DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬

ব্যতিক্রমী আয়োজনে শিল্পী, সংগঠক আশরাফুল আলম পপলুর ৫০তম জন্মদিন পালন

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৭:১৫ | আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৭:১৯
দেখতে দেখতে ৫০ বছর পূর্ণ করলেন বাংলাদেশের রাজনীতি, সংস্কৃতি ও গণমাধ্যমের পরিচিত ও প্রিয়মুখ; শিল্পী, সংগঠক ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির চারুকলা বিভাগের পরিচালক আশরাফুল আলম পপলু। দল ও দেশের প্রতি নিবেদিত বিনয়ী এই সৃষ্টিশীল মানুষটির ৫০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার বিকেল ৪টা থেকে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির চিত্রশালা প্লাজার দোতলায় এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

চিত্রশালা প্লাজার সামনে প্রদীপ প্রজ্জ্বালন ও বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন দেশবরেণ্য চিত্রশিল্পী অধ্যাপক সমরজিৎ রায় চৌধুরী। এসময় ঢাক-ঢোল বাদনের সাথে সাথে শিল্পকলা প্রাঙ্গণে এক উৎসব মুখর পরিবেশ তৈরি হয়। এরপর চিত্রশালা প্লাজার দোতলায় মূল অনুষ্ঠানমঞ্চে আশরাফুল আলম পপলুর ৫০তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক চিত্রশিল্পী জামাল আহমেদ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে অনীক বসুর পরিচালনায় স্পন্দনের শিল্পীরা নৃত্য পরিবেশন করেন। এরপর তার প্রতিকৃতিতে অতিথিরা প্রতিস্বাক্ষর করেন। উদ্বোধক ও সভাপতিকে নিয়ে জন্মদিনের কেক কাটেন আশরাফুল আলম পপলু। শীতার্ত মানুষের হাতে তুলে দেন কম্বল। এরপর উৎসব উদযাপন পরিষদের পক্ষ থেকে উত্তরীয় পরিয়ে দেয়া হয় এবং অভিনন্দনপত্র পাঠ করেন ড. সিদ্ধার্থ দে সিধু। 

শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব শাবান মাহমুদ, দৈনিক সমকাল-এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি, বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদ-এর সাধারণ সম্পাদক কামাল পাশা চৌধুরী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. আহ্কাম উল্লাহ্, আইসিবির এমডি মো. মাহবুবুর রহমান, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক নাট্যজন লিয়াকত আলী লাকী প্রমুখ। ফুল দিয়ে শিল্পীকে শুভেচ্ছা জানায় বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদ, স্বাধীনতা চারুশিল্পী পরিষদ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা বিভাগ, ঢাকা আর্ট কলেজ, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চারুকলা অনুষদ শাখা, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক নেতৃবৃন্দ, সংগীত সরণি সংস্কৃতি চর্চাকেন্দ্রসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন। এছাড়া ব্যক্তিগত পর্যায়ে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানাতে ছুটে আসেন তার শুভানুধ্যায়ী ও শুভাকাঙ্খীরা।

স্মৃতিচারণ ও শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। এসময় আলোচকরা তার কর্মময় জীবনের নানা দিক তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে আর একটি বৈচিত্র্যময় আয়োজন ছিল মুড়ি-মুড়কি ও পিঠা-সিঙ্গারার সম্ভার। এছাড়া সংগীত, আবৃত্তি ও নৃত্য পরিবেশন করে রাত নয়টা পর্যন্ত শিল্পকলাপ্রাঙ্গণ মাতিয়ে রাখেন শিল্পীরা।

আরো পড়ুন:

এম/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়