logo
  • ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭

সুশান্তের সাবেক প্রেমিকা রিয়ার জিজ্ঞাসাবাদ শুরু 

  বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন

|  ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৬:২৫ | আপডেট : ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৬:৩১
Riya Chakraborty and Sushant Singh Rajput.
রিয়া চক্রবর্তী ও সুশান্ত সিং রাজপুত। ফাইল ছবি।
জিজ্ঞাসাবাদ পিছনোর আবেদন জানিয়েছিলেন প্রয়াত বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের সাবেক প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী। কয়েক দিন পর অবশেষে শুক্রবার জনসমক্ষে এসেছেন তিনি। নির্ধারিত সময়ে ইডির (এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট) দপ্তরে রিয়াকে জেরা করা শুরু হয়। সঙ্গে ছিলেন তার ভাই সৌহিক চক্রবর্তীও। কারণ রিয়া যদি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের দপ্তরে হাজির না হন, তাহলে তার বিরুদ্ধে হাজিরা দিতে অসমর্থ হওয়ার অভিযোগ দায়ের করা হবে বলে জানানো হয়েছিল। তাই একপ্রকার নিরুপায় হয়েই ই ভাইয়ের সঙ্গে ইডির দপ্তরে হাজির হন অভিনেত্রী। খবর সংবাদ প্রতিদিনের। 

অভিনেত্রীর আইনজীবী বলেছেন, রিয়া ভীষণ আইনকানুনের বাধ্য। তাই কথামতোই পৌঁছেছেন এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের দপ্তরে। রিয়া এবং তাঁর ভাই সৌহিকের পর ইডির দপ্তরে পৌঁছলেন শ্রুতি মোদিও।

সুশান্ত সিং রাজপুতের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে কোটি কোটি রুপি নয়ছয়ের অভিযোগ উঠেছে সাবেক প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে গত সপ্তাহে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল ইডি’র কাছে। এই রেশ ধরে ইডির দপ্তরে শুক্রবার যথা সময়ে হাজির হন রিয়া চক্রবর্তী। ভাই সৌভিক চক্রবর্তীও দিদির সঙ্গে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের অফিসে হাজির হন।

উল্লেখ্য, সুশান্ত সিং রাজপুতের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে ১৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন রিয়া চক্রবর্তী, অভিযোগ তুলে সম্প্রতি পাটনার রাজীব নগর থানায় এফআইআর দায়ের করেছিলেন অভিনেতার বাবা কৃষ্ণ কুমার সিং। সেই অভিযোগের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে নেমে গত শুক্রবার আর্থিক চুরির অভিযোগ দায়ের করেছিল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED)। সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে ‘সন্দেহজনক’ লেনদেনের জন্য আর্থিক কারচুপির অভিযোগ দায়ের করেছিল ইডি। এই বিষয়ে বিহার পুলিশের থেকে তথ্য চাওয়া হয়েছিল। ইডির সেই নির্দেশের পরই বিহার পুলিশের একটি দল কোটাক মাহিন্দ্রা ব্যাংকের বান্দ্রা শাখায় যায় সুশান্তের অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করতে। সেখানেই বেশ কিছু ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর পাওয়া যায়, যেগুলোর সঙ্গে সুশান্তের কোনওরকম যোগ ছিল না বলেই দাবি করেছেন তার বাবা কৃষ্ণ কুমার সিং। তারপরই লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়। তার প্রেক্ষিতেই এবার ইডির দপ্তরে কড়া জেরার মুখে রিয়া চক্রবর্তী এবং তার ভাই সৌহিক।

সুশান্তের তিনটি কোম্পানির আইনত অংশীদার রিয়া এবং তার ভাই। যদিও তাদের কেউই এই সংস্থা খোলার সময় মূলধন বিনিয়োগ করেননি বলে জানা যায়। উপরন্তু অভিনেতার পরিবারের কাছেও নাকি এই কোম্পানিগুলো সম্পর্কে কোনও তথ্যই ছিল না! রিয়াই নাকি সুশান্তকে জোর করে এই কোম্পানিগুলো খুলিয়েছিলেন বলেও অভিযোগ করেছেন সুশান্তের ঘনিষ্ঠরা। যাবতীয় বিষয়ে ইডির পক্ষ থেকে রিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানা যায়।

আরও পড়ুন: করোনায় আক্রান্ত রামেন্দু ও ফেরদৌসী মজুমদার দম্পতি

জিএ 

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৩৫৫৪৯৩ ২৬৫০৯২ ৫০৭২
বিশ্ব ৩,২১,৯৬,৬৫৫ ২,৩৭,৫১,১৩৪ ৯,৮৩,৬০৯
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বিনোদন এর সর্বশেষ
  • বিনোদন এর পাঠক প্রিয়