logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় সর্বোচ্চ সতর্ক ভারতীয় কোস্টগার্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২২ এপ্রিল ২০১৯, ২৩:১৬ | আপডেট : ২২ এপ্রিল ২০১৯, ২৩:৫৬
ছবি: ভারতের সংবাদ সংস্থা এশিয়ান নিউজ ইন্টারন্যাশনাল (এএনআই)

শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডের দিন তিনটি চার্চ, চারটি হোটেল ও একটি চিড়িয়াখানায় সিরিজ বোমা হামলার পর দেশটির সঙ্গে ভারতের সমুদ্রসীমায় সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করছে এবং একাধিক প্রতিরক্ষামূলক পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতীয় কোস্টগার্ড।

সোমবার প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে একাধিক কোস্টগার্ড সূত্রের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এশিয়ান নিউজ ইন্টারন্যাশনাল (এএনআই)।

সংবাদ সংস্থাটির মতে, শ্রীলঙ্কায় বোমা বিস্ফোরণের সঙ্গে সম্পৃক্ত পালানোর প্রচেষ্টাকে রুখতে এই সমুদ্রসীমায় সমুদ্র পর্যবেক্ষক বিমান ড্রোনিয়ের এবং একাধিক জাহাজ মোতায়েন করা হয়েছে।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, সন্ত্রাসীরা এই সমুদ্রপথে ভারতে প্রবেশের সময় যেন ২৬/১১ মুম্বাই সন্ত্রাসী হামলার মতো কোনও ঘটনা ঘটানে না পারে সেজন্য বাড়তি সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিচ্ছে ভারতীয় কোস্টগার্ড।

এক দশকের বেশি সময় আগে লস্কর-ই-তাইয়্যেবার (এলইটি) ১০ জন সন্ত্রাসী পাকিস্তান থেকে একটি সমুদ্রপথে ভারতে প্রবেশ করে মুম্বাই শহরজুড়ে একাধিক বন্দুক এবং বোমা হামলার ঘটনা ঘটনায়।

২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর শহরটির ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস (সিএসটি) রেলওয়ে স্টেশন, কামা হসপিটাল, নরিমন হাউজ বিজনেস অ্যান্ড রেসিডেনশিয়াল কমপ্লেক্স, লিওপোল্ড ক্যাফে, তাজ মহল হোটেল অ্যান্ড টাওয়ার এবং অবেরই-ট্রিডেন্ট হোটেলে একাধিক হামলার ঘটনায় ১৬৬ জন নিহত এবং তিন শতাধিক মানুষ আহত হন।

রোববার শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডে উদযাপনকালে আটটি সিরিজ হামলায় ইতোমধ্যে কমপক্ষে ২৯০ জন নিহত এবং পাঁচ শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন।

দেশটির পুলিশের মুখপাত্র রুয়ান গুনাসেকারা দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসকে বলেছেন, এই মারাত্মক বিস্ফোরণগুলো ঘটানোর সঙ্গে সম্পৃক্ত ২৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে জামাত আল-তাওহিদ আল ওয়াতানিয়া নামের একটি গোষ্ঠী এসব হামলার দায় স্বীকার করেছে বলে আল-আরাবিয়া টিভি চ্যানেলের বরাত দিয়ে জানিয়েছে রাশিয়ার সংবাদ সংস্থা তাস।

কে/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়