DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬

বিপিএল ফুটবলে তপুর গোলে শীর্ষে ঢাকা আবাহনী

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২০:০৯

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে জয়ের ধারা ধরে রেখেছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী। টিম বিজেএমসিকে হারিয়ে টানা তৃতীয় জয়ের দেখা পেয়েছে দলটি। আগের ম্যাচে দলটির জয়ে স্ট্রাইকারদের ভূমিকা থাকলেও এ ম্যাচে ভূমিকা ডিফেন্ডার তপু বর্মনের। কারণ তার করা একমাত্র গোলেই বিজেএমসিকে হারিয়েছে আবাহনী।

বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচে বিজেএমসিকে ১-০ গোলে হারায় আকাশি-নীল জার্সিধারীরা।
 
ম্যাচের শুরু থেকে আক্রমণে আধিপত্য করলেও গোল পাচ্ছিল না আবাহনী। সপ্তম মিনিটে কেরভেন্স ফিলস বেলফোর্ট ঠিকঠাক শট নিয়ে ব্যর্থ হওয়ার পর ছোট ডি-বক্সের ভেতর থেকে ক্রসবারের ওপর দিয়ে উড়িয়ে মারেন রুবেল মিয়া। 

অবশেষে ম্যাচের ২৭ মিনিটে তপুর গোলে এগিয়ে যায় ঢাকা আবাহনী। প্রায় মাঝমাঠ থেকে ওয়ালি ফয়সালের নেয়া ফ্রি কিক থেকে হেড করে বল জালে জড়িয়ে দেন তপু। এরপর অবশ্য আর গোলের মুখ খুলতে পারেনি কোনো দল।

গোলের পর তপু বর্মন যখন উদযাপনের জন্য পশ্চিম গ্যালারির দিকে ছুটলেন তখন তাকে ঘিরে উচ্ছ্বাস করলেন তিন ফরোয়ার্ড জীবন, সানডে ও বেলফোর্ট।

দ্বিতীয়ার্ধের নবম মিনিটে আব্দুল্লাহ আল মামুনের কর্নারে ক্যামেরুনের ডিফেন্ডার ফমবাগনে বেবেকের হেড অল্পের জন্য ক্রসবারের ওপর দিয়ে গেলে বিজেএমসির সমতায় ফেরার ভালো সুযোগটি নষ্ট হয়।

৫৮তম মিনিটে ডান দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা রুবেলের আড়াআড়ি ক্রসে নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে চিজোবা গোলমুখ থেকে হেড নিতে ব্যর্থ হলে ব্যবধান দ্বিগুণ হয়নি।

যোগ করা সময়ে জুয়েল রানার বাড়ানো বল ধরে গোলরক্ষককে একা পেয়েও তালগোল পাকিয়ে চিজোবা ব্যবধান দ্বিগুণ করতে ব্যর্থ হন।

৫ ম্যাচে টানা তিন জয় আবাহনীর। চ্যাম্পিয়নরা লিগ শুরু করেছিল নবাগত নোফেলকে হারিয়ে। পরের ম্যাচেই হেরে যায় আরেক নবাগত বসুন্ধরা কিংসের কাছে। তারপর আর পেছনে ফিরে তাকায়নি আকাশি-হলুদরা। ৪ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিল শাসন করছে ফেডারেশন কাপ চ্যাম্পিয়নরা।

দুই ম্যাচ কম খেলে ৯ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে বসুন্ধরা কিংস। একই পয়েন্ট নিয়ে এক ম্যাচ বেশি খেলে তিনে আরামবাগ। সমান পয়েন্ট নিয়ে চার অবস্থান করছে শেষ রাসেল। 

তবে ম্যাচ শেষে আবাহনীর ম্যানেজার সত্যজিত দাশ রুপু দলের পারফরম্যান্সে পুরোপুরি সন্তুষ্ট হতে পারেননি। তিনি বলেছেন, ‘সানডে-রুবেল মিয়া সহ অন্যরা যেভাবে গোল মিস করেছে, তাতে আমাদের আরও বড় ব্যবধানে জেতা উচিত ছিল। কিন্তু তা হয়নি।’

এএ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়