Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮

চুমুতে যে উপকারিতা রয়েছে

প্রতীকী ছবি

চুমু বা চুম্বন হলো ভালোবাসার প্রতীক। ক্ষেত্র বিশেষে এর মাধুর্য কখনো কখনো পরিবর্তনও হয়। ছোট-বড় পরিবারের যে কাউকে চুম্বন করা হলো আদর-স্নেহ ও ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ। আবার প্রেমিক যুগলদের ক্ষেত্রে কোমল ঠোঁটের আলতো ছোঁয়ার চুম্বন অনুভূতি সহজেই বলে দেয় যে- এর বিকল্প বোধহয় আর নেই।

২০০৬ সাল থেকে প্রতি বছর ৬ জুলাই দিনটিকে আন্তর্জাতিক চুম্বন দিবস হিসেবে পালন করা হয়। তবে আমেরিকায় প্রতি বছর ২২ জুন জাতীয় চুম্বন দিবস পালিত হয়। এছাড়াও ফেব্রুয়ারির ১৩ তারিখেও চুম্বন দিবস পালিত হয়।

বলা হয়ে থাকে- সঙ্গীর কাছে ভালোবাসা জাহির করার শ্রেষ্ঠ উপায় হলো চুম্বন। চুম্বন হলো সহজ ও সুন্দর রূপ। যা দুজনের মুখেই হাসি ফোটায় এবং একটি সম্পর্ককে মজবুত ও প্রাণবন্ত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এর ফলে শুধু শারীরিক স্বাস্থ্যের পক্ষেই উপকারী নয়, মানসিক স্বাস্থ্যের জন্যও অনেক কার্যকরী।

সঙ্গীকে যদি এক মিনিট চুম্বন করা হয় তাহলে ২৬ ক্যালোরি পর্যন্ত ঝরানো সম্ভব। প্রতিদিন যদি একবার করেও চুম্বন করা হয় তাহলে এটি আপনার বয়স বৃদ্ধি করবে বলে বিশ্বাস করা হয়। প্রতি ১০ সেকেন্ড গাঢ় চুম্বনের ফলে ৮০ মিলিয়ন ব্যাকটেরিয়ার আদান-প্রদান হয়। এছাড়া মুখের ভিতর প্রচুর পরিমাণে লালা নিঃসরণ হয়ে থাকে। ফলে মুখ পরিষ্কার করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে এবং দাঁতের ক্ষয়রোগ নিরাময়েও সহায়তা করে। দাঁতের স্বাস্থ্যের জন্যও অনেক কার্যকরী চুম্বন।

গবেষণায় দেখা গেছে, চুম্বন মানসিক চাপ কমায় এবং স্বাস্থ্য ভালো হতেও সহায়তা করে। গড়ে একজন ব্যক্তি যদি চুম্বনে ৩৩৬ ঘণ্টা ব্যয় করেন তাহলে আমাদের জীবনের দুই সপ্তাহের সমান।

একদল ব্রিটিশ গবেষকদের মতে, চুম্বনের সময় মানুষের মুখের ৩৪টি পেশি এবং ১১২টি পসট্রুয়াল পেশি সক্রিয় হয়। এতে ফেসিয়াল পালসি, মাসকুলার ডিসটোনিয়ার মতো সমস্যা থেকে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস পায়। সূত্র : নিউজ এইটটিন

এসআর/

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS