logo
  • ঢাকা সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭

ক্যানসার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে লেবুর খোসা

ছবি: সংগৃহীত

ভিটামিন-সি এর বৃহৎ উৎস হচ্ছে লেবু। যেকোনো রোগ প্রতিরোধে ভিটামিন-সি অনেক উপকারী হয়ে থাকে। লেবুর রস ছাড়াও কাঁচা লেবুর খোসাতেও অনেক পরিমাণ ভিটামিন-সি রয়েছে। লেবু এবং লেবুর রস বিভিন্ন উপকারে আসে। লেবুতে ভিটামিন, ক্যালসিয়াম, ফাইবার, পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং বিটা ক্যারোটিন উপাদান রয়েছে। নানা উপাদানে সমৃদ্ধ লেবু খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-

* পুষ্টি সরবরাহ : বিভিন্ন উপাদানে সমৃদ্ধ লেবুর রসের থেকে খোসা প্রায় ৫ থেকে ১০ গুণ বেশি পুষ্টি সরবরাহ করতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে প্রায় ১০০ গ্রাম লেবুর খোসায় রয়েছে ১৩৪ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ১৬০ মিলিগ্রাম পটাসিয়াম, ১২৯ মিলিগ্রাম ভিটামিন-সি এবং ১০.৬ গ্রাম ফাইবার। তাই লেবুর রস খাওয়ার পাশাপাশি লেবুর খোসা খাওয়ারও প্রয়োজন রয়েছে।

* হাড় মজবুত করে তোলে : শরীরের হাড় মজবুত ও স্বাস্থ্যগত করে তুলতে ভিটামিন-সি ও ক্যালসিয়ামের উপকারিতা অপরিসীম। লেবুর খোসা খাওয়ার ফলে শরীরের প্রদাহজনিত পলি আর্থ্রাইটিস, রিউম্যাটয়েড আর্থ্রাইটিস ও অস্টিওপোরোসিসের মতো রোগ প্রতিরোধে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

*ক্যানসার প্রতিরোধক : লেবুর খোসাতেও সাইট্রাস বায়োফ্লাভোনয়েড রয়েছে। এ উপাদানটি শরীরের ভেতরকে ক্ষারীয় করে তোলে। এছাড়াও ক্যানসার প্রতিরোধ করে। শরীরের ভেতরে ক্যানসার কোষ বৃদ্ধির বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান লিমোনিন এবং সালভস্ট্রোল কিউ৪০সরবরাহ করে।

* ফেস মাস্ক : ফেস মাস্ক হিসেবেও লেবুর খোসা ব্যবহার করা যেতে পারে। এ জন্য প্রথমে এক চিমটি লেবুর খোসার গুঁড়োর সঙ্গে ২ টেবিল চামচ চালের গুঁড়ো ভালো করে মিশিয়ে নিন। নিয়মিত এই পেস্টটি ব্যবহারের ফলে ত্বকের মৃত কোষগুলো জীবিত হবে। এ জন্য মুখ হালকা ভেজা থাকা অবস্থায় পেস্টটি সামান্যভাবে মাখুন। ১৫/২০ মিনিট রাখার পর ভালো করে মুখ ধুয়ে নিন।

সূত্র : হেলথ লাইন

এসআর/এম

RTV Drama
RTVPLUS