DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯, ৭ বৈশাখ ১৪২৬

এই সপ্তাহ আপনার কেমন যাবে

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৩ আগস্ট ২০১৮, ০৮:৩৩ | আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০১৮, ০৮:৪৪
মেষ (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)

মেষ রাশির জাতক-জাতিকারা হেঁটে চলাফেরা করতে পছন্দ করেন না। বৃষ্টিহীন দিনে ধুলো আর বৃষ্টিস্নাত দিনে কাদার ভয়ে। বেশির ভাগ সময় রিকশায় চলাফেরা করেন। এই সপ্তাহে আপনাদের জন্য আছে বিশেষ সুখবর। আর তা হলো আপনার যখন যেদিকে যাবেন আকাশ থাকবে মেঘমুক্ত আর মাটি থাকবে ধুলোবালি-কাদামুক্ত। তবে মেঘ ছাড়া যদি বৃষ্টি নামে, তবে কিছু বলার নেই।

বৃষ (২১ এপ্রিল-২১ মে)

বৃষদের নাকি বৃষ্টিতে ভিজতে খুব বেশি ভালো লাগে। কিন্তু যখন বৃষ্টি হয়, তখন বৃষ রাশিধারীরা এমন অবস্থায় থাকে যে বৃষ্টিতে ভিজতে পারে না। বৃষ্টির সময় ক্লাসে বা অফিসে বা বাসায় ঘুমিয়ে থাকে। সব মিলিয়ে বৃষ্টিতে আর ভেজা হয় না। আর অপেক্ষা নয়, এই সপ্তাহে কমপক্ষে তিনদিন বৃষ্টিতে ভিজতে পারবেন বৃষ রাশিধারীরা।

মিথুন (২২ মে-২১ জুন)

মিথুন রাশির জাতক-জাতিকারা নাকি মানুষ পটাতে পটু। অন্যরা বিষয়টা জানলে বা মানলেও তারা হাতে-কলমে বা কাগজে-কলমে কোনোভাবেই স্বীকার করতে চান না। তবে কথাটা সত্য। প্রমাণ মিলবে এই সপ্তাহেও। বাসে পাশে বসা যাত্রীর সঙ্গে দু-এক ঘণ্টার মধ্যে ভাব জমিয়ে ফেলবেন। ফোন নম্বর ও ফেসবুক আইডি পর্যন্ত জুটে যাবে। ঈর্ষায় জ্বলবে আর ফুলবে বন্ধুরা।

কর্কট (২২ জুন-২২ জুলাই)

কর্কট-‘কর্কটী’রা নাকি বরবটি পছন্দ করে না। খাওয়ার সময় এই তরকারি দিলে খাবার না খাওয়ার ঘটনা হরহামেশাই ঘটে। এই সপ্তাহে এর বিপরীত ঘটনাই ঘটবে। রান্না করা তো পরের কথা কাঁচা বরবটিই একের পর এক খেতে থাকবে তারা। সপ্তাহটি অবশ্য টেনশন আর প্রেশারেই পার করতে হবে কর্কট রাশিধারীদের।

সিংহ (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)

বনের রাজা যেমন সিংহ, তেমনি মনের রাজা সিংহ রাশির জাতক-জাতিকারা। কথায়-কাজে জড়সড় হয়ে থাকলেও বড় মনের অধিকারী তারা। এই সপ্তাহে একথার প্রমাণ মিলবে আবারও। অবশ্য অন্যরা খুশি হলেও খুব একটা খুশি হতে পারবেন না সিংহ-সিংহীরা। কেননা যেকোনো একটি সম্পর্ক ছিন্ন হবে তাদের। করতে হতে পারে বন্ধুর জন্য নিজের গার্লফ্রেন্ড বা বয়ফ্রেন্ডকে উৎসর্গ।

কন্যা (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)

পথের যেমন বাঁক আছে, তেমনি মানুষের জীবনেও আছে বাঁক। এটা স্বাভাবিক ব্যাপারও বটে। কিন্তু আপনার এই সপ্তাহ এতটাই বাঁকময় হবে যে আপনি বিরক্ত হয়ে যাবেন। যেমন ধরুন, যেকোনো কারণেই হোক সপ্তাহের বেশির ভাগ সময় আপনি থাকবেন নির্বাক। ছোটখাটো কারণেই হয়ে যাবেন অবাক। চলাচলের পথেও পাবেন ঘনঘন বাঁক।

তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)

তুলা রাশিধারীদের জন্য এই সপ্তাহ খুবই বিড়ম্বনার। একে তো কথা বলে কম তার ওপর হবেন বেশি বেশি জেরার সম্মুখীন। এদিকে চলছে লাইসেন্স বিহীন চালকদের ধরপাকড়। তুলা রাশির যাদের লাইসেন্স নেই, এই সপ্তাহে তাদের কোনও ঝামেলা হবে না। কারণ তুলা রাশির বেশির ভাগ চালকই লাইসেন্স সঙ্গে রাখে আর যাদের নেই তারা গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বেরই হয় না। একটু ভীতু তো, তাই!

বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)

বৃশ্চিকরা ঠিক ঠিক কোনও কাজ করতে পারে না। আগে না জানা থাকলে জেনে নিন। আর কোনও কাজ একা তো করতেই পারে না। কিছু একটা করতে গেলেই আশেপাশে কেউ আছে কিনা দেখে। যেভাবেই হোক কাউকে না কাউকে ধরে তার কাজে লাগাবেনই। যদি এমনও হয় একা পুরো কাজটি করে ফেলেছেন, তবে কেমন হলো তা জানান জন্য অবশ্যই লোক ডাকাডাকি করবেই।

ধনু (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)

ধনু রাশির যারা সিগারেট টানে এই সপ্তাহে, সিগারেটের আগুনে তাদের পরনের কাপড় পুড়ে যাবে। অন্যদিকে যারা পান খায়, তাদের পানের পিক পড়বে। চা-পায়ীদের চা পড়বে কাপড়ে। মানুষের মাঝে একটা অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে পড়তে হবে। একথা নারী-পুরুষ উভয়ের জন্যই প্রযোজ্য। অবাক করা বিষয় হলো, এই সপ্তাহে ধনুদের মনোযোগ ফেসবুকের চেয়ে টেক্সটবুকে বেশি থাকবে।

মকর (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)

মকর রাশিধারী ছাত্রছাত্রীদের জন্য এই সপ্তাহ সবচেয়ে বেশি আনন্দের। কারণ ছাত্রলীগের নতুন কমিটিতে পদ পাওয়ার আশ্বাস পাবেন মকর রাশিধারীরা। খাজাবাবার দরবার থেকে যেমন কেউ খালি হাতে ফেরে না, তেমনি স্বাধীনতার পক্ষের কোনও মকর রাশিধীরই নিরাশ হবেন না। কারণ ছাত্রলীগের কর্মী বা সমর্থকদের কম ‘দায়িত্ব’ না।

কুম্ভ (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

এতদিনে একটা কাজের কাজ করবে এই সপ্তাহে কুম্ভ রাশির জাতক-জাতিকরা। বাবা-মা’র কথা না শোনার বদনাম আছে তাদের বিরুদ্ধে। কিন্তু এই বদনাম এই সপ্তাহে ঘুচে যাবে তাদের। এই সপ্তাহের কোনও একদিনে বাসার বড়দের সবকথা শুনে তাদেরকে অবাক করে দেবে। অবশ্য এসব করবে বাসার লোকজন নয়, গার্লফ্রেন্ড বা স্ত্রীকে খুশি করার জন্য। কথাগুলো বেয়াড়া মেয়ে ও বউদের জন্যও প্রযোজ্য।

মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

মিনমিন করে থাকলেও ভালোবাসার ব্যাপারে চুপ থাকে না মীন রাশির ছেলেমেয়েরা। এই সপ্তাহে ডেটিংয়ের সময় তাদেরকে দেখে ফেলবে বাসার কেউ। অনেক আজেবাজে কথাও বলবে মনের মানুষের নামে। এতদিন যে কিনা বাসার সব ব্যাপারেই মিনমিন করে এসেছে, সেই কিনা এবার প্রতিবাদ করবে পরিবারের লোকজনের কথার। এমনকি বাসাবাড়ি ছাড়ার হুমকিও দেবে!

কে/কেএইচ/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়