logo
  • ঢাকা রোববার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

কিশোরগঞ্জে স্বামী-স্ত্রী  ও সন্তানকে  হত্যার ঘটনায় মামলা

A case of murder, of husband, wife and child in Kishoreganj, rtv news
ছবি সংগৃহীত
কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলায় একই পরিবারের তিনজনকে হত্যার পর মাটিচাপা দিয়ে গুম করার ঘটনায় নয়জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।  কটিয়াদী মডেল থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এ জলিল  নয়জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করার বিষয়টি নিশ্চিত করে আরটিভি নিউজকে বলেন, নিহত আসাদ মিয়া ও পারভিন আক্তার দম্পতির মেজ ছেলে তোফাজ্জল হোসেন বাদী হয়ে কটিয়াদী থানায় হত্যা মামলাটি করেছেন। আসামিদের মধ্যে গেলো বৃহস্পতিবার রাতেই সন্দেহভাজন হিসেবে চারজনকে আটক করে পুলিশ। পরে তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

গ্রেপ্তার চারজন হলেন নিহত আসাদের ছোট ভাই দীন ইসলাম, মা জুমেলা বেগম, বোন নাজমা ও ভাগনে আল-আমিন। বাকি পাঁচ আসামিদের সবাই তাদের নিকটাত্মীয়।

তিনি  আরও জানান, এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন আসামি দীন ইসলাম। জমিজমা ও পারিবারিক বিরোধের জেরে এ নির্মম হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে দীন ইসলাম জানান, তিনি একাই শাবলের আঘাতে তিনজনকে হত্যা করে অন্যদের সহায়তায় মাটি চাপা দেন। পরে গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পুলিশ দীন ইসলামকে নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত শাবলটি উদ্ধার করে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে কটিয়াদীর বনগ্রাম ইউনিয়নের জমশাইট গ্রামে বাড়ির কাছেই মাটি চাপা দেওয়া অবস্থায় মো. আসাদ মিয়া (৫৫), তার স্ত্রী পারভিন আক্তার (৪৫) ও তাদের ছেলে লিয়নের (৮) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশের একটি দল। নিহতরা গত বুধবার থেকে নিখোঁজ ছিল।

নিহত আসাদ মিয়ার মোফাজ্জল (২৫) ও তোফাজ্জল (১৩) নামের আরও দুই ছেলে রয়েছে তার। তারা বাড়িতে না থাকায় প্রাণে বেঁচে যায় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, নিহত আসাদ, তার স্ত্রী পারভিন ও ছেলে লিয়ন গত বুধবার রাতে ঘুমিয়ে পরেছিল। পরে গতকাল সকালে মেজ ছেলে তোফাজ্জল নানাবাড়ি থেকে ফিরে নিজেদের বাড়িতে যায়। কিন্তু বাড়িতে মা-বাবা ও ছোট ভাইকে খুঁজে পায়নি সে। পরে আত্মীয়-স্বজনের কাছে জিজ্ঞেস করলেও কোনও সদুত্তর পায়নি।

পরে তোফাজ্জল পুলিশের কাছে বিষয়টি জানালে পুলিশ নিখোঁজদের সন্ধানে মাঠে নামে। এরপর রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাড়ির পেছনে একটি নির্জন স্থানের গর্ত থেকে একটি হাত দেখা গেলে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়।পরে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠান।

জেবি              

RTVPLUS