Mir cement
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮

রমজানে নিত্যপণ্যের দাম কমালো মালয়েশিয়া

Malaysia lowers daily commodity prices during Ramadan
সংগৃহীত

সিয়াম সাধনা ও সংযমের মাস পবিত্র রমজান উপলক্ষে মালয়েশিয়ায় বিভিন্ন পণ্যের ওপর ছাড় দিয়েছে পাইকারি ও খুচরা বিপনীবিতানগুলো। প্রতি বছরের মতো এবারও রমজান উপলক্ষে রাজধানী কুয়ালালামপুরের প্রায় সব বিপনীবিতানগুলোতে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম কমেছে।

তেল, চাল, আলু থেকে শুরু করে মাছ, মাংসের দামও কমানো হয়েছে। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে বর্তমান ও পূর্বের পণ্যের দামসহ ছাড়ের তালিকা প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ। টেসকো, জায়ান্ট, মাইডিন, এয়ন বিগ, এনএসকে’র মতো চেইন সুপারশপগুলো অনলাইনে রমজান উপলক্ষে ছাড়ের বিজ্ঞাপন প্রচার করছে নিয়মিত। শুধু নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস নয় পোশাক, প্রসাধনী থেকে শুরু করে অন্যান্য প্রায় সব জিনিসের উপরও মাসজুড়ে চলবে এ ছাড়।

মালয়েশিয়া প্রবাসী রাশেদ বাদল বলেন, সারা বছরই পণ্যের মান ও দাম নিয়ন্ত্রণে কাজ করে মালয়েশিয়া সরকার। তবে রমজানে বিশেষভাবে তা পর্যবেক্ষণ করা হয়। বিশেষ করে চাল, চিনি, ময়দা, তেলের মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম পর্যবেক্ষণে কঠোর নজরদারি রাখে সরকার। আর অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা এড়াতে সার্বক্ষণিক এগুলো দেখভাল করে সিটি কর্পোরেশন।

শুধু কুয়ালালামপুর নয় এ চিত্র পুরো মালয়েশিয়া জুড়ে। প্রায় দুই যুগ ধরে মালয়েশিয়ায় আছেন এস এম আহমেদ। সিঙ্গাপুর সীমান্তবর্তী জোহর প্রদেশে বসবাস করা আহমেদ বলেন, রমজান আসলেই মালয়েশিয়ার চিত্র পরিবর্তন হয়ে যায়। ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে রমজান পালন করতে ভালোবাসে মালয়েশিয়ানরা। জিনিসপত্রের দাম তো বাড়েই না বরং মাস জুড়ে থাকে ছাড়ের ছড়াছড়ি।

করোনা মহামারির মধ্যে অনলাইনের জনপ্রিয়তাও বেশ তুঙ্গে। রমজান উপলক্ষে লাজাডা, শপি’র মতো অনলাইনও দিচ্ছে বিশেষ ছাড়। এছাড়া পুরো রমজান মাস জুড়ে বিভিন্ন মসজিদে বিনামূল্যে ইফতারি ও খাবারের ব্যবস্থা রাখা হয়। যদিও করোনা মহামারির কারণে এ বছর সবাই মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় করতে পারবেন না।

বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারির মধ্যে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে দেশটিতে বিরতি দিয়ে লকডাউন চলছে। এই লকডাউনের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যবসা-বাণিজ্য খোলা রেখেছে মালয়েশিয়া সরকার। তবে বিধিনিষেধ রয়েছে পর্যটকদের মালয়েশিয়া প্রবেশের ক্ষেত্রে।

RTV Drama
RTVPLUS