Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

হয়রানিমূলক শিরোনামের শিকার হচ্ছেন তাহসান

হয়রানিমূলক শিরোনামের শিকার হচ্ছেন তাহসান
তাহসান খান

গেল ১০ মার্চ আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির ‘ফেইস অব ইভ্যালি' (শুভেচ্ছাদূত) ঘোষণা করা হয় দেশের জনপ্রিয় অভিনেতা ও গায়ক তাহসান খানকে। তিনি শুভেচ্ছা দূত হওয়ার পরের মাস থেকে প্রতিষ্ঠানটি বিতর্কিত কর্মকাণ্ড ও গ্রাহকের পণ্য সময়মতো পৌঁছে না দিতে পারায় তোপের মুখে পড়তে থাকে। সবদিক বিবেচনা করে মে মাসের মাঝামাঝি সময় ইভ্যালি থেকে স্বেচ্ছায় সরে যান তাহসান। এমনকি প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে যাবতীয় চুক্তি বাতিল করেন তিনি। তবে ইভ্যালি থেকে সরে দাঁড়িয়েও রেহাই পাচ্ছেন না এই তারকা। বিভিন্ন সময় নানান বিতর্কে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে তাকে।

গেল সোমবার (১১ অক্টোবর) রাজধানীর মালিবাগে সিআইডি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি ইমাম হোসেন জানান, 'ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করা কারও বিরুদ্ধে যদি গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণার প্রমাণ পাওয়া যায় তবে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

অতিরিক্ত ডিআইজি ইমাম হোসেনের এমন মন্তব্যের পর বিভিন্ন গণমাধ্যমে 'ইভ্যালি ইস্যুতে তাহসান-ফারিয়াকেও আইনের আওতায় আনা হতে পারে' এমন শিরোনামে খবর প্রকাশিত হয়েছে। সেদিন সেই সংবাদ সম্মেলনে ঠিক কী কথা হয়েছিল বা ইমাম হোসেন কী বলেছিলেন, সেটি স্পষ্ট জানতে আরটিভি নিউজের পক্ষ থেকে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।

অতিরিক্ত ডিআইজি ইমাম হোসেন আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, 'সংবাদ সম্মেলনে আমাকে বারবার জিজ্ঞাসা করা হচ্ছিল, তাহসান-ফারিয়ার সংশ্লিষ্টতা থাকলে তাদের ধরবেন কি না? এটা তো আমাদের খুব সাধারণ কথা, তদন্তে যদি কারও বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত হয় কিংবা যদি কারও সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়, তবে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অপরাধ প্রমাণিত না হওয়ার আগেই তো কারও বিরুদ্ধে কিছু করা যাবে না। নিরপরাধ কারও বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে না সিআইডি। নিরপরাধ কেউ যাতে কোনো প্রকার হেনস্তার শিকার না হয়, সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যথেষ্ট সতর্কতার সঙ্গে তদন্ত করছে সিআইডি।'

বিষয়টি নিয়ে তাহসানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি আরটিভি নিউজকে জানান, 'খ্যাতির জন্য মুখরোচক শিরোনাম আমাদের এক ধরনের আতঙ্কে পরিণত হয়েছে। সাংবাদিক ভাইদের কলমের ক্ষমতা আছে বলেই কি যা ইচ্ছা লিখবেন! বিষয়টা আমাদের জন্য বেশ বিব্রতকর এবং অপমানজনক।'

তিনি আরও জানান, 'ইমাম ভাইয়ের (অতিরিক্ত ডিআইজি ইমাম হোসেন) সঙ্গে আমার ফোনে কথা হয়েছে। তিনি বিষয়টিকে কীভাবে উপস্থাপন করেছেন, সেটি আমাকে জানিয়েছেন। আমাকে এবং আরও কয়েকজন পরিচিত মুখ নিয়ে বার বার প্রশ্ন করায় তিনি আমাদের বিষয় উত্থাপন করেন।'

আক্ষেপের সুরে এই তারকা জানান, 'আমি যে হয়রানিমূলক শিরোনামের শিকার হচ্ছি, এটা আমি তাদের বিরুদ্ধে বলতে পারছি না। বড় বড় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে তো আমি যুদ্ধে নামতে পারব না। আমার সেই ক্ষমতা নেই।’

এনএস/টিআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS