয়ের উপাখ্যান’ (২০০২) ছবিতে তার অভিনয় বোদ্ধা মহলের প্রশংসা অর্জন করে। এছাড়া ‘দহন’ ছবিতে ধর্ষণের শিকার এক নববিবাহিতার চরিত্রে অভিনয় করে ১৯৯৮ সালে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জাতীয় পুরস্কার অর্জন করেন।

বাংলাদেশে ‘সাগরিকা’, ‘স্বামী ছিনতাই’, ‘রাঙা বউ’, ‘একটি সিনেমার গল্প’সহ বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করেছেন ঋতুপর্ণা। 

এম/পি

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়