Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮

সৌদিতে পরিবর্তন আসছে ওয়াহাবি মতবাদে 

সৌদিতে পরিবর্তন আসছে ওয়াহাবি মতবাদে

ওয়াহাবি মতবাদ প্রচার করা সৌদি আরবে এবার ওয়াহাবি মতবাদেই পরিবর্তন আনা হচ্ছে। ফ্রান্সের বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে এমন তথ্যই উঠে এসেছে।

কিছুদিন আগে মসজিদে প্রচারিত আজানের শব্দ নিয়ে আপত্তি তোলে সৌদি সরকার। আজানের শব্দ কমানোর জন্য দেশটির সরকার একটি নির্দেশনাও জারি করে। সৌদি সরকারের এমন পদক্ষেপে বিস্ময় প্রকাশ করেছে বিশ্বের অন্যান্য মুসলিম দেশগুলো।

ইসলাম ধর্ম নিয়ে যতগুলো মতবাদ রয়েছে এর মধ্যে সবচেয়ে কট্টরপন্থি মতবাদ হিসেবে পরিচিত ওয়াহাবি মতবাদ। আর এই ওয়াহাবি মতবাদের একনিষ্ঠ অনুসারী সৌদি আরব।

মুসলিমদের পবিত্রতম ধর্মীয় স্থান কাবা শরীফ এবং মসজিদে নববী সৌদি আরবে অবস্থিত। এছাড়া দেশটিতে লাখ লাখ মসজিদ রয়েছে।

দেশটিতে আজানের শব্দ কমানোর পর প্রতিবাদের ঝড় উঠলেও অনড় থাকে প্রশাসন। সৌদি আরব বিষয়ক আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের অনেকেই বলছেন দেশটির বর্তমান প্রশাসন ধর্মীয় অনুশাসনের চেয়ে সামাজিক ও অর্থনৈতিক সংস্কারকেই অধিক গুরুত্ব দিচ্ছে।

এদেরই একজন যুক্তরাজ্যের এসেক্স বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক আজিজ আলঘাশিয়ান। তিনি এএফপিকে বলেন, ‘সৌদি আরব তার সার্বিক অর্থনৈতিক-সামাজিক কাঠামোকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে এবং এই উদ্যোগের প্রধান কারণ, দেশটি সম্পর্কে বিনিয়োগকারী ও অন্য দেশের ভ্রমণকারীদের যে নেতিবাচক ধারণা রয়েছে, সেগুলো দূর করা।

মোহাম্মদ বিন সালমান ক্ষমতায় আসার পর সৌদিতে যে বিষয়ে কঠোরতা আরোপ ছিল, সে বিষয়গুলোতে ব্যাপক পরিবর্তন আনা হয়েছে। নামাজের সময় শপিং মল-রেস্টুরেন্ট বন্ধ থাকার নির্দেশ থাকলেও এখন তা আর মানা হচ্ছে না। এছাড়া ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখা হচ্ছে শপিং মলগুলো। যা এক সময় ছিল অকল্পনীয়। এছাড়া স্কুলের পাঠ্যপুস্তকেও আনা হয়েছে ব্যাপক পরিবর্তন

দেশটিতে এখন নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে, দেওয়া হয়েছে সিনেমা হল স্থাপনের অনুমতিও। এক সময় ইসলাম ধর্ম ব্যতীত অন্য কোনো ধর্ম পালন করা দেশটিতে নিষিদ্ধ ছিল। কিন্তু সেটিতেও এখন পরিবর্তন আনা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটনের আরব গালফ স্টেট ইনস্টিটিউটের গবেষক ক্রিস্টিন ডিওয়ান এ বিষয়ে এএফপিকে বলেন, ‘যদিও দেশটিতে কট্টরপন্থি ধর্মীয় আবহ এখনও প্রবহমান, কিন্তু তার পরও এটা বললে অত্যুক্তি হবে না যে, সৌদি আরব রাষ্ট্রীয়ভাবে ওয়াহাবি মতবাদ থেকে সরে আসছে।’

‘বর্তমান সৌদি সরকার মানুষকে বোঝাতে চাইছে এখন থেকে অর্থনীতি, সামাজিক জীবন ও পররাষ্ট্র নীতি নির্ধারণে ধর্ম গুরুত্বপূর্ণ কোনো ব্যাপার নয়।’

জেএইচ

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS