logo
  • ঢাকা সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৬

করোনা আপডেট

  •     বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ৬৯ হাজার ৪৫৬ জন এবং আক্রান্তের ১২ লাখ ৭৩ হাজার ৭০৯ জন, সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ লাখ ৬২ হাজার ৪৮২ জন। সবচেয়ে বেশি মৃত্যু ইতালিতে ১৫ হাজার ৮৮৭, আক্রান্ত এক লাখ ২৮ হাজার ৯৩৮ জন, দ্বিতীয় অবস্থানে স্পেন। এখন পর্যন্ত মৃত্যু ১২ হাজার ৬৪১ জনের এবং আক্রান্ত ১ লাখ ৩১ হাজার ৬৪৬ জন: ওয়ার্ল্ডমিটার। ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৭২ জনসহ মোট আক্রান্ত ৩৩৭৪, মৃত্যু ১১ জনসহ বেড়ে ৭৯: স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে একদিনে রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত ১৮ জন, মৃত্যু ১, সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৫৫ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী। আক্রান্তের সংখ্যায় সবার উপরে যুক্তরাষ্ট্র যার সংখ্যা ৩ লাখ ৮ হাজার ৬০৮ জন, মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৩৯৭ জনের, বিশ্বব্যাপী মোট মৃত্যু ৬৪ হাজার ৬৬৭ জনের, সাড়ে ১২ লাখেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত: সিএএএন।

করোনার চিকিৎসায় ব্যবহৃত হবে ম্যালেরিয়ার ওষুধ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৪ মার্চ ২০২০, ১৭:১৯ | আপডেট : ২৪ মার্চ ২০২০, ১৭:৩৬
hydroxy chloroquine to be used for fight against covid-19
সংগৃহীত
কয়েকদিন আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছিলেন যে, করোনার চিকিত্‍‌সায় অত্যন্ত ভালো ফল দিচ্ছে অ্যান্টি-ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রোক্সি-ক্লোরোকুইন। এবার ভারতও সেই ওষুধেই ছাড়পত্র দিয়েছে। সুরক্ষামূলক পদক্ষেপ হিসেবে করোনাভাইরাস সংক্রমণের অতি-ঝুঁকিতে থাকা ব্যক্তিদের হাইড্রোক্সি-ক্লোরোকুইন দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

যারা ইতোমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের পরিবারের লোকজন ছাড়াও সংশ্লিষ্ট চিকিত্‍‌সক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের অ্যান্টি-ম্যালেরিয়ার এই ওষুধ দেয়ার পরামর্শ দিয়েছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ (আইসিএমআর)। তারপরও করোনাভাইরাসের জন্য গঠিত মেডিকেল টাস্কফোর্সের হুঁশিয়ারি, সংক্রমিত হওয়া এড়াতে এটাই যথেষ্ট নয়। সবাইকে সব প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। সংক্রমণ এড়াতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কথাও বলেছে মেডিকেল টাস্কফোর্স।

করোনা নিয়ে বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক অনুসন্ধান ও প্রি-মেডিকেল ডেটা বিশ্লেষণ করেই হাইড্রোক্সি-ক্লোরোকুইন ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে ন্যাশনাল টাস্কফোর্স। সংক্রমণের অতি ঝুঁকিতে থাকা লোকজনকে কতটা মাত্রায় অ্যান্টি-ম্যালেরিয়ার এই ওষুধ দেয়া হবে, সেটাও জানিয়ে দেয়া হয়েছে। ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া এই প্রস্তাবে সম্মতি দিলেও সতর্ক করে বলা হয়েছে, জরুরি পরিস্থিতি ছাড়া এই ওষুধ কেউ নিজের ইচ্ছেমতো ব্যবহার করতে পারবেন না।

এদিকে ইতোমধ্যেই করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় ম্যালেরিয়ার ওষুধ দেয়ার অনুমতি দিয়েছে জর্ডান। এখনও এই ভাইরাসের প্রতিষেধক ওষুধ তৈরি হয়নি। এমন পরিস্থিতিতে মানুষকে কিভাবে বাঁচানো সম্ভব তার জন্য প্রতিনিয়ত গবেষণা করে চলেছেন বিশ্বের বহু চিকিৎসক। 

তবে রোগীর সংখ্যা ক্রমশ বাড়তে থাকায় আমেরিকা ও ইউরোপের বিভিন্ন গবেষণার ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে জর্ডান সরকার। এমনকি পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত করতে সাধারণ ক্রেতারা যেন ওষুধ মজুদ করতে না পারে সে জন্য ওষুধ বিক্রি নিষিদ্ধ করা হয়েছে জর্ডানে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ : করোনাভাইরাস

আরও
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৮৮ ৩৩
বিশ্ব ১২৭৩৯৯০ ২৬০১৯৩ ৬৯৪১৯
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • স্বাস্থ্য এর সর্বশেষ
  • স্বাস্থ্য এর পাঠক প্রিয়