logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

নির্বাচনে মাশরাফি, ভালো-মন্দের হিসাব কষছেন শুভাকাঙ্ক্ষীরা

সুজয় কুমার বকসী, নড়াইল
|  ১১ নভেম্বর ২০১৮, ১১:১১ | আপডেট : ১১ নভেম্বর ২০১৮, ১১:২০
বাংলাদেশ ওয়ানডে ক্রিকেট দলের সফল অধিনায়ক নড়াইল এক্সপ্রেস মাশরাফি বিন মুর্তজা নড়াইল-২ আসনে নৌকার মাঝি হচ্ছেন এমন খবর ছড়িয়ে পড়েছে নড়াইলের সর্বত্র। মাশরাফি নির্বাচনে অংশ নিবেন এমন খবরে নড়াইলের সর্বত্রই ছিল আলোচনার ঝড়। নড়াইল এক্সপ্রেস নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিয়ে ভাল-মন্দ দু’ধরনের হিসাব কষছেন শুভাকাঙ্ক্ষীরা।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, আজ রোববার সকালে মাশরাফির পক্ষে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপত্র কেনা হবে। 

মাশরাফি বিন মুর্তজার নিকটাত্মীয়, লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ. কে. এম ফয়জুল হক রোম আরটিভি অনলাইনকে জানান, শনিবার দুপুর ১২টার দিকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মনোনয়ন সংগ্রহের ব্যাপারে মাশরাফিকে ফোন করেন এবং তার খোঁজখবর নেন। ওবায়দুল কাদের রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতিক্রমে প্রধানমন্ত্রীর ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে মনোনয়ন সংগ্রহের কথা বলেন।

ফয়জুলক হক রোম আরও জানান, মনোনয়ন সংগ্রহের ব্যাপারে মাশরাফির সম্মতি রয়েছে এবং তার পক্ষে রোববার মনোনয়ন সংগ্রহ করা হবে।

মাশরাফির মনোনয়নের খবরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক জুড়ে চলছে অধিনায়কের প্রতি অভিনন্দন বার্তা। অনেকেই তাদের মনের অনুভূতি প্রকাশ করে আশা পোষণ করছেন যে, দীর্ঘদিন ধরে উন্নয়ন বঞ্চিত নড়াইলের এবার উন্নয়নের হাল ধরবেন অধিনায়ক নড়াইল এক্সপ্রেস। 

মাশরাফি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে মন্ত্রিত্ব পেতে পারেন এ রকম আশা করছেন অনেকে। ক্রিকেটের মত তিনি নড়াইল জেলার অধিনায়ক হলে উন্নয়নের মাধ্যমে জেলা বাসীর দীর্ঘ দিনের বঞ্চনা দূর হবে।

নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নিলয় রায় বাধন বলেন, মাশরাফিকে নৌকার হাল ধরলে নড়াইল জেলার ভাগ্য খুলবে। জেলার কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন হবে। দলীয় মনোনয়ন কেনায় অধিনায়ক মাশরাফিকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করতে জোরালোভাবে কাজ করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এদিকে নড়াইল পৌর, উপজেলা এবং জেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ, সামাজিক-সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সাধারণ মানুষ মাশরাফির নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে অভিনন্দন জানিয়ে বলেছেন, মাশরাফি নির্বাচন করলে আমাদের বিশ্বাস তিনি এমপি এবং মন্ত্রী হবেন। ফলে অবহেলিত নড়াইলের সার্বিক উন্নয়ন সংঘটিত হবে।

নড়াইল পৌর মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর বিশ্বাস বলেন, মাশরাফি নড়াইলের গর্বিত সন্তান। তিনি এ আসন থেকে নির্বাচন করলে আওয়ামী লীগের সবাই তার পক্ষে থাকবে এবং জয় ছিনিয়ে আনবো।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস বলেন, আমি মনোনয়ন কেনার জন্য ঢাকায় যাচ্ছি। অন্যান্যরা যেহেতু মনোনয়ন কিনেছেন আমিও কিনবো। দলীয় ফোরামের একটি সিদ্ধান্ত ছিল দলের ত্যাগী নেতাদের মনোনয়ন দেয়া হবে, তারপরও নেত্রী যাকে ভালো মনে করবেন তাকে মনোনয়ন দিবেন। নৌকা যে পাবে আমরা তার পক্ষেই কাজ করবো।

এর আগে গত ৪ সেপ্টেম্বর উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক ভিডিও কনফারেন্সে মাশরাফিকে দেশের শ্রেষ্ঠ সম্পদ বলে আখ্যায়িত করেন এবং মাশরাফির জন্য দোয়া কামনা করেন। 

উল্লেখ্য, মাশরাফি ছোট বেলা থেকে খেলাধুলার পাশাপাশি গরিব ও সাধারণ মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা ও সাহায্য সহযোগিতা করে আসছেন। গত ২০১৭ সালের ৪ সেপ্টেম্বর থেকে মাশরাফির নেতৃত্বে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন নামে সম্পূর্ণ সেচ্ছাসেবী সংগঠন যাত্রা শুরু করে। ইতোমধ্যে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন সাধারণ ও দুস্থ মানুষকে আর্থিক সাহায্য, স্বাস্থ্য সেবা, কৃষি বীজ বিতরণ, সোলার বিতরণ, শিক্ষা, আইসিটি, খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক কার্যক্রম, পরিবেশসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কাজ করছে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, নড়াইল পৌরসভা, সদর উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন, লোহাগড়া পৌরসভা এবং লোহাগড়া উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত নড়াইল-২ আসন। এ আসনে বর্তমানে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ১৭ হাজার ৫১১ জন। পুরুষ ভোটার এক লাখ ৫৬ হাজার ৮৮৭ ও নারী ভোটার রয়েছে এক লাখ ৬০ হাজার ৬২৪ জন।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৩ ডিসেম্বর হবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

আরও পড়ুন :

এমসি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়