logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ৫ মাঘ ১৪২৭

চাঁদপুর প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১৭ নভেম্বর ২০২০, ১৯:০২
আপডেট : ১৭ নভেম্বর ২০২০, ১৯:১৮

বাবাকে মিনতি করেও কাজ না হওয়ায় পুলিশ ডাকলেন ছাত্রী

The student called, the police and stopped , rtv news
ছবি সংগৃহীত
চাঁদপুরে এবার নিজের বিয়ে নিজেই ঠেকালো এসএসসি পাস করা মেধাবী ছাত্রী হাবিবা আক্তার মুন্নী। নিজের চেষ্টায় বাল্যবিয়ে প্রতিহত করায় হাবিবা আক্তার মুন্নীকে অনেকে বাহ্বা দিয়েছেন। অনেক অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েদের সাহস যুগিয়েছে প্রতিবাদী হওয়ার।

চাঁদপুর জেলার কচুয়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এসএসসি পাস করা মেধাবী ছাত্রী হাবিবা আক্তার মুন্নীর বিয়ের তারিখ ছিলো গেলো ১৩ নভেম্বর শুক্রবার।

বাবা আব্দুল হামিদ মুন্নীর বিয়ের আয়োজন করেছেন। কিন্তু হাবিবা আক্তার মুন্নী বিয়েতে রাজি ছিল না। উপায়ন্তর না পেয়ে মুন্নী বেসরকারি সামাজিক সংগঠন চেতনা যুব নারী সংস্থার চেয়ারম্যান শাহিনুর রহমানকে মোবাইল ফোনে করে বিষয়টি অবগত করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন এলাকায় এসে বিয়ের আয়োজন বন্ধ করে দেয়।

চেতনা যুব নারী সংস্থার চেয়ারম্যান শাহিনুর রহমান জানান, স্কুলছাত্রী হাবিবা আক্তার মুন্নীর মোবাইল ফোন পেয়ে কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহিউদ্দিনকে বিষয়টি অবগত করি এবং তার সহযোগিতায় বিয়ের আয়োজন বন্ধ করি। মেয়ের মতের বিরুদ্ধে এ বিয়ের আয়োজন করে তার বাবা। তাছাড়া এটি একটি বাল্যবিয়ে ছিল।

কচুয়া থানার অফিসার ইনর্চাজ মো. মহিউদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ ফোর্স পাঠিয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়। কচুয়া উপজেলায় বাল্যবিয়ে রোধে পুলিশ প্রশাসন সবসময় কঠোর অবস্থানে রয়েছে।

জেবি/পি

RTV Drama
RTVPLUS