Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১২ জুন ২০২১, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

এবার ঈদে 'প্লিজ মাফ করবেন'

এবার ঈদে 'প্লিজ মাফ করবেন'

স্ত্রীকে নিয়ে তিন দিনের হানিমুনে কক্সবাজার গিয়েছেন নব-দম্পতি আব্দুর রহিম খান ওরফে এ আর খান এবং মৃদুলা। সেখানে একটি অভিজাত হোটেলে উঠেন তারা। এ আর খান একটু চাপাবাজ এবং সন্দেহপ্রবণ লোক। যখন তখন, যেখানে সেখানে বিকট শব্দ করে হাঁচি মারা তার মুদ্রা দোষ। এমন কি খাবার টেবিলে বসে হাঁচি মারতেও তিনি কুন্ঠাবোধ করেন না। এই হাঁচি রোগ নিয়ে তিনি গর্ব বোধ করেন। তার এই হাঁচি রোগ এবং চাপাবাজির কারণে প্রায়ই বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েন স্ত্রী মৃদুলা।

এদিকে কক্সবাজার একা বেড়াতে আসেন ভার্সিটি পড়ুয়া সুবর্ণা। হোটেল করিডোরে তার সঙ্গে মৃদুলার পরিচয় হয়। তাদের মধ্যে নাম ও নাম্বার বিনিময় হয়। একদিন এ আর খানের পাশে শুয়ে আছে মৃদুলা। এমন সময় তার মুখের উপর বিকট শব্দে হাঁচি মারে এ আর খান। নাকের ময়লা ছিটকে পরে তার চোখে মুখে। এ নিয়ে শুরু হয় তুমুল ঝগড়া। মৃদুলা তাকে ডাক্তার দেখাতে বললেই এটি তার খান বংশের ঐতিহ্য বলে জানায় এ আর খান। তাদের এমন কান্ডে পাশের রুমে উঠা গবেষণায় ব্যস্ত বিশিষ্ট কাঁকড়াবিদ রাতুল চৌধুরী ডিস্টার্ব ফিল করেন। এক পর্যায়ে বিরক্ত হয়ে তিনি 'প্লিজ মাফ করবেন’ বলে তাদের ঝগড়ায় ইন্টারআপ করেন। এতে ঘটে আরেক হাস্যকর বিপত্তি।

পরদিন সী বিচে আনমনে হাটছেন সুবর্ণা। হঠাৎ দেখেন ম্যাগনেফায়িং গ্লাস নিয়ে রাতুল লাল কাঁকড়া পরীক্ষা নিরীক্ষা করছেন আর খাতায় নোট করছেন। সুবর্ণা তার কাছে এগিয়ে যায়। তাকে দেখে রাতুলের ভালো লেগে যায়। এক পর্যায়ে তার সহকারী হিসাবে চাকরির জন্য সুবর্ণাকে প্রস্তাব দেয়। তিনি না বলার পরও নাছোড়বান্ধা রাতুল ফোন নাম্বার চায়। তখন সুবর্ণা ইচ্ছে করেই মৃদুলার নাম ও নাম্বার নিজের বলে চালিয়ে দেয়।

মাঝ রাতে মৃদুলার ফোনে আননোন নাম্বারের কল আসে। সন্দেহ হয় এ আর খানের। মৃদুলা রিসিভ করতে চায় না। এ আর খান তাকে লাউড দিয়ে রিসিভ করতে বলে। অপর প্রান্ত থেকে মৃদুলা ডাক শুনে কেঁপে উঠে সে। এ নিয়ে মাঝ রাতে শুরু হয় নতুন দ্বন্ধ। আবার খুনসুটি। মৃদুলা কিছুতেই বিশ্বাস করাতে পারে না যে ঐ লোকটি তার পরিচিত কেউ নয়। সবকিছু মিলিয়ে এই নব দম্পতির সুখের হানিমুন হয়ে উঠে দূর্বিষহ।

এদিকে পরদিন সকাল বেলা সী বিচে আবার রাতুল ও সুবর্ণার দেখা হয়। এক পর্যায়ে সুবর্ণা প্লিজ মাফ করবেন বলে অনুতপ্ত হয়ে সব সত্য বলে দেয়। ওরা দ্রুত হোটেল কক্ষের দিকে ছুটে আসে। এদিকে মৃদুলা তিনদিনের হানিমুনে এসে দুই দিনের মাথায় ঢাকায় ফেরার সিদ্ধান্ত নেয়। লাগেজ ট্রলি গুছিয়ে রুম থেকে বেরিয়ে যায়। এ আর খানও পিছু পিছু আসে। এই মুহুর্তে তাদের সামনে এসে দাঁড়ায় রাতুল ও সুবর্ণা। 'প্লিজ মাফ করবেন’ বলে সুবর্ণা তার ভুল শিকার করে। অবসান ঘটে সন্দেহের। আবার তারা রুমের দিকে মুভ করতেই এ আর খান সুবর্ণার মুখের উপর জোরে হাঁচি মেরে লজ্জা নিয়ে বলে- 'প্লিজ মাফ করবেন’। এরকম নানা হাস্যকর ঘটানার মধ্য দিয়েই যবনিকা ঘটে 'প্লিজ মাফ করবেন’ নাটকের।

সিফাত মোশাররফের রচনায় একক নাটকটি পরিচালনা করেছেন ফরিদুল হাসান। এতে এ আর খান চরিত্রে জাহিদ হাসান এবং তার স্ত্রী মৃদুলার চরিত্রে হাজির হবেন নাদিয়া। এছাড়াও সুবর্ণা চরিত্রে আইরিন তানি এবং রাতুল হিসেবে আরফান আহমেদ অভিনয় করেছেন। ঈদের তৃতীয় দিন রাত ১০টায় আরটিভিতে প্রচার হবে 'প্লিজ মাফ করবেন’।

এনএস

RTV Drama
RTVPLUS